মহিম বরা

ভারতীয় লেখক এবং শিক্ষাবিদ

মহিম বরা (ইংরেজি: Mahim Bora; অসমীয়া: মহিম বরা) অসমের একজন গল্পকার, কবি সাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ ছিলেন। কলং নদীর সহিত তার সুগভীর সম্পর্ক থাকার জন্য তাকে কলংপরীয়া কবি আখ্যা দেওয়া হয়েছে। ১৯৮৯ সনে তিনি অসম সাহিত্য সভার সভাপতি পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন।[২]

মহিম বরা
Mahim bora.jpg
জন্মঘোপসাধারু চা-বাগান, দরা জেলা
মৃত্যু৫ অগাষ্ট, ২০১৬
পেশালেখক
ভাষাঅসমীয়া
জাতীয়তাভারতীয়
উল্লেখযোগ্য রচনাবলিকাঠনিবারী ঘাট
এধানি মহীর হাঁহি
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারপদ্মশ্রী (২০১১)
সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার (২০০১)[১]
দাম্পত্যসঙ্গীদীপ্তিরেখা হাজরিকা

জন্ম ও শিক্ষাসম্পাদনা

১৯২৩ সনে দরং জেলার ঘোপসাধারু চা-বাগানে মহিম বরা জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা ছিলেন রামতামুলী বংশের গজেন নাথ ও মাতার নাম চন্দ্রকান্তি বরা।মহিম বরা ১৯৪৪ সনে তিনি কলিয়াবর উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে প্রবেশিকা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন ও নগাঁও মহাবিদ্যালয়ে নামভর্তী করেন। ১৯৪৮ সনে তিনি গুয়াহাটির কটন কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৫২ সনে তিনি গুয়াহাটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন[৩]। ১৯৫৭ সনে মহিম বরা জামুগুরিহাটের দীপ্তিরেখা হাজরিকাকে বিবাহ করেন।

কর্মজীবনসম্পাদনা

মহিম বরা স্নাতক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে শিক্ষকতাকে বৃত্তি হিসেবে গ্রহণ করেন। ১৯৪৯ সনে তিনি নগাঁও জেলার কলিয়াবরে স্থানান্তর হয়ে আসেন ও ১৯৫০ সনে পুনরায় গুয়াহাটিতে ফিরে যান। ১৯৫৩ সনে তিনি যোরহাটের জগন্নাথ বরুয়া মহাবিদ্যালয়ে অধ্যাপক রুপে যোগদান করেন ও ১৯৫৪ সনের অক্টোবর মাসে নগাঁও মহাবিদ্যালয়ে অসমীয়া বিভাগের অধ্যাপক রুপে নিযুক্তি লাভ করেন। পরবর্তী সময়ে তিনি নগাঁওয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস আরম্ভ করেন। ১৯৫৬ সনে নগাঁও থেকে প্রকাশিত সাহিত্য সংকলন অরুণাচলে মূখ্য সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।।[৩]

গ্রন্থ সংকলনসম্পাদনা

  • দেহা গরকা প্রেম (১৯৬৭)
  • কাঠনিবারী ঘাট (১৯৬১)
  • বহুভুজী ত্রিভুজ (১৯৬৭)
  • ম‍ই, পিপলী আরু পূজা (১৯৬৭)
  • এই নদীর সোঁতে (১৯৭৫)
  • রাতি ফুলা ফুল (১৯৭৭)
  • রঙাজীঞা (১৯৭৮)
  • বরযাত্রী (১৯৮০)
  • এধানি মাহীর হাঁহি (১৯৯৭)
  • মোমাইর পদূলিত বান্ধিলো ঘোঁরা (১৯৬৭),

  • এখন নদীর মৃত্যু (১৯৭২),
  • মোর প্রিয় গল্প (১৯৮৭),
  • গল্প সমগ্র মহিম বরা (১৯৯৩),
  • চিন্তা বিচিত্রা (১৯৭৫),
  • সাহিত্য বিচার (১৯৮৯)
  • রাজা রামমোহন রায় (১৯৮৯),
  • পাখিলগা দিন (১৯৮৯),
  • বত্রিশ পুতলার সাধু (১৯৭৬),
  • শ্রীশ্রী শংকর দেবর নাট্যাবলী (১৯৮৯),
  • পুতলাঘর (১৯৭১),
  • হেরোয়া দিগন্তর মায়া (১৯৭৩),

পুরস্কারসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "সাহিত্য অকাডেমি বঁটা বিজয়ী অসমীয়াসকলর তথ্য"। সাহিত্য অকাডেমি। ৭ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ নৱেম্বর ১৬, ২০১২  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)
  2. ১৯১৭ চনর পরা অসম সাহিত্য সভার সভাপতিসকলর তালিকা ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৯ জানুয়ারি ২০১৩ তারিখে অসম সাহিত্য সভার ৱেবছাইট, আহরণ: ১৮ নৱেম্বর, ২০১২।
  3. ত্রিদিপ গোস্বামী। পদ্মনাথ গোহাঞি বরুৱার পরা রংবং তেরাঙলৈ। অনন্ত হাজরিকা, বনলতা প্রকাশন। পৃষ্ঠা ১৬০, ১৬১।