গুড়ই মসজিদ

মসজিদ

গুড়ই মসজিদ কিশোরগঞ্জ জেলার নিকলী উপজেলায় অবস্থিত একটি প্রাচীন মসজিদ ও বাংলাদেশের অন্যতম একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা।[১] এটি নিকলী উপজেলার গুড়ই গ্রামে অবস্থিত।[২]

গুড়ই মসজিদ
বিকল্প নামগুড়ই শাহী মসজিদ
সাধারণ তথ্য
অবস্থাননিকলী উপজেলা
ঠিকানাগুড়ই, নিকলী উপজেলা
শহরকিশোরগঞ্জ
দেশবাংলাদেশ
স্বত্বাধিকারীবাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর
জমির মালিকসুলতান বারবাক শাহ
উচ্চতা৩৫ ফুট

ইতিহাসসম্পাদনা

গুড়ই মসজিদটিতে মুঘল আমলের স্থাপত্যশিল্প ফুটে উঠেছে। মসজিদের গম্বুজের গোড়ায় একটি সরু ও লম্বা শিলালিপি রয়েছে। শিলালিপি থেকে জানা যায় মসজিদতি ১৬৮০ সালের দিকে নির্মাণ করা হয়েছিল। শিলালিপিতে সুলতান বারবাক শাহের নাম খোদাই করা আছে।[৩]

বিবরণসম্পাদনা

গুড়ই মসজিদটি বর্গাকৃতির। ভিতর দিক থেকে দেয়ালের উচ্চতা ২২ ফুট ও বাইরের দিক থেকে ৩৫ ফুট। ৪ কোণে ৪টি অষ্টকোণাকৃতির মিনার আছে, যা উপরে উঠে রৌপ্য নির্মিত ছোট গম্বুজে শেষ হয়েছে। মসজিদটিতে একটি বাল্ব আকৃতির বড় গম্বুজও আছে। উত্তর, দক্ষিণ ও পূর্ব দেয়ালে একটি করে তিনটি প্রবেশ পথ আছে, যার মধ্যে পূর্বের বা কেন্দ্রীয় প্রবেশ পথটি বড়। কেন্দ্রীয় প্রবেশ পথের উচ্চতা ৭ ফুট ৩ ইঞ্চি এবং প্রস্ত ৪ ফুট ৬ ইঞ্চি। পশ্চিম দেয়ালে তিনটি মেহরাব রয়েছে। মাঝের মেহরাবটি বাকিগুলোর চেয়ে বড়। মেহরাবগুলোতে সুন্দর টেরাকাটার কাজ আছে। এই মসজিদে সুলতানী আমলের স্থাপত্যশিল্পের প্রভাব লক্ষ্য করা যায়।[৩]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "কিশোরগঞ্জের পর্যটন স্থান"কিশোরগঞ্জ ডট কম। ২৪ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. "নিকলী উপজেলা"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ২৪ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ অক্টোবর ২০১৬ 
  3. শামসুজ্জামান খান। বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালা: কিশোরগঞ্জ। ঢাকা, বাংলাদেশ: বাংলা একাডেমিআইএসবিএন 984-07-5295-2