পার্সি অ্যাডামস

ইংরেজ ক্রিকেটার

পার্সি ওয়েবস্টার অ্যাডামস (ইংরেজি: Percy Adams; জন্ম: ৫ সেপ্টেম্বর, ১৯০০ - মৃত্যু: ২৮ সেপ্টেম্বর, ১৯৬২) লন্ডনের সেন্ট প্যানক্রাস এলাকায় জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ ক্রিকেট তারকা ছিলেন।[১] ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ১৯২২ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে সাসেক্স দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষক হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে ব্যাটিং করতেন পার্সি অ্যাডামস

পার্সি অ্যাডামস
ব্যক্তিগত তথ্য
জন্ম(১৯০০-০৯-০৫)৫ সেপ্টেম্বর ১৯০০
সেন্ট প্যানক্রাস, লন্ডন, ইংল্যান্ড
মৃত্যু২৮ সেপ্টেম্বর ১৯৬২(1962-09-28) (বয়স ৬২)
ওয়েস্টমিনস্টার হাসপাতাল, পিমলিকো, লন্ডন, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা এফসি
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা
ব্যাটিং গড় ২.০০
১০০/৫০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ১*
বল করেছে -
উইকেট -
বোলিং গড় -
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং -/-
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/১
উৎস: ক্রিকইনফো.কম, ২১ জানুয়ারি ২০১৯

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

পূর্ববর্তী বছরে প্রথম-শ্রেণীর খেলা অনুষ্ঠিত না হওয়ায় ১৯১৯ সালে উইজডেন কর্তৃক অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটারের সম্মাননা লাভ করেন। এরফলে তিনি খ্যাতির শিখরে পৌঁছেন।

চেল্টেনহাম কলেজে ব্যাটসম্যান ও উইকেট-রক্ষকের দায়িত্ব পালন করতেন পার্সি অ্যাডামস। ১৯১৮ ও ১৯১৯ সালে উইজডেন কর্তৃক বিদ্যালয়ের ছাত্রদেরকে বর্ষসেরা ক্রিকেটারের সম্মাননায় অভিষিক্ত করে। তবে, প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নিজেকে মেলে ধরতে ব্যর্থ হয়েছিলেন তিনি। সাসেক্সের সদস্যরূপে মাত্র একটি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিতে পেরেছেন। ১৯২২ সালে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপক্ষে খেলায় তিনি মাত্র দুই রান ও একটি স্ট্যাম্পিংয়ে অংশ নিয়েছেন।[২]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

জীবনের শেষদিকে পার্সি’র তুলনায় পিটার নামেই সমধিক পরিচিত ছিলেন। ২৮ সেপ্টেম্বর, ১৯৬২ তারিখে লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার হাসপাতালে ৬২ বছর বয়সে পার্সি অ্যাডামসের দেহাবসান ঘটে। মৃত্যুর পরদিন দ্য টাইমসে তার মৃত্যু সংবাদ প্রকাশ করা হয়।[৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Percy Adams"। www.cricketarchive.com। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০১৩ 
  2. "Scorecard:Cambridge University v Sussex"। www.cricketarchive.com। ৭ জুন ১৯২২। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০১৩ 
  3. "Deaths"। The Times (55509)। London। ২৯ সেপ্টেম্বর ১৯৬২। পৃষ্ঠা 1। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা