এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন (অ্যাইউডব্লিউ) বাংলাদেশের চট্টগ্রামে অবস্থিত একটি স্বাধীন আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয় যা এশিয়ার নতুন প্রজন্মের নেতৃবৃন্দকে শিক্ষিত করার চেষ্টা করে। বিশ্ববিদ্যালয়টি তাদের পরিবারের আয়ের স্তর অনুযায়ী শুধুমাত্র মেধার ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের ভর্তি করে। প্রায় সব শিক্ষার্থীই পূর্ণ বৃত্তিতে রয়েছে এবং অনেকেই তাদের পরিবারের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম। বিশ্ববিদ্যালয়টি অ্যাইউডব্লিউ অ্যাক্সেস একাডেমি এবং পাথওয়েস ফর প্রমিস নামে দুটি প্রাক-কলেজিয়েট ব্রিজ প্রোগ্রাম সরবরাহ করে,[২][৩] পাশাপাশি লিবারেল আর্টস এবং বিজ্ঞানের উপর ভিত্তি করে তিন বছরের স্নাতক প্রোগ্রামেও ভর্তির সুযোগ প্রদান করে থাকে। অ্যাইউডব্লিউতে এশিয়া এবং মধ্যপ্রাচ্যসহ ১৯টি দেশ থেকে ৮৫০জনেরও বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি রয়েছে।[৪]

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন
Asian University for Women
এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন লোগো.svg
ধরনস্বাধীন, আন্তর্জাতিক, লিবারেল আর্টস ও বিজ্ঞানভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত২০০৮; ১৫ বছর আগে (2008)
আচার্যচেরি ব্লেয়ার
উপাচার্যরুবানা হক
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
৪০
প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গ
১০০
শিক্ষার্থী৮৯০(২০২০)[১]
অবস্থান
২০/এ এম.এম. আলী রোড, চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ

২২°২১′২৯″ উত্তর ৯১°৪৯′২৬″ পূর্ব / ২২.৩৫৮১৩১° উত্তর ৯১.৮২৩৮৪৩° পূর্ব / 22.358131; 91.823843
সংক্ষিপ্ত নামAUW
অধিভুক্তিবিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বাংলাদেশ
ওয়েবসাইটasian-university.org

ইতিহাসসম্পাদনা

 
২০১২

বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রথম একাডেমিক প্রোগ্রাম প্রি-কলেজিয়েট এক্সেস একাডেমি ২০০৮ সালের মার্চ মাসে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, কম্বোডিয়ার ১৩০ জন ছাত্রী নিয়ে যাত্রা শুরু করে। প্রথম এক্সেস একাডেমি ক্লাস ২০০৯ সালে উত্তীর্ণ হয় এবং আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামে পড়াশুনা শুরু করে। বিশ্ববিদ্যালয়টির বর্তমান শিক্ষার্থীবর্গ বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, ভুটান, কম্বোডিয়া, কানাডা, চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, মায়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান, ফিলিস্তিন, শ্রীলঙ্কা, সিরিয়া, ভিয়েতনাম প্রভৃতি ১৬ টি দেশ থেকে এসেছে। বিশ্ববিদ্যালয়টির পরিকল্পিত ক্যাম্পাসের ডিজাইনার স্থপতি মশি সাফদি।

বৃত্তিসম্পাদনা

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন একটি অনুপম ফান্ডিং মডেল দ্বারা পরিচালিত। এর প্রায় পুরোটাই দানের উপর নির্ভরশীল। এটি ৯৯% শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Asian University for Women"। AUW। সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০২০ 
  2. "Dresses to degrees: university opens its doors to Bangladesh garment workers"The Guardian। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৬ 
  3. "Fashion's deadliest disaster prompts Bangladeshi workers to opt for university"Reuters। সংগ্রহের তারিখ ২৫ এপ্রিল ২০১৬ 
  4. "Asian University For Women – Who We Are"asian-university.org। ৫ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১২ এপ্রিল ২০১৬