বর্বরি রুটি

খামিরযুক্ত ইরানি রুটি

বর্বরি রুটি (ফার্সি: نان بربری‎, প্রতিবর্ণী. নান-এ বার্বারি‎) হল এক ধরনের খামিরযুক্ত ইরানি বড় রুটি। এটি একটি মোটা বড় রুটি ও সাধারণত তিল বা কালো ক্যারাওয়ে বীজ দিয়ে ভাজা হয়। এই রুটির একটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হল এর উপরের ত্বক ম্যাইলিয়ার্ড প্রতিক্রিয়ার কারণে প্রিটজেল বা লাই রোলের ত্বকের মতো যা বেক করার সময় ঘটে। বেক করার আগে এটি বেকিং সোডা, ময়দা এবং জলের মিশ্রণ দিয়ে চকচকে করা হয়। এটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডায় পারসীয় বড়রুটি হিসাবে ব্যাপকভাবে পরিচিত।[১][২]

বর্বরি রুটি
Iranian Bread 1.JPG
অন্যান্য নামইরানি বড়রুটি
উৎপত্তিস্থল ইরান
অঞ্চল বা রাজ্যখোরাসান
প্রধান উপকরণময়দা
প্রস্তুতকারক একটি ঐতিহ্যগত চুলায় বর্বরি রুটি তৈরি করছে

ব্যুৎপত্তিসম্পাদনা

বর্বরি ইরানের খোরাসানে বসবাসকারী হাজারা জনগণের জন্য ব্যবহারকৃত একটি অপ্রচলিত ফার্সি শব্দ। বর্বরি রুটি প্রথম হাজারেরা সেঁকেছিলো ও তেহরানে নিয়ে গিয়েছিলো, এটি কাজার রাজবংশের সময় জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। হাজারদের আর বর্বরি (অর্থাৎ পূর্বাঞ্চলীয়) বলা হয় না। যেহেতু মঙ্গোলরা বর্বর বলে বিবেচিত হত এবং হাজারারা মূলত তাদেরই বংশধর তাই অতীতে এই শব্দটি ব্যবহার করা হতো। কিন্তু রুটিটিকে এখনও ইরানে নান-ই বার্বারি হিসাবে উল্লেখ করা হয় যেখানে হাজাররা এটিকে নান-এ তন্দুরি (তন্দুর [তান্দির] চুলার রুটি) হিসাবে উল্লেখ করে।[৩] এটি ইরানি আজারবাইজানীয়দের মাঝে জনপ্রিয়।

রান্না ও শৈলীসম্পাদনা

এই রুটি সাধারণত ৭০  সেমি থেকে ৮০ সেমি লম্বা, এবং ২৫ সেমি থেকে ৩০ সেমি চওড়া হয়।[৪] এটি ইরানে বেক করা সবচেয়ে সাধারণ শৈলী। এটি অনেক রেস্তোরাঁয় লিঘভান পনিরের সাথে পরিবেশন করা হয় যা ফেটা পনিরের মতো একটি ইওয়ের দুধের পনির।[৫]

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Ram, Sewa (২০০৯)। Cereals: Processing and Nutritional Quality। New India Publishing। পৃষ্ঠা 27। আইএসবিএন 978-9-380-23507-3 
  2. "Nan-e Barbari"। Reform Judaism। ৩১ জানুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ মে ২০১৫ 
  3. "Khomeini's Death Anniversary Sparks Intense Controversy in Kabul"hazara.net। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৮ 
  4. Qarooni, Jalal (২০১২)। Flat Bread Technology। Springer Science & Business Media। পৃষ্ঠা 75আইএসবিএন 978-1-461-31175-1 
  5. "Persian Nan o Paneer (Bread with Cheese)"। Reform Judaism। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ জানুয়ারি ২০১৬