প্রধান মেনু খুলুন

লুঝনিকি স্টেডিয়াম

লুঝনিকি স্টেডিয়াম (রুশ: Стадион «Лужники», আ-ধ্ব-ব[stədʲɪˈon lʊʐnʲɪˈkʲi]) রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর সর্ববৃহৎ স্টেডিয়াম হিসেবে পরিচিত ক্রীড়া স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামের মোট আসন সংখ্যা ৭৮,৩৬০। লুঝনিকি অলিম্পিক কমপ্লেক্সের অংশ এটি। মস্কো শহরের খামোভনিকি জেলায় এর অবস্থান। মস্কোভা নদীর বাঁকে জন্মানো সুগভীর তৃণক্ষেত্র থেকে ‘লুঝনিকি’ নামটির উৎপত্তি ঘটেছে।

লুঝনিকি স্টেডিয়াম
Luzhniki Stadium2.jpg উয়েফা ৪র্থ শ্রেণীর স্টেডিয়াম
Nuvola apps mozilla.png Nuvola apps mozilla.png Nuvola apps mozilla.png Nuvola apps mozilla.png
প্রাক্তন নামসেন্ট্রাল লেনিন স্টেডিয়াম (১৯৫৬-১৯৯২)
অবস্থানরাশিয়া মস্কো, রাশিয়া
স্থানাঙ্ক৫৫°৪২′৫৭″ উত্তর ৩৭°৩৩′১৪″ পূর্ব / ৫৫.৭১৫৮৩° উত্তর ৩৭.৫৫৩৮৯° পূর্ব / 55.71583; 37.55389স্থানাঙ্ক: ৫৫°৪২′৫৭″ উত্তর ৩৭°৩৩′১৪″ পূর্ব / ৫৫.৭১৫৮৩° উত্তর ৩৭.৫৫৩৮৯° পূর্ব / 55.71583; 37.55389
মালিকমস্কো সরকার
পরিচালকলুঝনিকি অলিম্পিক স্পোর্ট কমপ্লেক্স জেএসসি
ধারণক্ষমতা৭৮,৩৬০ (বর্তমান)
উপস্থিতির রেকর্ড১,০২,৫৩৮ (ইউএসএসআরইতালি, ১৩ অক্টোবর, ১৯৬৩)
উপরিভাগ২০০৮ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের জন্য ফিল্ডটার্ফ (ঘাস)
নির্মাণ
উন্মোচন৩১ জুলাই, ১৯৫৬
স্থপতিপিএ অ্যারিনা, জিএমপি আর্কিটেকটেনমসপ্রজেক্ট-৪
ভাড়াটিয়া
ইউএসএসআর/রাশিয়া জাতীয় ফুটবল দল (১৯৫৬-বর্তমান)

পূর্বে পিএফসি সিএসকেএ মস্কো, টর্পেডো মস্কো ও স্পার্তাক মস্কো ফুটবল ক্লাব এখানে অনুশীলন করতো। বর্তমানে এটি মূলতঃ রাশিয়া জাতীয় ফুটবল দলের অনুশীলনে ব্যবহার করা হয়। ইউরোপীয় ঘরানার স্বল্পসংখ্যক প্রধান স্টেডিয়ামগুলোর ন্যায় ২০০২ সাল থেকে ফিফা অনুমোদিত ফিল্ডটার্ফ কৃত্রিম পিচ ব্যবহার করা হচ্ছে। তা স্বত্ত্বেও ২০০৮ সালের উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে অস্থায়ীভিত্তিতে প্রাকৃতিক ঘাসের পিচ প্রতিস্থাপিত হয়েছিল।[১] এছাড়াও, স্টেডিয়ামটিতে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের ক্রীড়া ও প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়ে থাকে।

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৫৫-৫৬ মৌসুমে সেন্ট্রাল লেনিন স্টেডিয়াম নামে স্টেডিয়ামটি নির্মাণ করা হয়। ৩১ জুলাই, ১৯৫৬ তারিখে আনুষ্ঠানিকভাবে স্টেডিয়ামের উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়।[২] সোভিয়েত ইউনিয়নের জাতীয় স্টেডিয়ামের মর্যাদা পেয়েছিল যা পরবর্তীতে রাশিয়ার জাতীয় স্টেডিয়াম হিসেবে এটি পরিচিত।

১৯৮০ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের প্রধান মাঠ ছিল এটি। ঐ সময় দশর্ক ধারণ সংখ্যা ১০৩,০০০ ছিল। উদ্বোধনী ও সমাপণী অনুষ্ঠানসহ অ্যাথলেটিকস, ফুটবল ফাইনাল ও ব্যক্তিগত লম্ফ গ্রাঁ প্রি অনুষ্ঠিত হয়েছে।[৩]

১৯৯২ সালে ‘লুঝনিকি স্টেডিয়াম’ হিসেবে এর নাম পুণঃনামাঙ্কিত হয়। ১৯৯৬ সালে স্ট্যান্ডের উপর ছাদ নির্মাণের ফলে আসন সংখ্যা কমাতে হয়।[২]

ঘটনাসমূহসম্পাদনা

২১ মে, ২০০৮ তারিখে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের ফাইনালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড চেলসিকে হারিয়ে শিরোপা জয় করে। কিন্তু মাঠ ও রুশ কর্তৃপক্ষের ব্রিটিশ সমর্থকদের নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে প্রশ্নের মুখোমুখি হওয়ার পর খেলাটি শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়। পরে মস্কোয় নিযুক্ত ব্রিটিশ দূতাবাসের মুখপত্র বলেন যে, ‘নিরাপত্তা ও নৈতিকতাপূর্ণ আয়োজনে রুশ কর্তৃপক্ষের ভূমিকা অতিমাত্রায় ছিল ও যুক্তরাজ্য থেকে আসা সমর্থকদের সাথে চমৎকার সহযোগিতা লক্ষ্যণীয়।’[৪]

১০-১৮ আগস্ট, ২০১৩ তারিখে বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশীপের আসর এখানে অনুষ্ঠিত হয়।

২০১৮ ফিফা বিশ্বকাপসম্পাদনা

২০১৮ সালে ফিফা বিশ্বকাপ আয়োজনে রাশিয়াকে স্বাগতিক দেশের মর্যাদা দেয়া হয়। ১৫ জুলাই, ২০১৮ তারিখে অনুষ্ঠিতব্য চূড়ান্ত খেলা আয়োজনে লুঝনিকি স্টেডিয়ামকে দায়িত্ব দেয়া হয়। এরফলে রোমের স্টেডিও অলিম্পিকো, বার্লিনের অলিম্পিয়াস্টেডিওন, মিউনিখের অলিম্পিয়াস্টেডিওন এবং লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের পর ফিফা বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলা আয়োজনের সুযোগ পাবে।

অন্যান্যসম্পাদনা

১৯৫৭ সালে আইস হকি বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশীপের চূড়ান্ত খেলায় সুইডেন ও সোভিয়েত ইউনিয়ন মোকাবেলা করে। এতে ৫৫,০০০ দর্শক উপস্থিত থেকে নতুন বিশ্ব রেকর্ড স্থাপন করেছিলেন। অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাসমূহের মধ্যে ১৯৭৩ সালের গ্রীষ্মকালীন বিশ্ববিদ্যালয় ক্রীড়া, ১৯৮৯ সালে মস্কো সঙ্গীত শান্তি উৎসব ও ১৯৯৮ সালের বিশ্ব যুব ক্রীড়ার উদ্বোধনী আসর অন্যতম। ২০১৩ সালের রাগবি বিশ্বকাপ সেভেন্স এ মাঠেই অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এছাড়াও, ইউরোপীয় ফুটবল ক্লাব রুবন কাজান উয়েফার মানদণ্ডে উপনীত না হওয়ায় এ মাঠ ব্যবহার করে।

১৯৯৩ সালের ড্যাঞ্জেরাস ট্যুরে মাইকেল জ্যাকসন নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। এরপর রোলিং স্টোন্স, ম্যাডোনা, মেটালিকা, কিনো, ইউ২[৫] ব্যান্ড দলগুলো এ স্টেডিয়ামে সঙ্গীত পরিবেশন করে। সাম্প্রতিক সময়ে ২২ জুলাই, ২০১২ তারিখে স্টেডিয়ামে রেড হট চিলি পিপার্স প্রদর্শন করে।

২০ অক্টোবর, ১৯৮২ তারিখে এফসি স্পার্তাক মস্কো ও এইচএফসি হারলেমের মধ্যকার খেলায় দুঃখজনক ঘটনা ঘটে। পদদলিত হয়ে ৬৬ ব্যক্তির প্রাণহানি ঘটে যা রাশিয়ার নিকৃষ্টতম ক্রীড়া দূর্ঘটনা হিসেবে ঐ সময়ে পরিগণিত হয়েছিল।[৬]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Moscow to host Champions League final on natural grass"ESPN। ৫ অক্টোবর ২০০৬। 
  2. "Luzhniki Stadium"। The Stadium Guide। 
  3. 1980 Summer Olympics official report. Volume 2. Part 1. pp. 48-51.
  4. Halpin, Tony (২০০৮-০৫-২২)। "Moscow proud of trouble-free Champions League final"। London: The Times। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৫-২২ 
  5. "U2 in Russia" 
  6. Зайкин, В. (১৯৮৯-০৭-২০)। Трагедия в Лужниках. Факты и вымыселИзвестия (Russian ভাষায়) (202)। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-০২-০৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

ইভেন্ট এবং ভাড়াটে
পূর্বসূরী
স্টেডিও কম্যুনাল
তুরিন
সামার ইউনিভাসিয়াড
উদ্বোধনী ও সমাপণী অনুষ্ঠান

১৯৭৩
উত্তরসূরী
স্টেডিও অলিম্পিকো
রোমা
পূর্বসূরী
অলিম্পিক স্টেডিয়াম
মন্ট্রিল
গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক
উদ্বোধনী ও সমাপণী অনুষ্ঠান

১৯৮০
উত্তরসূরী
লস অ্যাঞ্জেলেস মেমোরিয়াল কলিসিয়াম
লস অ্যাঞ্জেলেস
পূর্বসূরী
অলিম্পিক স্টেডিয়াম
মন্ট্রিল
অলিম্পিক অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতা
প্রধান মাঠ

১৯৮০
উত্তরসূরী
লস অ্যাঞ্জেলেস মেমোরিয়াল কলিসিয়াম
লস অ্যাঞ্জেলেস
পূর্বসূরী
অলিম্পিক স্টেডিয়াম
মন্ট্রিল
গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক
পুরুষদের ফুটবল ফাইনাল

১৯৮০
উত্তরসূরী
রোজ বোল
পাসাদেনা
পূর্বসূরী
পার্ক ডেস প্রিন্সেস
প্যারিস
উয়েফা কাপ
চূড়ান্ত মাঠ

১৯৯৯
উত্তরসূরী
পার্কেন স্টেডিয়াম
কোপেনহেগেন
পূর্বসূরী
অলিম্পিক স্টেডিয়াম
এথেন্স
উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ
চূড়ান্ত মাঠ

২০০৮
উত্তরসূরী
স্টেডিও অলিম্পিকো
রোম
পূর্বসূরী
দাইগু স্টেডিয়াম
দাইগু
বিশ্ব অ্যাথলেটিকস চ্যাম্পিয়নশিপ
প্রধান মাঠ

২০১৩
উত্তরসূরী
বেইজিং ন্যাশনাল স্টেডিয়াম
বেইজিং
পূর্বসূরী
অ্যারিনা করিন্থিয়ান্স
সাউ পাউলো
ফিফা বিশ্বকাপ
উদ্বোধনী মাঠ

২০১৮
উত্তরসূরী
লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়াম
লুসাইল
পূর্বসূরী
এস্তাদিও দো মারাকানা
রিও দি জেনেরিও
ফিফা বিশ্বকাপ
চূড়ান্ত মাঠ

২০১৮
উত্তরসূরী
লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়াম
লুসাইল