জঁ বাতিস্ত জোসেফ ফুরিয়ে[১] (ফরাসি: Jean Baptiste Joseph Fourier) (২১শে মার্চ, ১৭৬৮ - ১৬ই মে, ১৮৩০) একজন প্রখ্যাত ফরাসি গণিতবিদ। তিনি তাপীয় পরিবহনের গাণিতিক তত্ত্ব প্রদানের জন্য বিখ্যাত হয়ে আছেন। তাকে সাধারণত গ্রিনহাউস প্রভাব আবিষ্কারের কৃতিত্ব দেওয়া হয়। [২] যেকোন গাণিতিক অপেক্ষককে বিশেষ কিছু ত্রিকোণমিতিক ধারার সাহায্যে প্রসারণের কৌশল এই তত্ত্বের অন্তর্গত। যদিও এইধরনের প্রসারণ-কৌশল তার আগেই অনুসন্ধান করা হয়েছিল, তবু বিশেষ অবদানের জন্য তার নামেই এদের নামকরণ করা হয়। ফুরিয়ে ধারাগুলোকে আজ বিজ্ঞানের নানা শাখায় এক অপরিহার্য সরঞ্জাম হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

জোসেফ ফুরিয়ে
Fourier2.jpg
জঁ বাতিস্ত জোসেফ ফুরিয়ে
জন্ম(১৭৬৮-০৩-২১)২১ মার্চ ১৭৬৮
মৃত্যু১৬ মে ১৮৩০(1830-05-16) (বয়স ৬২)
জাতীয়তাফেঞ্চ
মাতৃশিক্ষায়তনইকোল নরমাল
পরিচিতির কারণফুরিয়ে সিরিজ
ফুরিয়ে ট্রান্সফর্ম
ফুরিয়েস ল অফ কনডাকশন
বৈজ্ঞানিক কর্মজীবন
কর্মক্ষেত্রগণিতবিদ, পদার্থবিদ, এবং ইতিহাসবিদ
প্রতিষ্ঠানসমূহইকোল নরমাল
ইকোল পলিটেকনিক
ডক্টরাল উপদেষ্টাজোসেফ লুইস লাগরেঞ্জ
জোসেফ ফুরিয়ে

জন্ম ও কর্মজীবনসম্পাদনা

ফুরিয়ে প্যারিসের প্রায় ১০০ মাইল দক্ষিণে অবস্থিত ওসের (Auxerre) শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার জীবন ছিল বৈচিত্র্যপূর্ণ এবং কখনো প্রতিকূলও। মাত্র ৯ বছর বয়সে তিনি অনাথ হয়ে পড়েন। ওসের-এ অবস্থিত সাঁ-ব্যনোয়া-স্যুর-লোয়ার (Saint-Benoît-sur-Loire) নামের বেনেডিক্টদের দ্বারা পরিচালিত মঠে শিক্ষারত অবস্থায় তিনি গণিতের প্রেমে পড়েন।

১৭৯৫ সালে তিনি একোল নরমাল (École Normale)-এ (তিনি বিদ্যালয়টির প্রাক্তন ছাত্র ছিলেন) এবং ১৭৯৫ থেকে ১৭৯৮ সাল পর্যন্ত একোল পোলিতেকনিক (École Polytechnique)-এ শিক্ষকতার দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি ফরাসি বিপ্লবের একজন সক্রিয় সমর্থক ছিলেন। একাধিকবার তিনি অল্পের জন্য কারাবন্দিত্ব এবং মৃত্যুদন্ডের হাত থেকে বেঁচে যান। বিপ্লব পরবর্তী সময়ে তিনি প্রথম নেপোলিয়ানের সাথে ফরাসিদের নব-অধিকৃত অঞ্চল মিশরে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণের উদ্দেশ্যে যান। ১৮০১ সালে ফরাসিরা মিশর ছেড়ে দেয়ার অব্যবহিত পরেই নেপোলিয়ান ফুরিয়ারকে দক্ষিণ ফ্রান্সের একটি বিভাগের প্রধান হিসাবে নিয়োগ দেন, যার কেন্দ্রীয় কার্যালয় গ্রেনোব্‌ল শহরে অবস্থিত ছিল।

গ্রেনোব্‌লে অবস্থানের সময়েই ফুরিয়ে তার বেশীরভাগ গুরুত্বপূর্ণ বৈজ্ঞানিক কাজ সম্পাদন করেন। বিজ্ঞান ও রাজনীতি দুই ক্ষেত্রেই ছিল ফুরিয়ের স্বছন্দ বিচরণ। বিপ্লব এবং নেপোলিয়ানের দ্বারা উদ্দীপ্ত ফুরিয়ে গণিত ও বিজ্ঞানে অসামান্য অবদান রেখেছিলেন।

ফুরিয়ের জীবনের শেষ বছরগুলি কেটেছিল প্যারিসে। সেখানে তিনি আকাদেমি দে সিয়ঁস (Académie des Sciences)-এর সেক্রেটারী পদলাভ করেন। পরবর্তীতে লাপ্লাসের উত্তরসূরি হিসাবে একোল পোলিতেকনিক পরিষদের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

গ্রন্থাবলীসম্পাদনা

তার লেখা গবেষণামূলক গ্রন্থ তাপের বিশ্লেষণী তত্ত্ব-তে (১৮২২; প্রথম ইংরেজি অনুবাদ Analytical Theory of Heat, ১৮৭৮) তিনি ফুরিয়ে ধারার সাহায্য পর্যায়ক্রমিক অপেক্ষকগুলোকে কী ভাবে সাইন এবং কোসাইনের অসীম ধারা হিসাবে প্রকাশ করা যায় তার বর্ণনা দেন।

মৃত্যুসম্পাদনা

তিনি ১৮৩০ সালের ১৬ই মে ৬২ বছর বয়সে পরলোকগমন করেন। [৩]

পাদটীকাসম্পাদনা

  1. এই ফরাসি ব্যক্তিনামটির বাংলা প্রতিবর্ণীকরণে উইকিপিডিয়া:বাংলা ভাষায় ফরাসি শব্দের প্রতিবর্ণীকরণ-এ ব্যাখ্যাকৃত নীতিমালা অনুসরণ করা হয়েছে।
  2. Cowie, J. (২০০৭)। Climate Change: Biological and Human Aspects । Cambridge University Press। পৃষ্ঠা 3আইএসবিএন 978-0-521-69619-7 
  3. "Joseph Fourier | Biography & Facts | Britannica"www.britannica.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০১-১১