লি গাং-ইন

দক্ষিণ কোরীয় ফুটবল খেলোয়াড়

লি গাং-ইন (কোরীয়: 이강인, ইংরেজি: Lee Kang-in; জন্ম: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০০১) হলেন একজন দক্ষিণ কোরীয় পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড়[১][২] তিনি বর্তমানে স্পেনের পেশাদার ফুটবল লীগের শীর্ষ স্তর লা লিগার ক্লাব ভালেনসিয়া এবং দক্ষিণ কোরিয়া অনূর্ধ্ব-২৩ দলের হয়ে মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন। তিনি মূলত আক্রমণাত্মক মধ্যমাঠের খেলোয়াড় হিসেবে খেললেও মাঝেমধ্যে ডান পার্শ্বীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় এবং বাম পার্শ্বীয় পার্শ্বীয় আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন।

লি গাং-ইন
Lee Kangin 2019.png
২০১৯ সালে ভালেনসিয়ার হয়ে গাং-ইন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম লি গাং-ইন
জন্ম (2001-02-19) ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০০১ (বয়স ২১)
জন্ম স্থান ইনছন, দক্ষিণ কোরিয়া
উচ্চতা ১.৭৩ মিটার (৫ ফুট ৮ ইঞ্চি)
মাঠে অবস্থান মধ্যমাঠের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান দল
ভালেনসিয়া
জার্সি নম্বর ২০
যুব পর্যায়
২০০৯– ইনছন ইউনাইটেড
0000–২০১১ ফ্লাইংস
২০১১–২০১৭ ভালেনসিয়া
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
বছর দল ম্যাচ (গোল)
২০১৭–২০১৯ ভালেনসিয়া যুব ২৬ (৪)
২০১৮– ভালেনসিয়া ৪৪ (২)
জাতীয় দল
২০১৭– দক্ষিণ কোরিয়া অনূর্ধ্ব-২০ ১৬ (৭)
২০২১– দক্ষিণ কোরিয়া অনূর্ধ্ব-২৩ (৩)
২০১৯– দক্ষিণ কোরিয়া (০)
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে এবং ১৪:০৯, ৪ জানুয়ারি ২০২২ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সকল তথ্য সঠিক।
‡ জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা ১৪:০৯, ৪ জানুয়ারি ২০২২ (ইউটিসি) তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

২০১৭ সালে, গাং-ইন দক্ষিণ কোরিয়া অনূর্ধ্ব-২০ দলের হয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার বয়সভিত্তিক পর্যায়ে অভিষেক করেছিলেন। তিনি ২০১৯ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেছেন; দক্ষিণ কোরিয়ার জার্সি গায়ে তিনি এপর্যন্ত ৬ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছেন।

ব্যক্তিগতভাবে, গাং-ইন বেশ কিছু পুরস্কার জয়লাভ করেছেন, যার মধ্যে ২০১৯ ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপের গোল্ডেন বল এবং ২০১৯ বর্ষসেরা এশীয় যুব ফুটবলারের পুরস্কার জয় অন্যতম।[৩][৪] দলগতভাবে, গাং-ইন এপর্যন্ত ১টি শিরোপা জয়লাভ করেছেন, যা ভালেনসিয়ার হয়ে জয়লাভ করেছেন।

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

লি গাং-ইন ২০০১ সালের ১৯শে ফেব্রুয়ারি তারিখে দক্ষিণ কোরিয়ার ইনছনে জন্মগ্রহণ করেছেন এবং সেখানেই তার শৈশব অতিবাহিত করেছেন।

আন্তর্জাতিক ফুটবলসম্পাদনা

গাং-ইন জাপানে অনুষ্ঠিত ২০২০ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের জন্য ২০২১ সালের জুলাই মাসে প্রকাশিত দক্ষিণ কোরিয়া অনূর্ধ্ব-২৩ দলে স্থান পেয়েছেন।[৫][৬][৭][৮]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. 엑스포츠인터뷰 -슛돌이 3기 이강인을 만나다 (কোরীয় ভাষায়)। Xportsnews। ১১ মে ২০০৯। 
  2. 슛돌이 이강인, 발렌시아 CF 유소년팀 입단 (কোরীয় ভাষায়)। Starnews Korea। ৬ জুলাই ২০১১। 
  3. "Lee, Lunin headline award winners at Poland 2019"FIFA.com। Fédération Internationale de Football Association। ১৫ জুন ২০১৯। ১৭ জুন ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০২২ 
  4. "AFC Youth Player of the Year (Men) 2019: Lee Kang-in"The-AFC.com। AFC। ২ ডিসেম্বর ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  5. "Squad list - Men's Olympic Football Tournament Tokyo 2020" [দলের তালিকা - পুরুষদের অলিম্পিক ফুটবল প্রতিযোগিতা টোকিও ২০২০] (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ফিফা। ৭ জুলাই ২০২১। পৃষ্ঠা ১০। 
  6. "[오피셜] '이강인-황의조' 포함 김학범호, 올림픽 최종 명단 발표" [কিম হাক-পামের টোকিও অলিম্পিকের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করেছেন]। naver.com (কোরীয় ভাষায়)। স্পোর্টাল কোরিয়া। ৩০ জুন ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুলাই ২০২১ 
  7. "[오피셜] 명단 발표 한나절 만에...올림픽 대표팀, 추가 4인 명단 2일 발표" [দল ঘোষণার এক দিন পর অতিরিক্ত ৪ খেলোয়াড়ের নাম ঘোষণা করেছে]। naver.com (কোরীয় ভাষায়)। ২ জুলাই ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০২১ 
  8. "[오피셜] 김민재, 결국 올림픽 못 간다... 박지수 대체 발탁" [পার্ক সি-সু চূড়ান্ত দলে অন্তর্ভুক্ত]। naver.com (কোরীয় ভাষায়)। ১৬ জুলাই ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুলাই ২০২১ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা