গোপাল বসু

ভারতীয় ক্রিকেটার

গোপাল কৃষ্ণ বসু (এই শব্দ সম্পর্কেহিন্দি উচ্চারণ ; জন্ম: ২০ মে, ১৯৪৭ - মৃত্যু: ২৬ আগস্ট, ২০১৮) তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় জন্মগ্রহণকারী ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন। ১৯৭৪ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য ভারত দলের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন তিনি।

গোপাল বসু
গোপাল বসু.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামগোপাল কৃষ্ণ বসু
জন্ম(১৯৪৭-০৫-২০)২০ মে ১৯৪৭
কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু২৬ আগস্ট ২০১৮(2018-08-26) (বয়স ৭১)
বার্মিংহাম, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র ওডিআই
(ক্যাপ ১২)
১৫ জুলাই ১৯৭৪ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা
রানের সংখ্যা ১৩
ব্যাটিং গড় ১৩.০০
১০০/৫০ -/-
সর্বোচ্চ রান ১৩
বল করেছে ১১
উইকেট
বোলিং গড় ৩৯.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ১/৩৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৬ নভেম্বর ২০১৮

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ভারতীয় বাংলা প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও ডানহাতে অফ ব্রেক বোলিংয়ে পারদর্শিতা দেখিয়েছেন গোপাল বসু

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ি জীবনে বাংলা দলের পক্ষেই কাটিয়ে দেন ও প্রভূত সফলতা পান। একপর্যায়ে দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ৭৮টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়ে আটটি শতক ও ১৭টি অর্ধ-শতক সহযোগে ৩৭৫৭ রান তুলেছেন। এছাড়াও বল হাতে নিয়ে ৭২ উইকেট দখল করেছিলেন গোপাল বসু।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের তুলনায় ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে বেশ সফলতার স্বাক্ষর রেখেছেন তিনি। প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে দীর্ঘ ইনিংস খেলার সক্ষমতা দেখিয়েছেন। ফলশ্রুতিতে, জাতীয় দলে অন্তর্ভূক্ত হন ও সিলন গমন করেন। সেখানে ক্রিকেট কিংবদন্তী সুনীল গাভাস্কারের সাথে ১৯৪ রানের জুটি গড়েন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ি জীবনে একটিমাত্র একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করার সুযোগ পেয়েছেন গোপাল বসু। ভারত দলের পক্ষে কোন টেস্ট খেলার জন্য অন্তর্ভূক্ত হননি তিনি। ১৯৭৪ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওডিআইয়ে অংশ নেন। ১৫ জুলাই, ১৯৭৪ তারিখে বার্মিংহামে অনুষ্ঠিত খেলায় তিনি ১৩ রান ও একটিমাত্র উইকেটের সন্ধান পেয়েছিলেন।[১] এরপর ১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গমনের উদ্দেশ্যে ১৪ সদস্যের তালিকায় তাকে রাখা হয়। কিন্তু মূল একাদশে খেলার সুযোগ পাননি ও এরপর আর তাকে দলে রাখা হয়নি।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসরগ্রহণের পর কলকাতাভিত্তিক ঢাকুরিয়া ক্রিকেট ক্লাবের প্রধান কোচের দায়িত্বে ছিলেন। ২৬ আগস্ট, ২০১৮ তারিখে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৭১ বছর বয়সে ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে দেহাবসান ঘটে গোপাল বসু’র।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা