খুলনা সিটি কর্পোরেশন

খুলনা শহরের স্থানীয় সরকার সংস্থা

খুলনা সিটি কর্পোরেশন (সংক্ষেপে খুসিক) ১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান বিভাগীয় সিটি কর্পোরেশন। ১৯৮৪ সালে এটি মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের আয়তন ৪৫ বর্গ কিলোমিটার[১] এবং ২০১৭ সালে জনসংখ্যা ছিল পনেরো লক্ষ[২] খুলনা সিটি কর্পোরেশনের বর্তমান মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর নেতা।[৩] খুলনা সিটি কর্পোরেশন স্থানীয় সরকার আইন দ্বারা পরিচালিত হয় এবং এটি এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের অধীন প্রতিষ্ঠান। বর্তমান স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন মন্ত্রী তাজুল ইসলাম[৪] প্রতি পাঁচবছর অন্তর খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

খুলনা সিটি কর্পোরেশন
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সিলমোহর
সংস্থার রূপরেখা
গঠিত৬ আগস্ট ১৯৯০; ৩৩ বছর আগে (1990-08-06)
অধিক্ষেত্রবাংলাদেশ সরকার
সদর দপ্তরনগর ভবন, খুলনা
বার্ষিক বাজেটবাজেট সংশোধিত ২০২১-২০২২
সংস্থা নির্বাহীগণ
মূল সংস্থাস্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়
ওয়েবসাইটhttp://www.khulnacity.org

ইতিহাস সম্পাদনা

সর্বপ্রথম ১৮৮৪ সালে খুলনা নগরের মর্যাদা পায়। কলকাতা গেজেট অনুযায়ী ১৮৮৪ সালের ৮ সেপ্টেম্বর খুলনাকে মিউনিসিপাল বোর্ড ঘোষণা করা হয়। এরপর ১৩ ডিসেম্বর রেভারেন্ড গগন চন্দ্র দত্ত প্রথম চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করে। সেসময়ে টুটপাড়া, শেখপাড়া, চারাবাটি, হেলাতলা এবং কয়লাঘাট এলাকায় সমন্বয়ে খুলনা পৌর সরকার যাত্রা শুরু করে। মিউনিসিপ্যালিটি অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অর্ডিন্যান্স (পৌরসভা প্রশাসন অধ্যাদেশ)-এর দ্বারা খুলনা মিউনিসিপাল বোর্ডের নাম পালটে খুলনা মিউনিসিপাল কমিটি করা হয়, পাশাপাশি পৌর এলাকাকে ৪.৬৪ বর্গমাইল থেকে উন্নীত করে ১৪.৩০ বর্গমাইল করা হয়। তখন মিউনিসিপাল কমিটির সদস্য ছিলেন ২৮ জন এবং শহর ১৪ টি ওয়ার্ডে বিভক্ত ছিলো।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর বাংলাদেশ লোকাল কাউন্সিল অ্যান্ড মিউনিসিপ্যাল কমিটি (ডেসোলেশন অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অ্যারেঞ্জমেন্ট) অর্ডার - ১৯৭২ এর ক্ষমতা বলে খুলনা মিউনিসিপালিটির নাম বদলে খুলনা পৌরসভা করা হয়। ১৯৮৪ সালের ১২ ডিসেম্বর খুলনা শহরের শতবর্ষপূর্তিতে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ খুলনাকে মিউনিসিপাল কর্পোরেশন হিসেবে উন্নীত করেন। ১৯৯০ সালের ৬ আগস্ট খুলনাকে সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত করা হয়।

ওয়ার্ডসমূহ সম্পাদনা

খুলনা সিটি কর্পোরেশনে এখন ৩১ টি ওয়ার্ড রয়েছে। তবে সিটি করপোরেশন এর আয়তন বৃদ্ধির পদক্ষেপ নেওয়ার কারণে এটির ওয়ার্ড সংখ্যা বাড়বে।

বিভাগসমূহ সম্পাদনা

  • পৌরকার্য বিভাগ
  • স্বাস্থ্য বিভাগ
  • পার্ক ও বিনোদন
  • রেভিনিউ বিভাগ
  • সড়ক বাতি বিভাগ
  • বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ
  • সংরক্ষণ বিভাগ[৫]

মেয়র সম্পাদনা

আরও দেখুন সম্পাদনা

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা