লাবাং

দুগ্ধজাত পানীয়

লাবাং শব্দটি আরব বিশ্ব (মধ্য প্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকা) জুড়ে লাবান, লেবেন (আরবি: لبن‎‎) সহ বিভিন্নভাবে ব্যবহৃত হয়,[১] গাঁজানো/ফুটানো দুধের কোনও খাবার বা পানীয় বোঝাতে। সাধারণত, লাবাং হিসাবে পরিচিত দুটি প্রধান পণ্য রয়েছে: লেভ্যান্ট অঞ্চলে, দই ; এবং আরব এবং উত্তর আফ্রিকায় (মাগরেব) ঘোল। ইচ্ছাকৃতভাবে দুধকে টক করে দেওয়ার প্রচলন প্রাচীনকাল থেকেই জ্ঞাত এবং বহু সংস্কৃতি দ্বারা এটি চর্চা করা হয়।

ঐতিহ্যবাহী লাবাং

ঐতিহ্যবাহী পানীয় এই লাবাং তৈরিতে প্রায় ২৪ ঘণ্টা দুধকে গাঁজানো হয়, তারপরে মাখন মন্থন করা হয় এবং সরিয়ে ফেলা হয়। অবশিষ্ট ঘোল কয়েক দিনের জন্য ঘরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রাখতে পারে। বর্তমান আধুনিক সময়ে এটি বাণিজ্যিকভানে উৎপাদন করা হয়।

প্রস্তুতপ্রণালীসম্পাদনা

উপকরণসম্পাদনা

  • পুদিনা পাতা - ৫ টেবিল চামচ
  • টকদই - ১ কাপ
  • বিট লবণ - স্বাদমতো
  • টালা জিরা গোঁড়া - ১/৪ চা চামচ
  • চিনি - ১ চা চামচ
  • পানি - ২ কাপ
  • বরফ কুঁচি - পরিমাণমতো[২]

প্রণালীসম্পাদনা

সব উপকরণ একসাথে ব্লেন্ডারে দিয়ে মিশ্রিত করে নিতে হবে। মিশ্রিত করা হলে বরফ কুঁচি দিয়ে লাবাং পরিবেশন করতে হবে।[২]

আরো দেখুনসম্পাদনা

অনুরূপ পানীয়:

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. FAO corporate document repository, “The technology of traditional milk products in developing countries”, “”
  2. "লাবাং রেসিপি"। shajgoj.com। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০২০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা