প্রধান মেনু খুলুন

দ্বিতীয় বায়েজীদ

দ্বিতীয় বায়েজীদ (৩ ডিসেম্বর ১৪৪৭ – ২৬ মে ১৫১২) (উসমানীয় তুর্কি: بايزيد ثانى Bāyezīd-i sānī, তুর্কি:II. Bayezid বা II. Beyazıt) ছিলেন উসমানীয় সুলতান। ১৪৮১ থেকে ১৫১২ সাল পর্যন্ত তিনি রাজত্ব করেছেন। বায়েজীদ সুলতান দ্বিতীয় মুহাম্মদের জ্যেষ্ঠ পুত্র। বায়েজীদ তার শাসনামলে উসমানীয় সাম্রাজ্যের শক্তি বৃদ্ধি করেন।মুসলিমদের তৎকালীন (আল আন্দালুস) স্পেন এর শেষ রাজ্য গ্রানাডা পতনের পর মুসলিমদের নির্বাসন, হত্যাযজ্ঞ আলহাম্বরা ডিক্রি ঘোষণার পর উসমানীয় সাম্রাজ্যে স্পেনের মুসলিম ও ইহুদিদের আশ্রয় ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার জন্য তিনি খ্যাত।

দ্বিতীয় বায়েজীদ
بايزيد ثانى
উসমানীয় সুলতান
Sultan II. Bayezit.JPG
৮ম উসমানীয় সুলতান
রাজত্বকাল৩ মে ১৪৮১ – ২৬ মে ১৫১২
পূর্বসূরিদ্বিতীয় মুহাম্মদ
উত্তরসূরিপ্রথম সেলিম
জন্ম৩ ডিসেম্বর ১৪৪৭
মৃত্যু২৬ মে ১৫১২
সমাধিবায়েজীদ মসজিদ, ইস্তানবুল
স্ত্রীনিগার খাতুন
শিরিন খাতুন
গুলরুহ খাতুন
বুলবুল খাতুন
হুসনুশাহ খাতুন
গুলবাহার খাতুন
ফেরাহশাদ খাতুন
রাজবংশউসমানীয় রাজবংশ
পিতাদ্বিতীয় মুহাম্মদ
মাতাএমিনে গুলবাহার খাতুন বা
সিত্তিশাহ খাতুন
ধর্মইসলাম
তুগরাদ্বিতীয় বায়েজীদ স্বাক্ষর
সুলতান দ্বিতীয় বায়েজীদের দরবারে ক্রিমিয়ান তাতার খান মেংলি গিরাই।
দ্বিতীয় বায়েজীদ ও তার পুত্র সেলিমের লড়াই।
ইস্তানবুলে বায়েজীদের মাজার।

ক্ষমতার লড়াইসম্পাদনা

সিংহাসন নিয়ে বায়েজীদের সাথে তার ভাই জেমের প্রতিদ্বন্দ্বীতা তৈরী হয়। জেম সিংহাসন দাবি করে মিশরের মামলুকদের কাছ থেকে সহায়তা চান। জেম বায়েজীদের কাছে পরাজিত হন এবং এরপর রোডসের নাইটদের কাছে আশ্রয় নেন। নাইটরা তাকে পোপ অষ্টম ইনোসেন্টের কাছে সোপর্দ করে। পোপ ইউরোপ থেকে তুর্কিদের তাড়ানোর জন্য জেমকে ব্যবহারের পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু পোপের পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়।

শাসনকালসম্পাদনা

বায়েজীদ ১৪৮১ সালে উসমানীয় সিংহাসনে বসেন।[১] বায়েজীদ তার পিতার মত প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের সংস্কৃতির পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। সাম্রাজ্যের অভ্যন্তরীণ রাজনীতির স্বাভাবিক গতি নিশ্চিত করেছিলেন বলে তিনি "ন্যায়পরায়ণ" নামে পরিচিত হয়েছিলেন। তিনি মোরিয়ার ভেনিসিয়ানদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করেছেন। ১৫০১ সালে ভেনিসিয়ানদের সাথে যুদ্ধ সমাপ্ত হয় এবং বায়েজীদ সমগ্র পেলোপোনিসের নিয়ন্ত্রণ লাভ করেন। পূর্বাঞ্চলের বিদ্রোহ বায়েজীদের শাসনামলে অস্থিরতা তৈরী করেছিল। এতে অনেক সময় ইরানের শাহ প্রথম ইসমাইল মদদ দিয়েছেন।

মুসলিম ও ইহুদি অভিবাসনসম্পাদনা

১৪৯২ সালের জুলাই স্প্যানিশ ইনকুইজিশনের সময় স্পেনের মুসলিম ও ইহুদিদের বহিষ্কার করা হয়। সেই বছর বহিষ্কৃতদের নিরাপদে উসমানীয় সাম্রাজ্যে আনার জন্য এডমিরাল কামাল রেইসের নেতৃত্বে বায়েজীদ উসমানীয় জাহাজ পাঠান। তিনি উদ্বাস্তুদের স্বাগত জানানোর জন্য সাম্রাজ্য জুড়ে ঘোষণা দেন।[২] উদ্বাস্তুরা উসমানীয় সাম্রাজ্যে বসবাসের অনুমতি পায়। দক্ষ প্রজাদের বহিষ্কার করাকে কেন্দ্র করে তিনি রাজা ফার্ডিনেন্ড ও রাণী ইসাবেলাকে নিয়ে উপহাস করে বলেছিলেন "তোমরা ফার্ডিনেন্ডকে জ্ঞানী শাসক বল, যে নিজের দেশকে দরিদ্র করে আমার দেশকে ধনী করেছে!"[৩] সাম্রাজ্যের ইউরোপীয় প্রদেশের গভর্নরদের প্রতি তিনি ফরমান জারি করে ঘোষণা দেন যে স্প্যানিশ উদ্বাস্তুদেরকে শুধু আশ্রয় দিলেই হবে না বরণ তাদের বন্ধুত্বপূর্ণ ও উষ্ণ অভ্যর্থনা জানাতে হবে।[৩] আন্দালুসের মুসলিম ও ইহুদিরা উসমানীয় সাম্রাজ্যে নতুন ধ্যানধারণা, প্রক্রিয়া ও হস্তশিল্পের প্রচলন করে সাম্রাজ্যকে সমৃদ্ধ করে। ১৪৯৩ সালে সেফারডিক ইহুদিরা কনস্টান্টিনোপলে প্রথম ছাপাখানা চালু করে।

উত্তরাধিকারসম্পাদনা

বায়েজীদের শেষজীবনে তার পুত্র শাহজাদা আহমেদ ও শাহজাদা সেলিমের মধ্যে উত্তরাধিকারের লড়াই শুরু হয়। আহমেদ কারামান শহর অধিকার করে কনস্টান্টিনোপলের দিকে অগ্রসর হন। সেলিম থ্রেসে একটি বিদ্রোহ সংঘটিত করেন কিন্তু বায়েজীদ তাকে পরাজিত করতে সক্ষম হন। ফলে সেলিম ক্রিমিয়া উপদ্বীপে পালিয়ে যান।

সেলিম ক্রিমিয়া থেকে ইয়ানিসারিদের সমর্থনে বায়েজীদকে সিংহাসন ত্যাগে বাধ্য করেন। বায়েজীদ দেমোতিকায় অবসর জীবন যাপনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। কিন্তু গন্তব্যে পৌছানোর পূর্বে ১৫১২ সালের ২৬ ইন্তেকাল করেন। তাকে ইস্তানবুলের বায়েজীদ মসজিদের পাশে দাফন করা হয়।

বিভিন্ন মাধ্যমে প্রদর্শনসম্পাদনা

  • ২০১২ সালে নির্মিত ফেতিহ ১৪৫৩ চলচ্চিত্রে ইলগিতজান এলমালি দ্বিতীয় বায়েজিদের শৈশবকালের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।
  • ঐতিহাসিক উপন্যাস দ্য সুলতান'স হেমলসমেন-এ সুলতান দ্বিতীয় বায়েজীদের রাষ্ট্রপরিচালনা, সহিষ্ণুতা ও বুদ্ধিবৃত্তিক সক্ষমতা দেখানো হয়েছে।

স্ত্রী ও সন্তানসম্পাদনা

স্ত্রীসম্পাদনা

  • নিগার খাতুন
  • শিরিন খাতুন
  • বুলবুল খাতুন
  • গুলবাহার খাতুন
  • গুলরুহ খাতুন
  • হুসনুশাহ খাতুন
  • ফেরাহশাদ খাতুন

সন্তানসম্পাদনা

  • শাহজাদা আবদুল্লাহ
  • শাহজাদা আহমেদ
  • শাহজাদা কুরকাত
  • শাহজাদা সেলিম - বায়েজীদের উত্তরসূরি
  • শাহজাদা শেহিনশাহ
  • শাহজাদা আলেমশাহ
  • শাহজাদা মাহমুদ
  • শাহজাদা মুহাম্মদ
  • আয়েশা সুলতান
  • খাদিজা সুলতান
  • গেভহেরমুলুক সুলতান
  • সেলচুক সুলতান
  • ইলালদি সুলতান
  • হুনদি সুলতান
  • আয়নিশাহ সুলতান
  • শাহজাদা সুলতান
  • শাহ সুলতান
  • কামেরশাহ সুলতান
  • হুমাশাহ সুলতান
  • সোফিয়া ফাতেমা সুলতান

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Sultan Bajazid's (i.e., Beyazit's) Mosque, Constantinople, Turkey"World Digital Library। ১৮৯০–১৯০০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-১০-১৮ 
  2. Egger, Vernon O. (২০০৮)। A History of the Muslim World Since 1260: The Making of a Global CommunityPrentice Hall। পৃষ্ঠা 82। আইএসবিএন 0-13-226969-4 
  3. The Jewish Encyclopedia: a descriptive record of the history, religion, literature, and customs of the Jewish people from the earliest times to the present day, Vol.2 Isidore Singer, Cyrus Adler, Funk and Wagnalls, 1912 p.460

গ্রন্থপঞ্জিসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

  উইকিমিডিয়া কমন্সে দ্বিতীয় বায়েজীদ সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন


দ্বিতীয় বায়েজীদ
জন্ম: ৩ ডিসেম্বর ১৪৪৭ মৃত্যু: ২৬ মে ১৫১২
শাসনতান্ত্রিক খেতাব
পূর্বসূরী
দ্বিতীয় মুহাম্মদ
উসমানীয় সুলতান
৩ মে ১৪৮১ – ২৫ এপ্রিল ১৫১২
উত্তরসূরী
প্রথম সেলিম
Titles in pretence
পূর্বসূরী
দ্বিতীয় মুহাম্মদ
বাইজেন্টাইন সম্রাট সালতানাতের সাথে একীভূত
ইসলামের খলিফা উত্তরসূরী
প্রথম সেলিম