মো. রফিকুল ইসলাম

মো. রফিকুল ইসলাম বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল এবং বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সাবেক মহাপরিচালক। [১]

মো. রফিকুল ইসলামে
আনুগত্যবাংলাদেশ
সার্ভিস/শাখাবাংলাদেশ সেনাবাহিনী
পদমর্যাদামেজর জেনারেল
নেতৃত্বসমূহসাবেক মহাপরিচালক বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ

কর্মজীবনসম্পাদনা

মো. রফিকুল ইসলাম ১৯৭৬ সালের ৩০ নভেম্বর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সিগন্যাল কর্পসে যোগ দেন। তিনি সামরিক অপারেশন ডিরেক্টরেট (জিএসও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি সেনাপ্রধানের সহকারী ব্যক্তিগত সচিব ছিলেন। তিনি সিগনাল ট্রেনিং স্কুল ও কলেজের কমান্ড্যান্ট ছিলেন এবং দুটি সিগন্যাল ব্যাটালিয়নের কমান্ড্যান্ট হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি পদাতিক ডিভিশনের কর্নেল স্টাফ হিসেবে কাজ করেন। [২]

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদর দফতরে সিগন্যাল পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এবং সশস্ত্র বাহিনী বিভাগে অপারেশন পরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ১১ মে ২০১১ তারিখে তিনি বর্ডার গার্ডের মহাপরিচালক নিযুক্ত হন। [২] তিনি ২০০৯ সালের বাংলাদেশ রাইফেলসে বিদ্রোহীদের বিচার করার জন্য বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের বিশেষ আদালত নং-৩ এর সভাপতিত্ব করেন। [৩] তিনি বিডিআর ট্রাইব্যুনালের বিশেষ আদালত নং ৭ এর ও সভাপতিত্ব করেন। [৪] ১ জুলাই ২০১১ তারিখে তিনি বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনী থেকে বিদায় নেন। ১৪ জুলাই ২০১১ তারিখে তিনি অবসর গ্রহণ করেন। [৫]

জাতিসংঘ মিশনসম্পাদনা

১৯৯৩ থেকে ১৯৯৪ পর্যন্ত তিনি মোজাম্বিকের জাতিসংঘের অপারেশন ডেপুটি কমান্ডার হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "BSF says only criminals killed"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৮ 
  2. "Gen Rafiqul takes over as BDR chief"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ১১ মে ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৮ 
  3. "Trial opens in Srimongal today, verdict in Sunamganj case Aug 2"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ৩০ জুন ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৮ 
  4. "Law and Our Rights 109 BGB men jailed"thedailystar.net। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৮ 
  5. "New BGB chief takes charge"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ১ জুলাই ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৮