ফজলুর রহমান খান (শিক্ষাবিদ)

ফজলুর রহমান খান একজন বাংলাদেশী শিক্ষাবিদ। তিনি শিক্ষকতা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগে। ১৯৭১ সালের বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ও রাজাকার সংগঠন আল বদরআল শামসের হাতে নিহত বুদ্ধিজীবীদের মধ্যে তিনি একজন।[১]

ফজলুর রহমান খান
জন্ম(১৯৩৯-০৩-০২)২ মার্চ ১৯৩৯
মোহনগঞ্জ, নেত্রকোণা
(বর্তমান বাংলাদেশ)
মৃত্যুমার্চ ২৬, ১৯৭১(1971-03-26) (বয়স ৩২)
ঢাকা, বাংলাদেশ
নাগরিকত্বব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সাল পর্যন্ত)
পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
বাংলাদেশ
দাম্পত্য সঙ্গীফরিদা রউফ খান

ফজলুর রহমান খান জন্মগ্রহণ করেন তৎকালীন ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের (বর্তমান বাংলাদেশের) নেত্রকোণা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার কজিয়াটি গ্রামে। তার পিতার নাম আব্দুল হাকিম খান, এবং মাতার নাম ফিরোজা খাতুন।

শিক্ষাজীবন

সম্পাদনা

তিনি মোহনগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৫৪ সালে ম্যাট্রিকুলেশন (মাধ্যমিক) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এরপর তিনি ভর্তি হন ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজে, এবং সেখান থেকে ১৯৫৮ সালে আই.এসসি. (উচ্চমাধ্যমিক) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। এরপর তিনি ১৯৬০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকাবিজ্ঞান বিভাগ থেকে বি.এসসি. (স্নাতক) ও ১৯৬১ সালে একই বিভাগ থেকে এম.এসসি. (স্নাতকোত্তর) ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৬৮ সালে তিনি লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইম্পেরিয়াল কলেজ থেকে পিএইচ.ডি. ডিগ্রি লাভ করেন।

মৃত্যু

সম্পাদনা

১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ ভোর রাতে পাকিস্তানি সেনারা তাকে তার তৎকালীন ইকবাল হলের (বর্তমান জহুরুল হক হল) আবাসিক শিক্ষকদের বসবাসের ভবনের নিজ শয়ন কক্ষে গুলি করে হত্যা করে। প্রায় দেড় দিন সেখানে পড়ে থাকার পর ২৭ মার্চ কারফিউ শিথিল হলে তার পরিবারের সদস্যগণ তাকে আজিমপুর কবরস্থানে সমাধিস্থ করেন।

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা