শয়নী একাদশী

বাংলার হিন্দুসমাজের অশাস্ত্রীয় বা মেয়েলি ব্রত

শয়নী একাদশী হল হিন্দু পঞ্জিকা অনুসারে আষাঢ় মাসের শুক্লপক্ষের একাদশী তিথি। এই তিথিটি মহৈকাদশী, প্রথমৈকাদশী, পদ্ম একাদশী, দেবশয়নী একাদশী, দেবপোধি একাদশী বা আষাঢ়ী একাদশী বা আষাঢ়ী নামেও পরিচিত। হিন্দুধর্মের বৈষ্ণব সম্প্রদায়ের কাছে এই দিনটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। এই দিন বিষ্ণুলক্ষ্মীর পূজা করা হয়, সারা রাত্রিব্যাপী কীর্তন অনুষ্ঠিত হয়, ভক্তেরা উপবাস করেন এবং চতুর্মাস্য নামক চার মাসব্যাপী ব্রতের সূচনা হয়।[১]

শয়নী একাদশী
Shesh shaiya Vishnu.jpg
আনুষ্ঠানিক নামদেবশয়নী আষাঢ়ী একাদশী
অন্য নামমহৈকাদশী
পালনকারীহিন্দু (বিশেষত বৈষ্ণব সম্প্রদায়ে)
ধরনHindu
তাৎপর্যচতুর্মাস্যের সূচনা
পালনউপবাস, বিষ্ণুকৃষ্ণের পূজা
সংঘটনবার্ষিক
সম্পর্কিতপ্রবোধিনী একাদশী

হিন্দু বিশ্বাস অনুসারে, এই দিন বিষ্ণু ক্ষীরসমুদ্রে তার শেষনাগের শয্যায় নিদ্রা যান।[২] এই জন্য এই তিথিটিকে "দেবশয়নী একাদশী" বা "হরিশয়নী একাদশী" বা "শয়নী একাদশী" বলা হয়। চার মাস পর কার্তিক মাসের শুক্লপক্ষের একাদশী তিথিতে (প্রবোধিনী একাদশী) নিদ্রা থেকে বুত্থিত হন। শয়নী একাদশী থেকে প্রবোধিনী একাদশী পর্যন্ত চার মাস সময়কাল "চতুর্মাস্য" নামে পরিচিত। এটি মূলত বর্ষাকাল। এই দিন ভক্তেরা বিষ্ণুকে তুষ্ট করতে চতুর্মাস্য ব্রত করেন।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Bhargava, Gopal K; S. C. Bhatt। Land and people of Indian states and union territories8। পৃষ্ঠা 506। 
  2. Fasts and Festivals of India (2002) By Manish Verma. Diamond Pocket Books (P) Ltd. আইএসবিএন ৮১-৭১৮২-০৭৬-X. p.33
  3. Shayana Ekadashi ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ মার্চ ২০০৯ তারিখে ISKCON

বহিঃসংযোগসম্পাদনা