প্রথম মাহমুদ, সেলজুক সুলতান

সেলজুক সুলতান (১০৮৮-১০৯৪)

নাসিরুদ্দিন মাহমুদ প্রথম সেলজুক সাম্রাজ্যের ১০৯২ থেকে ১০৯৪ সাল পর্যন্ত সুলতান ছিলেন।[১] তিনি সুলতান হিসেবে প্রথম মালিক শাহের স্থলাভিষিক্ত হন, কিন্তু তিনি মালিক শাহ এবং আল্প আরসালান দ্বারা প্রতিষ্ঠিত সাম্রাজ্যের নিয়ন্ত্রণ লাভ করতে পারেননি।

প্রথম মাহমুদ
মাহমুদ প্রথমের সোনার দিনার, ১০৯৩ বা ১০৯৪ সালে ইসফাহানে মুদ্রিত হয়েছিল
সেলজুক সাম্রাজ্যের সুলতান
রাজত্ব১৯ নভেম্বর ১০৯২ – অক্টোবর ১০৯৪
রাজ্যাভিষেক১৯ নভেম্বর ১০৯২
পূর্বসূরিপ্রথম মালিক শাহ
উত্তরসূরিবারকিয়ারুক
রাজপ্রতিভূতেরকেন খাতুন
জন্ম১০৮৭
মৃত্যুঅক্টোবর ১০৯৪ (বয়স ৭)
পূর্ণ নাম
নাসিরুদ্দিন প্রথম মাহমুদ
পিতাপ্রথম মালিক শাহ
মাতাতেরকেন খাতুন
ধর্মসুন্নি ইসলাম

সিংহাসন ও মৃত্যু

সম্পাদনা

মালিক শাহের স্ত্রী তেরকেন খাতুন তার চার বছরের ছেলে মাহমুদের জন্য সিংহাসন জয়ের চেষ্টা করেছিলেন। তাকে বাগদাদে সুলতান হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল।

মালিক শাহের বড় ছেলে বারকিয়ারুককেও সুলতান ঘোষণা করা হয়েছিল এবং হামাদানের কাছে বোরুজার্ডে দুই দাবিদারের সেনাবাহিনী যুদ্ধ করে। বারকিয়ারুকের বাহিনী জয়লাভ করে এবং রাজধানী ইসফাহান দখল করে। এরপর মাহমুদ ও তার মাকে উজির নিযামুল মুলকের পরিবারের হাতে হত্যা করা হয়।

মালিক শাহ প্রথমের মৃত্যুর পর উত্তরাধিকারী রাজ্যগুলো মহান সেলজুক সাম্রাজ্য থেকে বিভক্ত হয়ে যায়।[২] আনাতোলিয়ায় মালিক শাহ প্রথমের উত্তরাধিকারী হয়েছিলেন কিলিজ আরসালান প্রথম, যিনি ইসফাহান থেকে পালিয়ে এসেছিলেন এবং সিরিয়ায় মাহমুদের চাচা তুতুশ প্রথম। আলেপ্পো এবং আমিদের অন্যান্য গভর্নররাও স্বাধীনতা ঘোষণা করেছিলেন। সেলজুক রাজ্যের এই অনৈক্য প্রথম ক্রুসেডের অপ্রত্যাশিত সাফল্যের জন্য খুব দ্রুতই রাস্তা খুলে দেয়, যেটি ১০৯৬ সালে শুরু হয়েছিল।[৩]

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. International encyclopaedia of Islamic dynasties, Ed. Nagendra Kr Singh, (Anmol Publication PVT Ltd., 2005), 1076.
  2. Asbridge, Thomas S., The Crusades: The Authoritative History of the War for the Holy Land, (Harper Collins, 2010), 22.
  3. Asbridge, Thomas S., The First Crusade: A New History, (Oxford University Press, 2004), 334.
পূর্বসূরী
প্রথম মালিক শাহ
সেলজুক সাম্রাজ্যের সুলতান
১৯ নভেম্বর ১০৯২ – অক্টোবর ১০৯৪
উত্তরসূরী
বারকিয়ারুক