সাইফ আলি খান

ভারতীয় অভিনেতা ও প্রযোজক

সাইফ আলী খান (জন্ম: সাজিদ আলি খান;[১] ১৬ আগস্ট ১৯৭০) একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং প্রযোজক। তার মা অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর, বাবা ক্রিকেট খেলোয়াড় মনসুর আলি খান পতৌদি। তার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে যশ চোপড়ার পরম্পরা (১৯৯৩) চলচ্চিত্র দিয়ে। তিনি ১৯৯৪ সালে প্রণয়ধর্মী ইয়ে দিল্লাগি ও মারপিটধর্মী ম্যাঁয় খিলাড়ি তু আনাড়ি চলচ্চিত্র দিয়ে সফলতা অর্জন করেন। এর পরবর্তী সময়ে তার বেশ কিছু চলচ্চিত্র ব্যর্থ হওয়ার পর ১৯৯৯ সালে তার অভিনীত বহুতারকাসমৃদ্ধ হাম সাথ-সাথ হ্যাঁয় (১৯৯৯) চলচ্চিত্র ব্যবসাসফল হয়। ২০০০-এর দশকের শুরুতে তিনি দুটি তারকাবহুল চলচ্চিত্র দিল চাহতা হ্যায় (২০০১) ও কাল হো না হো (২০০৩)-এ অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন।

সাইফ আলি খান
Saif at Chef event.jpg
সাইফ আলি খান
জন্ম
সাজিদ আলি খান

(1970-08-16) ১৬ আগস্ট ১৯৭০ (বয়স ৪৯)
পেশাঅভিনেতা
কার্যকাল১৯৯৩–বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীঅমৃতা সিং (বি. ১৯৯১; বিচ্ছেদ. ২০০৪)
কারিনা কাপুর (বি. ২০১২)
পিতা-মাতামনসুর আলি খান পতৌদি (পিতা)
শর্মিলা ঠাকুর (মাতা)
পুরস্কারপূর্ণ তালিকা

২০০৪ সালে তিনি প্রণয়ধর্মী হাস্যরসাত্মক হাম তুম চলচ্চিত্রে একক প্রধান অভিনেতা হিসেবে প্রথম সফলতা লাভ করেন এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। এরপর ২০০৫ সালে নাট্যধর্মী পরিণীতা ও প্রণয়ধর্মী হাস্যরসাত্মক সালাম নমস্তে চলচ্চিত্রে অভিনয় করে নিজেকে বলিউডের অন্যতম প্রধান অভিনেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন। তিনি রোমহর্ষক এক হাসিনা থি (২০০৪) চলচ্চিত্রে সুবিধাবাদী ব্যবসায়ী, ইংরেজি ভাষার বিয়িং সাইরাস (২০০৬) চলচ্চিত্রে একজন শিক্ষানবিশ, অপরাধধর্মী ওমকারা (২০০৬) চলচ্চিত্রে উইলিয়াম শেকসপিয়রের ইয়াগো চরিত্রের ভারতীয় চরিত্রায়ন, এবং রোমহর্ষক কুরবান (২০০৯) চলচ্চিত্রে সন্ত্রাসী চরিত্রে অভিনয় করে সমাদৃত হন। তার অভিনীত ব্যবসাসফল চলচ্চিত্রসমূহ হল ২০০৮ সালের রোমহর্ষক রেস ও এর ২০১৩ সালের অনুবর্তী পর্ব রেস ২, ২০০৯ সালের প্রণয়ধর্মী লাভ আজ কাল এবং ২০১২ সালের প্রণয়ধর্মী হাস্যরসাত্মক চলচ্চিত্র ককটেল। তার অভিনীত পরবর্তী একাধিক চলচ্চিত্র বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়, কিন্তু তিনি নেটফ্লিক্সে রোমহর্ষক ধারাবাহিক স্যাক্রেড গেমস-এ পুলিশ কর্মকর্তা এবং ঐতিহাসিক নাট্যধর্মী তানহাজী (২০২০) চলচ্চিত্রে রাজপুত দুর্গ রক্ষক অভিনয় করে প্রশংসিত হন।

সাইফের প্রথম স্ত্রী অভিনেত্রী অমৃতা সিং। তাদের দাম্পত্য জীবন ১৩ বছর স্থায়ী হয়। তাদের দুই সন্তান রয়েছে। তার বর্তমান স্ত্রী অভিনেত্রী কারিনা কাপুর। কাপুরের সাথে তার এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

ব্যক্তিজীবনসম্পাদনা

সাইফ আলী খানের আসল নাম ছিল সাজিদ আলী খান। পরবর্তীতে নাম পরিবর্তন করে রাখেন সাইফ আলী খান।

সাইফ তার চেয়ে বয়সে ১০ বছরের ছোট বলিউডের অভিনেত্রী কারিনা কাপুর কে বিয়ে করেন। অমৃতা সিংয়ের সঙ্গে ১৩ বছর সংসার করার পর বিচ্ছেদ ঘটিয়ে পরবর্তী সময়ে বলিউডের প্রভাবশালী কাপুর পরিবারের মেয়ে ‘হিরোইন’ তারকা কারিনার টানা পাঁচ বছর সাইফের সাথে চুটিয়ে প্রেম করেন। ২০১২ সালে তারা তারা বন্ধনে আবদ্ধ হন। সাইফের উচ্চতা পাঁচ ফুট সাত ইঞ্চি এবং তার জীবনসঙ্গী কারিনার উচ্চতা পাঁচ ফুট চার ইঞ্চি।[২] সাইফ ও অমৃতার ইব্রাহিম আলি খান নামে এক পুত্র এবং সারা আলি খান নামে এক কন্যা রয়েছে। সাইফ ও কারিনার তৈমুর নামে এক পুত্র রয়েছে।

চলচ্চিত্রের তালিকাসম্পাদনা

 
২০১৬ সালে সাইফ আলী খান
সাল ছবি পাত্র অন্য তথ্য
১৯৯৩ পরম্পরা প্রতাপ সিং
আশিক আওয়ারা জিমি/রাকেশ রাজপাল বিজয়ী, ফিল্মফেয়ার পুরস্কার সেরা নতুন অভিনেতা
পহেচান
১৯৯৪ ইমতিহান ভিকি
ইয়ে দিল্লাগি বিক্রম "ভিকি" সাইগল
ম্যায় খিলাড়ি তু আনাড়ি দীপক কুমার মনোনিত, ফিল্মফেয়ার সেরা সহ-অভিনেতা
ইয়ার গদ্দার জয় ভারমা
আও প্যার করে রাজা
১৯৯৫ সুরক্ষা অমর/প্রিন্স বিজয়
১৯৯৬ এক থা রাজা সানি
বোম্বাই কা বাবু বিক্রম (ভিকি)
তু চোর ম্যায় সিপাহি রাজা/কিং
দিল তেরা দিওয়ানা রবি কুমার
১৯৯৭ হামেশা রাজা/রাজু
উড়ান রাজা
১৯৯৮ কিমত: দে আর ব্যাক অজয়
হামসে বড়কর কউন সানি
১৯৯৯ ইয়ে হ্যায় মুম্বাই মেরি জান রাজু তারাচান্দ
কচ্চে ধাগে ধনঞ্জয় পন্ডিত 'জয়' মনোনীত, ফিল্মফেয়ার সেরা সহ অভিনেতা
আরজু অমর
বিবি নং ১ দীপক বিশেষ ভুমিকা
হাম সাথ-সাথ হ্যাঁয় বিনোদ
২০০০ ক্যা কেহনা রাহুল মোদি
২০০১ লাভ কে লিয়ে কুছ ভি করেগা রাহুল কাপুর
দিল চাহতা হ্যায় সমীর পুরস্কৃত, ফিল্মফেয়ার সেরা কৌতুকাভিনেতা
র‍্যাহনা হ্যায় তেরে দিল মেঁ রাজীব "স্যাম" সামরাও
২০০২ না তুম জানো না হাম অক্ষয়
২০০৩ ডরনা মানা হ্যায় অনিল মানচন্দানি
কাল হো না হো রোহিত প্যাটেল পুরস্কৃত, ফিল্মফেয়ার সেরা সহ-অভিনেতা &
ফিল্মফেয়ার মোটোরোলা "মোটো লুক অব দি ইয়ার"
এলওসি কারগিল ক্যাপ্টেন অনুজ নায়ার
২০০৪ এক হাসিনা থি করন সিং রাঠোড় প্রথম খলনায়কের চরিত্র
হাম তুম করন কাপুর পুরস্কৃত, ফিল্মফেয়ার সেরা কৌতুকাভিনেতা
পুরস্কৃত, জাতীয় সেরা অভিনেতা
২০০৫ পরিণীতা শেখর রাই মনোনীত, ফিল্মফেয়ার সেরা অভিনেতা
সেলাম নমস্তে নিখিল "নিক" অরোরা
২০০৬ বিইং সাইরাস সাইরাস মিস্ত্রী
ওমকারা ঈশ্বর "ল্যাংড়া" ত্যাগী পুরস্কৃত, ফিল্মফেয়ার সেরা খলনায়ক
২০০৭ একলব্য: দ্য রয়েল গার্ড প্রিন্স হর্ষবর্ধন অস্কার পুরস্কারে ভারতের সরকারি মনোনয়ন
নেহলে পে দহেলা জিমি
তা রা রাম পম রাজবীর সিং/আর.ভি
ওম শান্তি ওম নিজে বিশেষ ভুমিকা দিওয়ানগি দিওয়ানগি গানে
২০০৮ রেস রণবীর সিং
তাশান জিতেন্দ্র "জিমি ক্লিফ" কুমার মাখওয়ানা
উডস্টক ভিলা নিজে বিশেষ ভুমিকা
থোড়া প্যার থোড়া ম্যাজিক রণবীর তলোয়ার
রোডসাইড রোমিও রোমিও-র আওয়াজ
২০১৮ বাজার শকুন কোঠারি -

পুরস্কার ও সম্মাননাসম্পাদনা

২০০৯ সালে সাইফ ভারতের সবচেয়ে সম্মানিত পুরস্কার ‘পদ্মাশ্রী’ ভূষণে ভূষিত হন। ‘হাম তুম’ ছবিতে অভিনয়ের কারণে ২০০৫ সালে সাইফ আলী খান ভারতের ‘ন্যাশনাল ফিল্ম অ্যাওয়ার্ড’র সেরা অভিনেতার পুরস্কার পান।

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Saif-Kareena wedding: Saif gets married as Sajid Ali Khan"দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া। ১৬ অক্টোবর ২০১২। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুন ২০২০ 
  2. "ছোট হয়েও বড় যারা"। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৭ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা