গুজরাত ক্রিকেট দল

গুজরাত ক্রিকেট দল ভারতের পশ্চিমাংশে গুজরাত রাজ্যের একটি ক্রিকেট দল। এটি রঞ্জি ট্রফির একটি অন্যতম সেরা দল। এই দলটি ছাড়াও রাজ্যের অপর দুটি দল হলো সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট দলবরোদা ক্রিকেট দল

গুজরাত ক্রিকেট দল
কর্মীবৃন্দ
অধিনায়কপ্রিয়াঙ্ক পাঞ্চাল
কোচসাইরাজ বাহুতুলে
মালিকগুজরাত ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন
দলের তথ্য
প্রতিষ্ঠা১৯৫০
স্বাগতিক মাঠনরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা১,১৮,০০০
ইতিহাস
রনজি ট্রফি জয়
ইরানি কাপ জয়
বিজয় হাজারে ট্রফি জয়
সৈয়দ মুশতাক আলী ট্রফি জয়

ইতিহাসসম্পাদনা

রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে গুজরাতের প্রথম উপস্থিতি ১৯৫০-৫১ এর মরসুমে এসেছিল, যেখানে রঞ্জি ট্রফি ফাইনালে হোলকারের মুখোমুখি হয়েছিল। বোলার বিনু মানকড় ও ব্যাটসম্যান গোগুমল কিষেনচন্দ এর দুরন্ত প্রদর্শন সত্ত্বেও সৈয়দ মুশতাক আলীচান্দু সরবটের হোলকার দলের কাছে পরাজিত হয়। [১] [২]

গুজরাত ২০১২-১৩ সালে সৈয়দ মুশতাক আলি ট্রফি জিতেছিল ফাইনালে পাঞ্জাবকে চার উইকেটে পরাজিত করে।

রঞ্জি ট্রফি জয়সম্পাদনা

২০১৬-১৭ মৌসুমে রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে গুজরাতের সেরা উপস্থিতি হয়েছিল, যেখানে ইন্দোরে রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে মুম্বইয়ের মুখোমুখি হয়েছিল। পার্থিব প্যাটেল একটি মূল্যবান সেঞ্চুরি করেন (১৪৩, ১৯৬ বলে, ২৪টি চার) এবং হোলকার স্টেডিয়ামে সবচেয়ে স্মরণীয় প্রথম রঞ্জি ট্রফি জয় করেন। রঞ্জি ট্রফিতে গুজরাত যখন পঞ্চম ও শেষ দিন শুরু করেছিল তখন কোনো দলই ৩১০ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে পারেনি। গুজরাতের প্রিয়ঙ্ক পাঞ্চাল ২০১৬-১৭ রঞ্জি ট্রফি মরসুমে ১৭ ইনিংসে ৮৭.৩৩ গড়ে ১৩১০ রান করেছিলেন, যা এই মরসুমে যে কোনও ব্যাটসম্যানের সবচেয়ে বেশি এবং একক রঞ্জি ট্রফি মৌসুমে কোনও ব্যাটসম্যানের তৃতীয় সর্বোচ্চ। গুজরাতের সামিত গোহেল এই রঞ্জি ট্রফি মরসুমে জয়পুরে ওড়িশার বিরুদ্ধে ৩৫৯* রান করেছিলেন, যা রঞ্জি ট্রফি ম্যাচে একজন খেলোয়াড়ের দ্বারা যৌথ চতুর্থ সর্বোচ্চ রান। সেই ম্যাচে তার ৩৫৯* রান এখন প্রথম শ্রেণীর ম্যাচে ব্যাট হাতে ওপেনারের সর্বোচ্চ। তিনি সেই ইনিংসে ৭২৩ বল মোকাবেলা করেছিলেন এবং এটি এখন একটি প্রথম শ্রেণির ম্যাচে মুখোমুখি হওয়া বলের ক্ষেত্রে ষষ্ঠ-দীর্ঘতম ইনিংস।

সম্মানসম্পাদনা

রঞ্জি পরিসংখ্যান
মরসুম সেরা তিন ব্যাটসম্যান সেরা তিন বোলার
২০১৬-১৭ প্রিয়ঙ্ক পাঞ্চাল (১৩১০)

সমিত গোয়েল (৯১৪)

পার্থিব প্যাটেল (৭৬৩)

রুশ কালারিয়া (২৮)

জসপ্রীত বুমরাহ (২৪)

হার্দিক প্যাটেল (২২)

২০১৭-১৮ প্রিয়ঙ্ক পাঞ্চাল (১৩১০)

রুজুল ভাট (৪৫৮)

মনপ্রিত জুনেজা (৩৭৪)

পিযুষ চাওলা (৩২)

সিদ্ধার্থ দেসাই (২৯)

চিন্তন গাজা (২৬)

২০১৮-১৯ প্রিয়াঙ্ক পাঞ্চাল (৮৯৮)

মনপ্রিত জুনেজা (৫৮১)

ধ্রুব রাভাল (৫২৯)

রুশ কালারিয়া (২৭)

সিদ্ধার্থ দেসাই (২৩)

চিন্তন গাজা (২১)

আরজান নাগওয়াসওয়ালা (২১)

২০১৯-২০ ভার্গব মেরাই (৬৪৮)

সামিত গোহেল (৫০২)

পার্থিব প্যাটেল (৪৬৮)

আরজান নাগওয়াসওয়ালা (৪১)

চিন্তন গজা (৩৬)

রুশ কালারিয়া (৩৫)

স্বনামধন্য খেলোয়াড়গণসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা