ক্যাথি বেট্‌স

আমেরিকান অভিনেত্রী এবং পরিচালক

ক্যাথি বেট্‌স নামে সুপরিচিত ক্যাথলিন ডয়েল বেট্‌স (ইংরেজি: Kathleen Doyle Bates; জন্ম: ২৮ জুন ১৯৪৮)[১] হলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী ও পরিচালক। তিনি মঞ্চে অভিনয়ের মাধ্যমে তার কর্মজীবন শুরু করেন এবং ১৯৮৩ সালের নাইট, মাদার মঞ্চনাটকে অভিনয় করে মঞ্চনাটকে শ্রেষ্ঠ কেন্দ্রীয় অভিনেত্রী বিভাগে টনি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

ক্যাথি বেট্‌স
Kathy Bates
Kathy Bates by Gage Skidmore.jpg
২০১৫ সালে সান দিয়েগো কমিক-কন ইন্টারন্যাশনালে বেট্‌স
জন্ম
ক্যাথলিন ডয়েল বেট্‌স

(1948-06-28) ২৮ জুন ১৯৪৮ (বয়স ৭৩)
জাতীয়তামার্কিন
পেশাঅভিনেত্রী, পরিচালক
কর্মজীবন১৯৬৩-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীটনি কাম্পিসি (বি. ১৯৯১; বিচ্ছেদ. ১৯৯৭)
আত্মীয়ফিনিস এল. বেট্‌স (পিতামহ)

বেট্‌স লোমহর্ষক মিজারি (১৯৯০) চলচ্চিত্রে অ্যানি উইলকেস চরিত্রে তার অভিনয়ের জন্য প্রশংসিত হন এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারগোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেন। এরপর তিনি ডলোরেস ক্লেইবর্ন (১৯৯৫) ও দ্য ওয়াটারবয় (১৯৯৮) চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে এবং ফ্রাইড গ্রিন টম্যাটোস (১৯৯১) ও টাইটানিক (১৯৯৭) পার্শ্ব চরিত্রে চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সমাদৃত হন। পরবর্তীকালে তিনি প্রাইমারি কালার্স (১৯৯৮), অ্যাবাউট স্মিট (২০০২) ও রিচার্ড জুয়েল (২০১৯) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনবার শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

টেলিভিশনে কাজের জন্য তিনি ১৪টি এমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন এবং তন্মধ্যে দুটি হ্যারিস ল টেলিভিশন ধারাবাহিকের জন্য।[২] তিনি এফএক্স টেলিভিশনের ভীতিপ্রদ-থ্রিলার ধারাবাহিক আমেরিকান হরর স্টোরির তৃতীয় মৌসুমে মাদাম মারি দেলফিন লালোরি চরিত্রে অভিনয় করে একটি এমি পুরস্কার লাভ করেন। ২০১২ সালে তিনি সিবিএস চ্যানেলের হাস্যরসাত্মক ধারাবাহিক টু অ্যান্ড আহাফ মেন-এ চার্লি হারপার চরিত্রের ভূত ভূমিকায় অভিনয় করে অপর একটি এমি পুরস্কার লাভ করেন।[৩]

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

বেট্‌স ১৯৪৮ সালের ২৮শে জুন টেনেসির মেম্ফিসে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি তার পিতামাতার তিন কন্যার মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ। তার পিতা ল্যাংডন ডয়েল বেট্‌স ছিলেন একজন প্রকৌশলী এবং মাতা বার্টি ক্যাথলিন (জন্মনাম: টলবার্ট, ১৯০৭-১৯৯৭) ছিলেন একজন গৃহিণী।[১] তার পিতামহ ফিনিস এল বেট্‌স ছিলেন একজন আইনজীবী ও লেখক। তার একজন আইরিশ প্র-প্র-পিতামহ আয়ারল্যান্ড থেকে লুইসিয়ানার নিউ অরলিন্সে আসেন এবং তৎকালীন রাষ্ট্রপতি অ্যান্ড্রু জ্যাকসনের চিকিৎসকের দায়িত্ব পালন করেন।[৪]

বেট্‌স ১৯৬৫ সালে হোয়াইট স্টেশন হাই স্কুল থেকে পাস করেন এবং সাউদার্ন মেথডিস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে নাট্যকলা বিষয়ে পড়াশুনা করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন তিনি আলফা ডেল্টা পি সরোরিটির সদস্য ছিলেন।[৫] ১৯৭০ সালে তিনি অভিনয়ে কর্মজীবন গড়ার লক্ষ্যে নিউ ইয়র্ক সিটিতে চলে যান।[৬]

কর্মজীবনসম্পাদনা

বেট্‌স ১৯৯০ সালে স্টিফেন কিং রচিত মিজারি উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত একই নামের লোমহর্ষক চলচ্চিত্রে দিয়ে হলিউডে প্রথম সাফল্য অর্জন করেন।[৭] চলচ্চিত্রটি ব্যবসায়িক ও সমালোচনামূলক দৃষ্টিকোণ থেকে সফল হয় এবং অ্যানি উইলকেস চরিত্রে তার অভিনয় বিপুল প্রশংসিত হয়। এই কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারগোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেন। আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউট বেট্‌স অভিনীত অ্যানি উইলকেস চরিত্রটিকে তাদের "১০০ নায়কোচিত ও খলচরিত্র" তালিকায় ১৭তম আইকনিক খলচরিত্র (৬ষ্ঠ খল অভিনেত্রী) হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে।[৮]

 
১৯৯৯-এর এমি পুরস্কারে বেট্‌স

তিনি রাজনৈতিক সাংবাদিক জো ক্লেইনের বই অবলম্বনে নির্মিত প্রাইমারি কালার্স (১৯৯৮) চলচ্চিত্রে রাজনৈতিক পরামর্শদাতা লিবি হোল্ডেন চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। পরের বছর তিনি সিটকম থার্ড রক ফ্রম দ্য সান-এ তার অভিনয়ের জন্য হাস্যরসাত্মক ধারাবাহিকে সেরা অতিথি অভিনেত্রী বিভাগে এবং ড্যাশিয়েল হ্যামেট-লিলিয়ান হেলম্যানের জীবনীনির্ভর ড্যাশ অ্যান্ড লিলি নির্মাণের জন্য সেরা মিনি ধারাবাহিক বা টিভি চলচ্চিত্র পরিচালনা বিভাগে দুটি প্রাইমটাইম এমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

২০০২ সালে তিনি জ্যাক নিকোলসনের বিপরীতে অ্যাবাউট স্মিট (২০০২) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তার তৃতীয় একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। এই চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্যে দেখা যায় তিনি সম্পূর্ণ নগ্ন হয়ে উষ্ণ টাবে প্রবেশ করছেন, যা সমালোচক ও দর্শকদের আলোচনার বিষয়বস্তুতে পরিণত হয়।[৯][১০][১১][১২]

২০১০ থেকে ২০১১ সালে তিনি এনবিসির সিটকম দ্য অফিস-এ জো বেনেট চরিত্রে একাধিক পর্বে অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেন।[১৩] টেলিভিশনে তার প্রথম প্রধান চরিত্রে কাজ ছিল ডেভিড ই. কেলির আইনী নাট্যধর্মী হ্যারিস ল টেলিভিশন ধারাবাহিক।[১৪] এটি ২০১১ সালের ১৭ই জানুয়ারি থেকে এনবিসিতে প্রচারিত হয় এবং ২০১২ সালের ১৪ই মে এর প্রচার বাতিল হয়।[১৫] এই ধারাবাহিকে অভিনয়ের জন্য তিনি নাট্যধর্মী ধারাবাহিকে সেরা প্রধান অভিনেত্রী বিভাগে দুটি প্রাইমটাইম এমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। ২০১২ সালে বেটস সিবিএসের টু অ্যান্ড আ হাফ মেন ধারাবাহিকের "হোয়াই উই গেভ আপ উইমেন" পর্বে চার্লি হার্পারের ভূত হিসেবে অতিথি ভূমিকায় আবির্ভূত হন। পর্বটি ২০১২ সালের ৩০শে এপ্রিল প্রচারিত হয়। এই ধারাবাহিকে অতিথি চরিত্রে অভিনয় করে তিনি হাস্যরসাত্মক ধারাবাহিকে সেরা অতিথি অভিনেত্রী বিভাগে তার প্রথম প্রাইমটাইম এমি পুরস্কার অর্জন করেন।[১৬]

২০১৩ সালে তিনি এফএক্স টেলিভিশনের ভীতিপ্রদ-থ্রিলার ধারাবাহিক আমেরিকান হরর স্টোরির তৃতীয় মৌসুমে মাদাম মারি দেলফিন লালোরি চরিত্রে অভিনয় করেন।[১৭] এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি তার দ্বিতীয় এমি পুরস্কার লাভ করেন। বেট্‌স দাবী করেন এই ধারাবাহিকের নির্দেশক রায়ান মার্ফি "তার কর্মজীবন পুনরুজ্জীবিত করেছেন"।[১৮]

তিনি ক্লিন্ট ইস্টউডের রিচার্ড জুয়েল (২০১৯) চলচ্চিত্রে নাম ভূমিকার মায়ের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য চতুর্থবারের মত শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

বেট্‌স ১৯৯১ সালে টনি কাম্পিসির সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। ছয় বছর পর ১৯৯৭ সালে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে।[১৯]

২০১৬ সালের জুনে হিউম্যান রাইটস ক্যাম্পেইন অরল্যান্ডো নাইটক্লাব গুলিবর্ষণে শিকার ব্যক্তিদের সম্মানার্থে একটি ভিডিও প্রকাশ করে। ভিডিওটিতে বেট্‌স ও অন্যান্যরা মৃত ব্যক্তিদের গল্প বিবৃত করেন।[২০][২১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Kathy Bates Biography (1948-)"ফিল্ম রেফারেন্স। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৮ 
  2. "Kathy Bates"এমি পুরস্কার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৮ 
  3. প্রুডম, লরা (১৬ মার্চ ২০১৩)। "'American Horror Story: Coven': Kathy Bates To Star In Season 3, Featuring Witches And Filming In New Orleans"হাফিংটন পোস্ট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জুন ২০১৮ 
  4. "Public Interview with Kathy Bates"স্কটস মুভিজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৮ 
  5. "University of Washington Panhellenic Association"University of Washington Panhellenic Association (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৮ 
  6. "Kathy Bates"বায়োগ্রাফি.কম (ইংরেজি ভাষায়)। ৫ আগস্ট ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১৮ 
  7. পিয়ুস, রবার্ট; বিচাম, ক্রিস (২০১৮-০৯-১২)। "Kathy Bates movies: 15 greatest films, ranked worst to best, include 'Misery,' 'Dolores Claiborne,' 'Primary Colors'"গোল্ড ডার্বি (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  8. "AFI's 100 Years...100 Heroes & Villains"আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  9. "HIGHLIGHT: ABOUT SCHMIDT"দ্য গ্লোব অ্যান্ড মেইল (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  10. "Kathy Bates and 'About Schmidt'"এনপিআর (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  11. "Kathy Bates"Hollywood.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১২-১২-১৩। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  12. স্টেইন, রুথ (২০০২-১১-২৯)। "Nudity's a big deal for Kathy Bates / But actress strips for appealing role in 'About Schmidt'"এসএফ গেট (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  13. "Kathy Bates to return to "The Office""রয়টার্স (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১১-০১-১৪। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  14. "Kathy Bates: Storefront Lawyer On 'Harry's Law'"এনপিআর (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  15. "'Harry's Law' canceled by NBC"Entertainment Weekly। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৭ 
  16. বার্কশায়ার, জিওফ (২০১৫-০৮-২০)। "Kathy Bates Remembers Winning Her First Emmy"ভ্যারাইটি (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  17. র‍্যাডিশ, ক্রিস্টিনা (২০১৪-০১-০৪)। "Kathy Bates Talks AMERICAN HORROR STORY: COVEN, Working with other Talented Women, Her Cruel Character, and More"কলিডার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  18. শি, পল। "How American Horror Story Got Kathy Bates Her Groove Back"ভ্যানিটি ফেয়ার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  19. "Married Oscar Winners Who Didn't Give Thanks and Later Split"দ্য হলিউড রিপোর্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৯ 
  20. "49 Celebrities Honor 49 Victims of Orlando Tragedy" (ইংরেজি ভাষায়)। এইচআরসি। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 
  21. রথাউস, স্টিভ (জুন ১২, ২০১৬)। "Pulse Orlando shooting scene a popular LGBT club where employees, patrons 'like family'"দ্য মায়ামি হেরাল্ড (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩ নভেম্বর ২০২০ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা