মুহাম্মদ শাহাবউদ্দিন

বিচারপতি মুহাম্মদ শাহাবউদ্দিন (উর্দু: محمد شہاب الدین) (১৩ মে ১৮৯৫ - ১৩ এপ্রিল ১৯৭১) ছিলেন একজন পাকিস্তানি বিচারক। ১৮৯৫ সালের ১৩ মে তিনি মাদ্রাজের ইলোরে জন্মগ্রহণ করেন। মাদ্রাজ ক্রিশ্চিয়ান কলেজ থেকে তিনি কলা ও মাদ্রাজ ল কলেজ থেকে তিনি আইনে স্নাতক হন।[১]

প্রধান বিচারপতি

মুহাম্মদ শাহাবউদ্দিন
محمد شہاب الدین
পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি
কাজের মেয়াদ
৩ মে ১৯৬০ – ১২ মে ১৯৬০
নিয়োগদাতাআইয়ুব খান
পূর্বসূরীমুহাম্মদ মুনির
উত্তরসূরীআলভিন রবার্ট কর্নেলিয়াস
পূর্ব বাংলার গভর্নর
কাজের মেয়াদ
২২ ডিসেম্বর ১৯৫৪ – ১৪ জুন ১৯৫৫
পূর্বসূরীইস্কান্দার মীর্জা
উত্তরসূরীআমিরউদ্দিন আহমেদ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৩ মে ১৮৯৫
মাদ্রাজ, মাদ্রাজ প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত (বর্তমান চেন্নাই, তামিলনাড়ু, ভারত)
মৃত্যু১৩ এপ্রিল ১৯৭১(1971-04-13) (বয়স ৭৫)
লাহোর, পাকিস্তান
প্রাক্তন শিক্ষার্থীমাদ্রাজ বিশ্ববিদ্যালয়
গভর্নমেন্ট ল কলেজ, চেন্নাই

কর্মজীবনসম্পাদনা

১৯২১ সালে তিনি ভারতীয় সিভিল সার্ভিসে যোগ দেন। তাকে মাদ্রাজের সাব-কালেক্টর হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। পরে তিনি জয়েন্ট ম্যাজিস্ট্রেট এবং জেলা ও সেশন জজ হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন। ১৯৪৩ সালে তিনি মাদ্রাজ উচ্চ আদালতে অতিরিক্ত বিচারক হিসেবে নিয়োগ পান। ১৯৪৫ সালের সেপ্টেম্বরে তিনি মাদ্রাজ উচ্চ আদালতের বিচারক হিসেবে স্থায়ী হন।

পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পর তিনি ঢাকা উচ্চ আদালতের বিচারক নিযুক্ত হন। ১৯৪৯-৫০ সালের ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত বিরোধ ট্রাইবুনালে তিনি কাজ করেছেন। ১৯৫০ সালের ফেব্রুয়ারি তিনি ঢাকা উচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। ১৯৫৩ সালে তিনি ফেডারেল আদালতের বিচারক হন। ১৯৫৪ সালের ২২ ডিসেম্বর থেকে ১৯৫৫ সালের ১৪ জুন তিনি পূর্ব বাংলার গভর্নর হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন। ১৯৫৫ সালে তিনি পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। এছাড়াও তিনি সংবিধান কমিশনেও দায়িত্বপালন করেছেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

সরকারি দফতর
পূর্বসূরী
মুহাম্মদ মুনির
পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতি
১৯৬০
উত্তরসূরী
আলভিন রবার্ট কর্নেলিয়াস
পূর্বসূরী
ইস্কান্দার মীর্জা
পূর্ব বাংলার গভর্নর
১৯৫৪–১৯৫৫
উত্তরসূরী
আমিরউদ্দিন আহমেদ