পটাসিয়াম সালফেট

রাসায়নিক যৌগ

পটাসিয়াম সালফেট K2SO4 একটি অদাহ্য সাদা স্ফটিকের লবণ, যা জলে দ্রবণীয়। পটাসিয়াম এবং সালফার উভয় প্রদান করায়, ইহা সাধারণত সার হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

পটাসিয়াম সালফেট
Arcanite
Arcanite
Potassium sulfate
নামসমূহ
অন্যান্য নাম
Potassium sulphate
শনাক্তকারী
ত্রিমাত্রিক মডেল (জেমল)
সিএইচইবিআই
সিএইচইএমবিএল
কেমস্পাইডার
ইসিএইচএ ইনফোকার্ড ১০০.০২৯.০১৩
ই নম্বর E৫১৫(i) (অম্লতা নিয়ন্ত্রক, ...)
কেইজিজি
আরটিইসিএস নম্বর TT5900000
ইউএনআইআই
বৈশিষ্ট্য
K2SO4
আণবিক ভর 174.259 g/mol
বর্ণ White solid
গন্ধ odorless
ঘনত্ব 2.66 g/cm3[১]
গলনাঙ্ক ১,০৬৯ °সে (১,৯৫৬ °ফা; ১,৩৪২ K)
স্ফুটনাঙ্ক ১,৬৮৯ °সে (৩,০৭২ °ফা; ১,৯৬২ K)
111 g/L (20 °C)
120 g/L (25 °C)
240 g/L (100 °C)
দ্রাব্যতা slightly soluble in glycerol
insoluble in acetone, alcohol, CS2
অম্লতা (pKa) ~7
প্রতিসরাঙ্ক (nD) 1.495
গঠন
স্ফটিক গঠন orthorhombic
ঝুঁকি প্রবণতা
প্রধান ঝুঁকিসমূহ Irritant
আর-বাক্যাংশ আর২২
এস-বাক্যাংশ এস৩৬
ফ্ল্যাশ পয়েন্ট Non-flammable
প্রাণঘাতী ডোজ বা একাগ্রতা (LD, LC):
6600 mg/kg (oral, rat)[২]
সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করা ছাড়া, পদার্থসমূহের সকল তথ্য-উপাত্তসমূহ তাদের প্রমাণ অবস্থা (২৫ °সে (৭৭ °ফা), ১০০ kPa) অনুসারে দেওয়া হয়েছে।
N যাচাই করুন (এটি কি YesYN ?)
তথ্যছক তথ্যসূত্র

ইতিহাসসম্পাদনা

প্রায় চতুর্দশ শতাব্দীর আগ থেকে পটাসিয়াম সালফেট পরিচিত যৈাগ। এটা Glauber Boyle এবং Tachenius দ্বারা আবিষ্কৃত হয়। সপ্তদশ শতকে এটাকে arcanuni বা sal duplicatum নামে নামকরণ করা হয়। ঔষধ রসায়নবিদ ক্রিস্টোফার গ্ল্যাসার এর নামানুসারে এটা vitriolic tartar এবং Glaser's saltsal অথবা polychrestum Glaseri নামেও পরিচিত ছিল।

প্রাকৃতিক সম্পদসমূহসম্পাদনা

পটাসিয়াম সালফেটের খনিজ ফর্ম আরকেনাইট তুলনামূলকভাবে বিরল। পটাসিয়াম সালফেট প্রাকৃতিকভাবে খনিজ লবণ হিসেবে প্রচুর পাওয়া যায়।

খনিজ পদার্থসমুহ হল:

  • কাইনাইট, MgSO4·KCL·H2O
  • স্কোনইট, K2SO4·MgSO4·6H2O
  • লিওনাইট, K2SO4·MgSO4·4H2O
  • ল্যাঙ্গবেইনাইট, K2Mg2(SO4)3
  • গ্ল্যাসেরাইট, K3Na(SO4)2
  • পলিহ্যানাইট, K2SO4·MgSO4·2CaSO4·2H2O

কিছু খনিজ যেমন কাইনাইট থেকে পটাসিয়াম সালফেট বিভক্ত করা যায় কারণ এর সংশ্লিষ্ট লবণ জলে কম দ্রবণীয়।

Kieserite (MgSO4·H2O) কে পটাসিয়াম ক্লোরাইড এর দ্রবনের সঙ্গে মিলিত করে পটাসিয়াম সালফেট উতৎপাদন করা হয়।

প্রস্তুতিসম্পাদনা

পটাসিয়াম সালফেটের উতৎপাদন প্রক্রিয়া সোডিয়াম সালফেটের উতৎপাদন জন্য প্রক্রিয়ার অনুরূপ।

Leblanc প্রক্রিয়া অনুযায়ী সালফিউরিক অ্যাসিডের সঙ্গে পটাসিয়াম ক্লোরাইডের বিক্রিয়া দ্বারা পটাসিয়াম সালফেট সংশ্লেষিত করা যায়। নিম্নলিখিত বিক্রিয়া অনুযায়ী পটাসিয়াম সালফেট উতৎপাদিত হয়:

2 KCL + H2SO4 → 2HCl + K2SO4

বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

নির্জল স্ফটিক একটি দ্বি ছয় পার্শ্বিক পিরামিড গঠন করে, কিন্তু রম্বস আকারেও শ্রেণীবদ্ধ হয়। তারা খুব কঠিন, স্বচ্ছ এবং একটি তিক্ত, নোনতা স্বাদ আছে। এই লবণ জলে দ্রবণীয়, কিন্তু পটাসিয়াম হাইড্রক্সাইড দ্রবণ অথবা পরম ইথানলের মধ্যে অদ্রবণীয়।

ব্যবহারসমূহসম্পাদনা

পটাসিয়াম সালফেট প্রধানত একটি সার হিসাবে ব্যবহৃত হয়। K2SO4 এর মধ্যে ক্লোরাইড থাকে না যা ফসলের ক্ষেত্রে ক্ষতিকারক হতে পারে। তামাক, কিছু ফল এবং সবজির ক্ষেত্রে পটাসিয়াম সালফেট খুবই উপকারি। যেসব ফসল কম সংবেদনশীল তাদের অনুকূল বৃদ্ধির জন্য পটাসিয়াম সালফেটের প্রয়োজন হতে পারে।

এছাড়াও অশোধিত লবণ গ্লাস উৎপাদনে মাঝে মাঝে ব্যবহার করা হয়। পটাসিয়াম সালফেটের এছাড়া একটি ফ্ল্যাশ রিডিউসার হিসাবে ব্যবহৃত হয়।

পটাসিয়াম হাইড্রোজেন সালফেটসম্পাদনা

সাধারনত পটাসিয়াম সালফেটের (KHSO4) সাথে সমপরিমান সালফিউরিক অ্যাসিড মিশ্রিত করে পটাসিয়াম হাইড্রোজেন সালফেট বা বাইসালফেট তৈরী করা হয়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Patnaik, Pradyot (২০০২)। Handbook of Inorganic Chemicals। McGraw-Hill। আইএসবিএন 0-07-049439-8 
  2. http://chem.sis.nlm.nih.gov/chemidplus/rn/7778-80-5

বহিঃসংযোগসম্পাদনা