এ.টি.এম. জাফর আলম

শহীদ এ.টি.এম. জাফর আলম (অন্যনামঃ এটিএম জাফর আলম; ৫ মে ১৯৪৭ - ২৫ মার্চ ১৯৭১) হলেন বাংলাদেশের একজন প্রখ্যাত ছাত্র নেতা। মুক্তিযুদ্ধে অনন্য সাধারণ অবদানের জন্য ২০১৯ সালে তাকে “স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতা পুরস্কার” প্রদান করা হয়।[১]

শহীদ

এ.টি.এম. জাফর আলম
জন্ম৫ মে ১৯৪৭
মৃত্যু২৫ মার্চ ১৯৭১
পেশাছাত্র-রাজনীতি
সরকারি চাকুুরি (উত্তীর্ণ)
পুরস্কারস্বাধীনতা পুরস্কার (২০১৯)

জন্ম ও পারিবারিক পরিচিতিসম্পাদনা

জাফর আলম ১৯৪৭ সালের ৫ মে তত্কালীন ব্রিটিশ ভারতের বেঙ্গল প্রেসিডেন্সীর (বর্তমানঃ বাংলাদেশ) কক্সবাজার জেলাধীন উখিয়া উপজেলার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের রুমখাঁ পালং গ্রামের মাতব্বর পাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন।[২]

শিক্ষাজীবনসম্পাদনা

কর্মজীবনসম্পাদনা

শিক্ষাজীবন সমাপান্তে তিনি তত্কালীন পাকিস্তান সিভিল সার্ভিস (সিএসপি) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন ও নোয়াখালীর এসডিও হিসাবে নিয়োগ লাভ করেন।[২] স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু হওয়ার অল্প কিছুকাল পরই সিএসপি কর্মকর্তা হিসাবে সরকারি চাকুরিতে তার যোগদানের কথা ছিলো। [৩]

পুরস্কার ও সম্মাননাসম্পাদনা

বাংলাদেশের স্বাধীকার আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধে অসাধারণ অবদানের জন্য ২০১৯ সালে দেশের “সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার”[৪][৫][৬] হিসাবে পরিচিত “স্বাধীনতা পুরস্কার” প্রদান করা হয় তাকে।[১]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানের তালিকা"মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৯ 
  2. "কক্সবাজারের কৃতি সন্তান শহীদ এ টি এম জাফর আলম "স্বাধীনতা পদক ২০১৯" এর জন্য মনোনীত"সন্দেশ২৪ ডটকম অনলাইন। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৯ 
  3. "শহীদ এ টি এম জাফরের নামে কক্সবাজারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান"কালেরকন্ঠ অনলাইন। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৯ 
  4. সানজিদা খান (জানুয়ারি ২০০৩)। "জাতীয় পুরস্কার: স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার"। সিরাজুল ইসলাম[[বাংলাপিডিয়া]]ঢাকা: এশিয়াটিক সোসাইটি বাংলাদেশআইএসবিএন 984-32-0576-6। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৯স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার।  ইউআরএল–উইকিসংযোগ দ্বন্দ্ব (সাহায্য)
  5. "স্বাধীনতা পদকের অর্থমূল্য বাড়ছে"কালেরকন্ঠ অনলাইন। ২ মার্চ ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৯ 
  6. "প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাধীনতা পদক-২০১৯ হস্তান্তর করেন..."মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। ২৫ মার্চ ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুন ২০১৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা