মাঠা

দুগ্ধজাত পানীয়

মাঠা এক প্রকার পানীয়, যা ভারতীয় উপমহাদেশে উদ্ভব হয়, দই অথবা ঘোলের সাথে মসলাচিনি মিশিয়ে এটি তৈরি হয়। ভারতের বিহার, পশ্চিমবঙ্গ এবং ত্রিপুরায় সাদা ঘোলকেও মাঠা বলা হয়।[১] মাঠা তৈরির জন্য ঘোলের সাথে মিশ্রিত উপাদানের মধ্যে পুদিনা, ভাজা জিরা, হিং, বারসুঙ্গা, লবণ এবং চিনি অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে।[২][৩]

মাঠা
Mattha.jpg
অন্যান্য নামমহি (নেপালে)
উৎপত্তিস্থলভারতীয় উপমহাদেশ
অঞ্চল বা রাজ্যভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, নেপাল
প্রধান উপকরণঘোল অথবা দই

মাঠা সাধারণত খাবারের আগে বা পরে পরিবেশন করা হয়, যদিও এটি খাবারের সাথেও খাওয়া যেতে পারে এবং এটি হজমে সহায়তা করতে পারে বলে মনে করা হয়। মাঠা অনেকটাই চাসের অনুরূপ, যাকে ছানচ বা ঘোল'ও বলা হয়, তবে এটি অতিরিক্ত মসলাদার এবং নেপালে মোহি নামে পরিচিত।

প্রস্তুতপ্রণালীসম্পাদনা

উপকরণসম্পাদনা

  • টক দই - ১ কাপ
  • পানি - ২ কাপ
  • লেবু - ১টি
  • বিট লবণ - ১ চা চামচ
  • চিনি - ১/৩ কাপ।[৪]

প্রণালীসম্পাদনা

একটি পাত্রে টক দই ও পানি দিয়ে নেড়ে নিতে হবে। একটি লেবু কয়েকটি টুকরো করে চিপে দিতে হবে। লেবুর টুকরাগুলোও ছেড়ে দিতে হবে ভেতরে। বিট লবণ ও চিনি দিয়ে নাড়তে হবে। এটি ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করা যাবে না। চামচ অথবা ডিম ফেটানোর যন্ত্র দিয়ে সব উপকরণ মেশাতে হবে। গ্লাসে ঢেলে লেবুর টুকরা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করা যাবে ঠান্ডা মাঠা।[৪]

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Vidyarthi, L.P., Prasad, R. and Upadhyay, V.S., 1979. Changing dietary patterns and habits: a socio-cultural study of Bihar. Concept Publishing Company.
  2. Yildiz, Fatih (২০১০)। Development and manufacture of yogurt and other functional dairy products। CRC Press। পৃষ্ঠা 11। আইএসবিএন 9781420082081 
  3. Pereira, Jiggs Kalra & Pushpesh Pant, with Raminder Malhotra; photographs, Ian (২০০৪)। Classic cooking of Punjab। Allied Publishers। আইএসবিএন 978-8177645668 
  4. "পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী মাঠা রেসিপি"। Mituni's Kitchen। সংগ্রহের তারিখ ২৩ এপ্রিল ২০২০ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগসম্পাদনা