যীশু সেনগুপ্ত

ভারতীয় অভিনেতা

যীশু সেনগুপ্ত (জন্ম বিশ্বরূপ সেনগুপ্ত; ১৫ মার্চ ১৯৭৭) একজন ভারতীয় অভিনেতা, প্রযোজক, টেলিভিশন উপস্থাপক। তিনি প্রধানত বাংলা চলচ্চিত্রে এবং কয়েকটি হিন্দি ছবিতেও অভিনয় করেছেন তিনি। তিনি একটি বাংলা টিভি সিরিজ মহাপ্রভু (১৯৯৬) এর মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। যেখানে তিনি চৈতন্য মহাপ্রভুর ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন। পরবর্তীকালে, তিনি প্রিয়জন (১৯৯৯) এর মাধ্যমে চলচ্চিত্রে আত্মপ্রকাশ করেন। তিনি শ্যাম বেনেগলের জাতীয় পুরস্কার বিজয়ী চলচ্চিত্র নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোস: দ্য ফরগোটেন হিরো (২০০৪) দিয়ে বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন। তার কর্মজীবনে একটি টার্নিং পয়েন্ট আসে যখন তিনি ঋতুপর্ণ ঘোষের সাথে আবহমান ছবিতে কাজ করেন সমালোচকদের প্রশংসা অর্জন করেন। তার পরবর্তী সময়ে আবার ঋতুপর্ণ ঘোষের সাথে সব চরিত্র কাল্পনিক এবং নৌকাডুবি চলচ্চিত্রের জন্য কাজ করেন তাকে সমালোচনামূলক এবং বাণিজ্যিক সাফল্যের উচ্চতর স্থানে নিয়ে গেছে। জাতিস্মরের মতো চলচ্চিত্রের জন্য অন্যান্য পরিচালকদের সাথে সেনগুপ্তের সহযোগিতা তাকে বাংলা সিনেমার অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা হতে সক্ষম করেছিল।

যীশু সেনগুপ্ত
২০১৫ সালে যীশু
জন্ম
বিশ্বরূপ সেনগুপ্ত

(1977-03-15) ১৫ মার্চ ১৯৭৭ (বয়স ৪৭)
পেশাঅভিনেতা
কর্মজীবন১৯৯৬ – বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীনীলাঞ্জনা শর্মা (বি. ২০০৪)
সন্তানসারা, জারা
আত্মীয়অঞ্জনা ভৌমিক (শাশুড়ি) চন্দনা শর্মা (শালিকা)

যীশু ২০১২ সালে অনুষ্ঠিত টি২০ টিম ইন্ডিয়ান সেলিব্রিটি ক্রিকেট লীগ এর অভ্যন্তরীণ অংশে কাজ করেছেন। কেরালা স্ট্রাইকার্সের বিরুদ্ধে ম্যাচে তার অর্ধশতক অনেক প্রশংসা অর্জন করে। ২০১২ সাল অনুযায়ী, যীশু বর্তমানে গানের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান সা রে গা মা পা: গানে গানে তোমার মনের উপস্থাপক হিসেবে কাজ করছেন, যা জি বাংলায় প্রচারিত হয়।

ব্যক্তিগত জীবন

সম্পাদনা

যীশু সেনগুপ্ত পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় ১৯৭৭ সালের ১৫ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন।[১][২] তার জন্ম নাম ছিল বিশ্বরূপ সেনগুপ্ত।[৩] তিনি বাংলা চলচ্চিত্রের একজন অভিনেতা উজ্জ্বল সেনগুপ্তের ছেলে। ২০০৪ সালে, তিনি চলচ্চিত্র অভিনেত্রী অঞ্জনা ভৌমিকের বড় মেয়ে নীলাঞ্জনা শর্মাকে বিয়ে করেন।[৪] সারা ও জারা নামে তার দুই মেয়ে রয়েছে।[৫]

কর্মজীবন

সম্পাদনা

অন্যান্য কাজ

সম্পাদনা

গণমাধ্যমে

সম্পাদনা

যীশু সেনগুপ্ত কলকাতা টাইমসের ২০১৫ সংস্করণে সবচেয়ে আকাঙ্ক্ষিত পুরুষের প্রথম স্থান অধিকার করেছিলেন ।[৬] তিনি তার ২০১৫ সালের কমেডি নাট্য চলচ্চিত্র পিকুকে ঘিরে তৈরি হওয়া গুঞ্জনের জন্য জুলাই ২০১৫ সালে টাইমস সেলেবেক্সে ৪৯ তম স্থান অর্জন করেন ।[৭] তিনি ডাব্বু রত্নানির বং ক্যালেন্ডার ১৪২২- এ ও উপস্থিত হয়েছিলেন, এটি প্রথম ধরনের উদ্যোগ এবং ক্যালেন্ডারের লঞ্চ ইভেন্টে উপস্থাপিত হয়েছিল।[৮] পাওলি দামের সাথে তিনি আইটিসি সোনারে টাইমস ফুড গাইড ২০১৭ চালু করেন ।[৯]

চলচ্চিত্র

সম্পাদনা

আরো দেখুন

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "Birthday wishes galore for Jisshu Sengupta"The Times of India। ২০১৯-০৩-১৫। আইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 
  2. "We bet you didn't know these 'secrets' of Jisshu Sengupta"The Times of Indiaআইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 
  3. "Did you know Jisshu Sengupta's real name is Biswaroop?"The Times of India। ২০২১-১০-২২। আইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 
  4. "A heart-touching story"The Times of Indiaআইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 
  5. "Jisshu Sengupta's younger daughter Zara plays little Uma in Srijit Mukherji's next"The Times of India। ২০১৮-০৫-০৭। আইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 
  6. "I am not a narcissist: Jisshu Sengupta"The Times of India। ২০১৭-০১-১২। আইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 
  7. "Salman Khan, Deepika Padukone top the Times Celebex list"The Economic Times। ২০১৫-০৭-১৬। আইএসএসএন 0013-0389। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 
  8. "Kangana, Madhavan launch Bong Calendar shot by Daboo Ratnani"The Times of India। ২০১৭-০১-১২। আইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 
  9. "Best moments from the Times Food Awards"The Times of India। ২০১৭-০১-১২। আইএসএসএন 0971-8257। সংগ্রহের তারিখ ২০২৩-১১-০৩ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা