বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল বাংলাদেশের কম্পিউটারতথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এটি বাংলাদেশের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের অধীনস্থ একটি স্বায়ত্বশাসিত সংস্থা। বাংলাদেশের কম্পিউটার ও তথ্য প্রযুক্তি খাতের কার্যকর এবং পদ্ধতিগত বৃদ্ধি নিশ্চিতকরণে নীতি প্রণয়ন বিসিসির প্রধান কাজ।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল
বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের লোগো.jpg
গঠিত১৯৮৩ (জাতীয় কম্পিউটার কমিটি হিসেবে)
১৯৯০ (বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল হিসেবে)
ধরনস্বায়ত্তশাসিত সরকারী সংস্থা
উদ্দেশ্যতথ্য প্রযুক্তি নীতি
সদরদপ্তরঢাকা, বাংলাদেশ
অবস্থান
যে অঞ্চলে কাজ করে
বাংলাদেশ
দাপ্তরিক ভাষা
বাংলা
ওয়েবসাইটwww.bcc.gov.bd

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৮৩ সালে বাংলাদেশ সরকার জাতীয় কম্পিউটার কমিটি প্রতিষ্ঠিত করে। ১৯৮৮ সালে একে জাতীয় কম্পিউটার বোর্ড নামকরণ করা হয়। ১৯৮৯ সালে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল অধ্যাদেশ প্রণয়ন করা হয়। ১৯৯০ সালে জাতীয় সংসদের "১৯৯০ সালের ৯নং আইন" বলে জাতীয় কম্পিউটার বোর্ডকে ‘‘বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল” নামে রূপান্তর করে একটি সংবিধিবদ্ধ সংস্থা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা হয়, যা রাষ্ট্রপতির সচিবালয়ের অধীন পরিচালিত হতে থাকে। ১৯৯১ সালে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলকে তৎকালীন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় (পরবর্তীকালে বিজ্ঞান এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়)-এর অধীনে আনা হয়।[১]

২০১৬ সালে বাংলায় কম্পিউটার প্রোগ্রামিং শেখানোর জন্য বিসিসি eshikkha.net চালু করে।[২] ফাইবার অপটিক তারের মাধ্যমে ২,৬০০ ইউনিয়ন পরিষদকে ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত করতে, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশ সরকার বিসিসিকে ১,২২৭ কোটি টাকার একটি চুক্তি প্রদান করে।[৩]

কার্যক্রমসম্পাদনা

বিসিসি গঠনের প্রধান উদ্দেশ্য হচ্ছে তথ্য প্রযুক্তি খাতের কার্যকরী ব্যবহার ও সম্প্রসারণ নিশ্চিত করার জন্য। সেই লক্ষ্যে বিসিসি শুরু থেকেই বিভিন্ন নীতিমালা তৈরি ও এর প্রয়োগ করে।

১. উপদেষ্টা পরিষেবা বিসিসি সরকারের সংস্থা হিসাবে সরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটারিকরণ সম্পর্কিত বিষয়ে পরামর্শ দেয়। এটি ১৯৯০- ৯১ থেকে ২০০৫-০৬ সাল পর্যন্ত ১৪০ টি সরকারী প্রতিষ্ঠানকে কম্পিউটারিকরণ সম্পর্কিত বিষয়ে অবদান রেখেছে। এর মধ্যে আছে মন্ত্রণালয়, পরিদপ্তর, প্রকল্প, স্বায়িত্বশাসিত সংস্থা, বিদ্যালয়, কলেজ এবং বিভিন্ন সংস্থা।

২. আইটি - বিষয়ক প্রশিক্ষণ কোর্স কম্পিউটার সম্পর্কিত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বিসিসির কাজের মধ্যে প্রশিক্ষণ অন্যতম। বিসিসি প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। এছাড়া, বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে।

৩. উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন

  1. বিসিসির কর্মকাণ্ড সম্প্রসারণ ;
  2. কম্পিউটার ও আইটি-র ব্যবহার বাড়ানো।;
  3. দক্ষ জনশক্তির উন্নয়ন;

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "বিসিসি'তে স্বাগতম"bcc.gov.bd। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  2. "ওয়েবে প্রোগ্রামিং শেখানোর উদ্যোগ"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  3. "ইনফো সরকার-৩ প্রকল্প: চীনের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে"রাইজিংবিডি। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা