কারাকুম মরুভূমি

কারাকুম মরুভূমি, অথবা কারা-কুম এবং গারা-গাম (তুর্কমেনীয়: Garagum, উচ্চারিত [ɡaɾaˈɡum]; রুশ: Караку́мы, উচ্চারণ: Karakumy, আ-ধ্ব-ব[kərɐˈkumɨ];) হল মধ্য এশিয়ার একটি মরুভূমি।তুর্কি অভিধান অনুযায়ী, নামটির আক্ষরিক অর্থ কালো বালি , মরুভূমির বালুকাময় উপরিভাগের তলদেশে ছড়িয়ে থাকা কালো মৃত্তিকার কারণে এই নামকরণ[১]। এটি তুর্কমেনিস্তান-এর প্রায় ৭০ শতাংশ বা প্রায় .৩৫০, ০০০ বর্গ কিলোমিটার অঞ্চল জুড়ে রয়েছে। 

Karakum
Desert
Sand dunes in the Karakum Desert of Turkmenistan
Sand dunes in the Karakum Desert of Turkmenistan
ক্ষেত্র ৩৫০ বর্গকিলোমিটার ( বর্গমাইল)
The Karakum Desert by NASA World Wind
The Karakum Desert by NASA World Wind

এই অঞ্চলে, জনসংখ্যার ঘনত্ব অত্যন্ত বিক্ষিপ্ত; গড়ে প্রতি ৬.৫ বর্গকিলোমিটার (প্রতি ২.৫ বর্গ মাইল)-এ ১ জন ব্যক্তির বাস। বৃষ্টিপাত হয় বিক্ষিপ্ত, গড়ে ৭০ থেকে ১৫০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয় প্রতি বছর.[২]

অবস্থানসম্পাদনা

বর্তমান দিনের তুর্কমেনিস্তান ের অধিকাংশ অঞ্চল জুড়ে, কারাকুম মরুভূমি, কাস্পিয়ান সাগরের পূর্বদিকে অবস্থিত। উত্তরদিকে রয়েছে আরল সাগর এবং উত্তর-পূর্বে রয়েছে আমু দরিয়া নদী এবং কাইজেল কুম মরুভূমি । আরল সাগরের জলস্তর নেমে যাওয়ায়, কারাকুম মরুভূমি ধীরে ধীরে 'আরাল-কারাকুম' হিসেবে সম্প্রসারিত হয়ে চলেছে। সবচেয়ে সাম্প্রতিকতম জলস্তর ড্রপ হয়েছে, প্রাক্তন সোভিয়েত ইউনিয়ন-এর, সেচ প্রকল্প রূপায়নের সময়।  যদিও উত্তর Aral সাগর বর্তমানে ক্রমবর্ধমান, দক্ষিণ Aral সাগর এখনও জলশূন্য হয়ে চলেছে,এবং এইভাবে মরুভূমি বিস্তৃত হয়ে চলেছে।[৩][তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

 
মধ্য এশিয়ার একটি মানচিত্র। কারাকুম মরুভূমিকে হাইলাইট করা রয়েছে।

ভূতত্ত্বসম্পাদনা

কারাকুম মরুভূমিতে দারভাজা গ্যাস ক্রেটার অবস্থিত।এছাড়া, এই এলাকায় উল্লেখযোগ্য পরিমাণ তেল এবং প্রাকৃতিক গ্যাস আমানত আছে।

জলবিজ্ঞানসম্পাদনা

হিন্দু কুশ পর্বত থেকে নির্গত মুরঘাব এবং তেজেন নদী প্রবাহ পশ্চিম প্রবাহী হয়ে মরুভূমির মধ্যে জলপ্রদান করে যা সেচের জন্য কাজে লাগে। 

কারাকুম মরুভূমি পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম সেচ খাল,কারাকুম খাল, দ্বারা অতিক্রম করা হয় যা আমু দারিয়া থেকে দক্ষিণ অঞ্চলে জল নিয়ে আসে। খালটির নির্মাণকাজ শুরু হয়েছিল ১৯৫৪ সালে এবং সম্পন্ন হয় ১৯৫৮ সালে. এটি ১,৩৭৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এবং বার্ষিক ১৩-২০ ঘন মিটার জল পরিবহন করে। এই খালটির লিকেজ থেকে বিভিন্ন ছোট হ্রদ এবং পুকুর সৃষ্টি হয়েছে আশেপাশে। [তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

প্রত্নতত্ত্বসম্পাদনা

কারাকুমের মধ্যে রয়েছে, উলি (বড়) বলকান পর্বতশ্রেণী যেখানে প্রত্নতত্ত্ববিদরা প্রস্তরযুগের মানুষের দেহাবশেষ খুঁজে পেয়েছেন। 

অর্থনীতি ও সম্পদসম্পাদনা

মেরি এবং তেজেন -এর মরূদ্যান অঞ্চল তুলা উৎপাদনের জন্যে বিখ্যাত। 

বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

 
কারাকুম মরুভূমি অঞ্চলে, দারভাজা গ্যাস ক্রেটার, যাকে স্থানীয় ভাষায় "নরকের দ্বার" বলা হয়- রাত্রিকালীন ছবি।

কারাকাম মরুভূমিতে অবস্থিত দারভাজা গ্যাস ক্রেটার, যেটি "নরকের দরজা" বা "ডোর টু হেল" নামে পরিচিত, ১৯৭১ সালের পর থেকে ক্রমাগত জ্বলছে প্রাকৃতিক গ্যাসের কারণে। এটি এই অঞ্চলের একটি প্রধান পর্যটন আকর্ষণ, প্রতি বছর শত শত দর্শক ভ্রমণ করেন।[৪]

পরিবহনসম্পাদনা

ট্রান্স-কাস্পিয়ান রেলওয়ে  দ্বারা মরুভূমি অতিক্রম করা যায়।

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Natural Wonders of the World। Reader's Digest Association, Inc। ১৯৮০। পৃষ্ঠা 199। আইএসবিএন 0-89577-087-3 
  2. "Karakum Desert -- Britannica Online Encyclopedia"। www.britannica.com। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০২-২২ 
  3. Aral Sea ওয়েব আর্কাইভ টেমপ্লেটে ত্রুটি: চেক করুন |ইউআরএল= value. খালি।
  4. Geiling, Natasha। "This Hellish Desert Pit Has Been On Fire for More Than 40 Years"Smithsonian (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৬-১৯