পালবন্তাঙ্গল দক্ষিণ ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের চেন্নাই জেলার একটি অঞ্চল৷ এটি মূলত দক্ষিণ চেন্নাইয়ের একটি লোকালয়৷ এই অঞ্চলটিতে রয়েছে চেন্নাই শহরতলি রেলওয়ের বিচ-তাম্বরম রেলখণ্ডের অন্তর্গত পালবন্তাঙ্গল রেলওয়ে স্টেশন৷ চেন্নাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিকটবর্তী লোকালয়গুলির মধ্যে এটি একটি৷

পালবন্তাঙ্গল
பழவந்தாங்கல்
চেন্নাইয়ের অঞ্চল
ডাকনাম: পল্লবন্তাঙ্গল
পালবন্তাঙ্গল চেন্নাই-এ অবস্থিত
পালবন্তাঙ্গল
পালবন্তাঙ্গল
পালবন্তাঙ্গল তামিলনাড়ু-এ অবস্থিত
পালবন্তাঙ্গল
পালবন্তাঙ্গল
স্থানাঙ্ক: ১২°৫৯′২২″ উত্তর ৮০°১১′১১″ পূর্ব / ১২.৯৮৯৫৩৭° উত্তর ৮০.১৮৬২৯১° পূর্ব / 12.989537; 80.186291
রাষ্ট্র ভারত
রাজ্যতামিলনাড়ু
জেলাচেন্নাই
মহানগরচেন্নাই মহানগর
সরকার
 • শাসকবৃৃৃহচ্চেন্নাই কর্পোরেশন
ভাষা
 • দাপ্তরিকতামিল
সময় অঞ্চলভারতীয় প্রমাণ সময় (ইউটিসি+৫:৩০)
পিন৬০০১১৪
যানবাহন নিবন্ধনTN-22 (টিএন-২২)
নগর পরিকল্পনাসিএমডিএ
সিভিক এজেন্সিবৃহচ্চেন্নাই

এটি বৃৃৃহত্তর নঙ্গানলুরের অন্তর্গত এবং এই লোকালয়ের এবং পার্শ্ববর্তী রেলস্টেশনের নাম একই৷ ১৯৭০ খ্রিস্টাব্দে সেন্ট থমাস মাউন্টমীনমবক্কমের মধ্যবর্তী স্টেশন রূপে এটি নির্মিত হয়৷[১] বেম্বুলি আম্মা মন্দির, রাজরাজেশ্বরী মন্দির ও ৩২ ফুট উঁচু অঞ্জনেয় মন্দিরে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে এই স্টেশনটি দর্শনার্থীদের জন্য সুবিধাজনক৷ পালবন্তাঙ্গল ভূগর্ভ পথ জিএসটি রোড থেকে নঙ্গানলুরের মূল সড়ককে যুক্ত করেছে৷[২]

মূল নাম পল্লবন তাঙ্গল ইংরাজীকৃৃৃত হয়ে পাল(বা পল)বন্তাঙ্গল-এ পরিণত হয়েছে৷ এই অঞ্চল ও পার্শ্ববর্তী এলাকা পল্লব রাজাদের দ্বারা শাসিত হতো; এখানে অবস্থিত একটি বাঁধানো জলাধার পল্লবদের শাসনকালে কোনো এক রাজা নির্মাণ করেছিলেন৷[৩] জলাধারের বাইরের অংশকে তামিল ভাষায় তাঙ্গল বলা হতো৷ পল্লব রাজাদের তৈরি জলাধারের আশেপাশের অঞ্চল তাই পল্লবন্তাঙ্গল নামে পরিচিত হয়৷ রাজা কৃষ্ণদেবরায়ের রাজত্বকালে নির্ধারিত কম্মনাইডুদের স্থানগুলির মধ্যে এটি একটি৷[৪]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা