মিতা হক

বাংলাদেশী গায়িকা

মিতা হক (১৯৬২—১১ এপ্রিল ২০২১) একজন বাংলাদেশী রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী ছিলেন।[১][২] তিনি বাংলাদেশ বেতারের সর্বোচ্চ গ্রেডের তালিকাভুক্ত শিল্পী। তার একক ভাবে মুক্তি পাওয়া মোট ২৪টি অ্যালবাম আছে। এর মধ্যে ১৪টি ভারত থেকে ও ১০টি বাংলাদেশ থেকে। তিনি ২০১৬ সালে শিল্পকলা পদক লাভ করেন।[৩] সঙ্গীতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে ২০২০ সালে একুশে পদক প্রদান করে।[৪]

মিতা হক
জন্ম১৯৬২
ধরনরবীন্দ্র সঙ্গীত

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

মিতা হক ১৯৬২ সালে জন্মগ্রহণ করেন।[৫] তিনি প্রথমে তার চাচা ওয়াহিদুল হক এবং পরে ওস্তাদ মোহাম্মদ হোসেন খান ও সনজীদা খাতুনের কাছে গান শেখেন।[৬] ১৯৭৪ সালে তিনি বার্লিন আন্তর্জাতিক যুব ফেস্টিভালে অংশ নেন। ১৯৭৬ সাল থেকে তিনি তবলা বাদক মোহাম্মদ হোসেন খানের কাছে সঙ্গীত শেখা শুরু করেন। ১৯৭৭ সাল থেকে আমৃত্যু তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারে সঙ্গীত পরিবেশন করেছেন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

তিনি সুরতীর্থ নামে একটি সঙ্গীত প্রশিক্ষণ দল গঠন করেন যেখানে তিনি পরিচালক ও প্রশিক্ষকে হিসেবে কাজ করছেন। এছাড়া তিনি ছায়ানটের রবীন্দ্রসঙ্গীত বিভাগের প্রধান ছিলেন।মিতা হকের জন্ম ১৯৬২ সালের সেপ্টেম্বরে ঢাকায়। তিনি প্রয়াত অভিনেতা খালেদ খানের স্ত্রী। তাঁর চাচা দেশের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অগ্রপথিক ও রবীন্দ্র গবেষক ওয়াহিদুল হক। মেয়ে জয়িতাও রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী।

একমাত্র মেয়ে ফারহিন খান জয়িতাও রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী। মিতা হক প্রথমে তাঁর চাচা ওয়াহিদুল হক এবং পরে ওস্তাদ মোহাম্মদ হোসেন খান ও সন্‌জীদা খাতুনের কাছে গান শেখেন। ১৯৭৬ সাল থেকে তিনি তবলাবাদক মোহাম্মদ হোসেন খানের কাছে গান শেখা শুরু করেন। তিনি বাংলাদেশ বেতারের সর্বোচ্চ গ্রেডের তালিকাভুক্ত শিল্পী। ১৯৯০ সালে বিউটি কর্নার থেকে প্রকাশিত হয় মিতা হকের প্রথম রবীন্দ্রসংগীতের অ্যালবাম ‘আমার মন মানে না’। সংগীতায়োজনে ছিলেন সুজেয় শ্যাম।

এ পর্যন্ত সব মিলিয়ে প্রায় ২০০টি রবীন্দ্রসংগীতে কণ্ঠ দিয়েছেন মিতা হক। তাঁর এককভাবে মুক্তি পাওয়া মোট ২৪টি অ্যালবাম আছে। এর মধ্যে ১৪টি ভারত থেকে ও ১০টি বাংলাদেশ থেকে। তিনি ২০১৬ সালে শিল্পকলা পদক লাভ করেন। সংগীতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাঁকে ২০২০ সালে একুশে পদক প্রদান করে।। ‘সুরতীর্থ’ নামে একটি গানের স্কুলও রয়েছে তাঁর। একসময় ছায়ানটের রবীন্দ্রসংগীত বিভাগের প্রধান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি রবীন্দ্রসংগীত সম্মেলন পরিষদের সহসভাপতিও ছিলেন।[৭] তিনি রবীন্দ্রসংগীত সম্মেলন পরিষদের সহ-সভাপতি ছিলেন।[৮]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

মিতা হক অভিনেতা-পরিচালক খালেদ খানের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।[৯] খালেদ ২০১৩ সালের ২০ ডিসেম্বর মৃত্যুবরণ করেন। এই দম্পতির ফারহিন খান জয়িতা নামে এক কন্যা সন্তান রয়েছে।

পুরস্কারসম্পাদনা

মিতা হক ২০১৬ সালে শিল্পকলা পদক লাভ করেন। এরপর কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৬তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মিতা হককে বাংলা একাডেমির রবীন্দ্র পুরস্কার দেওয়া হয়। একই বছর চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত ‘রবি-চ্যানেল আই রবীন্দ্রমেলা’য় রবীন্দ্র সঙ্গীতে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে মিতা হককে সম্মাননা দেওয়া হয়।[১০] ২০২০ সালে বাংলাদেশ সরকার তাকে একুশে পদকে ভূষিত করে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. প্রতিবেদক, গ্লিটজ; ডটকম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর। "রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী মিতা হকের চিরবিদায়"bangla.bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-১১ 
  2. "Mita Haque: Tagore's tunes always in mind"The Daily Star। জুলাই ১০, ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৭, ২০১৫  একের অধিক |কর্ম= এবং |সংবাদপত্র= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)একের অধিক |work= এবং |newspaper= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)
  3. BanglaNews24.com। "মিতা হক পাচ্ছেন শিল্পকলা পদক"banglanews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-২৬ 
  4. "একুশে পদক পাচ্ছেন কিংবদন্তি চিকিৎসা বিজ্ঞানী ডা. সায়েবা"যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  5. "Mita Haq performs today at IGCC"The Daily Star। সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৭, ২০১৫  একের অধিক |কর্ম= এবং |সংবাদপত্র= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)একের অধিক |work= এবং |newspaper= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)
  6. Novera Deepita (আগস্ট ১৩, ২০০৩)। "Mita and her melodies"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৭, ২০১৫  একের অধিক |কর্ম= এবং |সংবাদপত্র= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)একের অধিক |work= এবং |newspaper= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)
  7. {https://www.prothomalo.com/entertainment/song/%E0%A6%9A%E0%A6%B2%E0%A7%87-%E0%A6%97%E0%A7%87%E0%A6%B2%E0%A7%87%E0%A6%A8-%E0%A6%B8%E0%A6%82%E0%A6%97%E0%A7%80%E0%A6%A4%E0%A6%B6%E0%A6%BF%E0%A6%B2%E0%A7%8D%E0%A6%AA%E0%A7%80-%E0%A6%AE%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A6%BE-%E0%A6%B9%E0%A6%95সংবাদ উদ্ধৃতি|ইউআরএল=http://archive.thedailystar.net/newDesign/news-details.php?nid=184678%7Cশিরোনাম=150th Birth Anniversary of Tagore|শেষাংশ=Takir Hossain|তারিখ=May 8, 2011|কর্ম=The Daily Star|সংবাদপত্র=The Daily Star|সংগ্রহের-তারিখ=December 7, 2015}}একের অধিক |work= এবং |newspaper= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)
  8. "রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী মিতা হক"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-২৬ 
  9. Novera Deepita (মার্চ ১৯, ২০০৪)। "Khaled and Mita: a couple that complement each other"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ডিসেম্বর ৭, ২০১৫  একের অধিক |কর্ম= এবং |সংবাদপত্র= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)একের অধিক |work= এবং |newspaper= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)
  10. BanglaNews24.com। "মিতা হক পেলেন দুই সম্মাননা"banglanews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-২৬ 

বহিঃ সংযোগ সম্পাদনা