এনটিভি

বাংলাদেশের টেলিভিশন চ্যানেল

এনটিভি ইন্টারন্যাশনাল টেলিভিশন চ্যানেল লি. কোম্পানির মালিকানাধীন বাংলাদেশি ও বাংলা ভাষার বেসরকারি একটি স্যাটেলাইটভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল। ‘সময়ের সাথে আগামীর পথে’ এই স্লোগানে ২০০৩ সালের ৩ জুলাই এনটিভির সম্প্রচার শুরু হয়। চ্যানেলটির বর্তমান চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোসাদ্দেক আলী ফালু[১][২] খবর ও বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, লাইফস্টাইল, ফ্যাশন,  ধর্মীয় অনুষ্ঠান এনটিভি সম্প্রচার করে থাকে। বাংলাদেশের প্রথম টিভি চ্যানেল হিসেবে ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে আইএসও সনদ লাভ করে এনটিভি।[৩] ২০১৫ সালের ১ ফেব্রুয়ারি এনটিভি অনলাইনের যাত্রা শুরু হয়।[৪] ২০১৭ সালে এনটিভি অনলাইনকে দেশের সেরা অনলাইন পোর্টাল হিসেবে সম্মাননা দিয়েছে বাংলাদেশ অনলাইন মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশন।[৫] বাংলাদেশ ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্যসহ একাধিক দেশে এনটিভি সম্প্রচারিত হয়।

এনটিভি
এনটিভির লোগো
এনটিভি লোগো
মালিকানামোসাদ্দেক আলী ফালু
চিত্রের বিন্যাস৪:৩ (576i, SDTV)
স্লোগানসময়ের সাথে আগামীর পথে
দেশ বাংলাদেশ
ভাষাবাংলা
প্রধান কার্যালয়ঢাকা, বাংলাদেশ
ভ্রাতৃপ্রতিম
চ্যানেল(সমূহ)
আরটিভি
ওয়েবসাইটঅফিসিয়াল ওয়েবসাইট
প্রাপ্তিস্থান
কৃত্রিম উপগ্রহ
আকাশ ডিটিএইচচ্যানেল ১১৯
টেলিস্টার ১০
(প্যান এশিয়া)
৪১৭৫H MHz
ডিশ নেটওয়ার্ক (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র)চ্যানেল ৮০৪
স্কাই যুক্তরাজ্যআয়ারল্যান্ডচ্যানেল ৮৫২
ক্যাবল
ইউসিএস (বাংলাদেশ)চ্যানেল ২
প্রিসমা ডিজিটাল (বাংলাদেশ)চ্যানেল ৫
রজার্স ক্যাবল (কানাডা)চ্যানেল ৮৬৩
আইপিটিভি
আইপিটিভি চ্যানেল

চ্যানেলটি মূলত সংবাদ, শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান, নাটক, রাজনৈতিক অনুষ্ঠান প্রদর্শন করে থাকে। ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে এনটিভি বাংলাদেশের প্রথম টেলিভিশন চ্যানেল হিসেবে আইএসও সনদ লাভ করেছে।

ইতিহাসসম্পাদনা

 
২০১৫ সালে এনটিভির একযুগ পূর্তী উৎসব পালিত হয়।

২০০৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে এনটিভি চালুর ঘোষণা আসে, প্রাথমিকভাবে একই বছরের এপ্রিলে কার্যক্রম শুরু হয়। আগস্ট ২০০৬ সালে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক একটি বাংলাদেশী টিভি চ্যানেল স্কাই চ্যানেল ৮২৬-এর মাধ্যমে ইউকে এবং ইউরোপ জুড়ে এনটিভির অনুষ্ঠানগুলি দেখানোর অধিকার অর্জন করে, তবে এক বছর পর সম্প্রচার বন্ধ হয়ে যায়।

২০০৪ সালে পরীক্ষা ছাড়াই সম্প্রচারের লাইসেন্স পাওয়ার অভিযোগ উঠে।[৬] সাধারণত বাণিজ্যিক টিভি চ্যানেল পেতে আন্তঃমন্ত্রনালয়ে যে মিটিং হওয়ার কথা যা হয়নি। ১৯৯৯ সাল থেকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতিপত্র না পেলেও, ২০০৪ সালে মোসাদ্দেক আলী ফালু এনটিভির শেয়ার কিনার পরে ১৮ দিনে অনুমতিপত্র পেয়ে যান।

২০০৭ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে ১০ টায় এনটিভি ভবনে আগুন লেগে দুইজন মারা যান, বাঁচার জন্য ১১ তলা থেকে লাফ দিয়ে আরো ২ জন মারা যায়[৭] এবং শতাধিক আহত হন।[৮] আগুনের কারণে চ্যানেলটির সম্প্রচার সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যায়। ভবনটিতে একই মালিকানাধীন আরটিভিইসলামিক টিভি নামক চ্যানেলও অগ্নিকান্ডের শিকার হয়।

২০০৮ সালের আগস্টে এনটিভি স্কাই চ্যানেল ৮৩৩-এর মাধ্যমে ১ বছর পর আবার যুক্তরাজ্যে সম্প্রচার করা শুরু করে।

২০১১ সালের সেপ্টেম্বরে এনটিভি প্রথম বাংলাদেশি টিভি চ্যানেল হিসাবে আইএসও প্রশংসা অর্জন করে।

৩১ অক্টোবর, ২০১৪ সালের ১১টা ৪৮ এর দিকে আবারো বিসেক ভবনে আগুন লেগে এনটিভি ও আরটিভির সম্প্রচার বন্ধ হয়।[৯][১০] কেউ হতাহত হয়নি।[১১] ঘটনাটি আমার দেশ পত্রিকার অফিস সরানোর সময় ঘটে।[১২]

২০১৫ সালের পহেলা ফেব্রুয়ারি এনটিভি ওয়েবে অনলাইন সংস্করণ চালু করে। এর প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন খন্দকার ফকরউদ্দীন আহমেদ (ফকরউদ্দীন জুয়েল)।[১৩]

অনুষ্ঠানসম্পাদনা

এনটিভি সংবাদ, সমসাময়িক ঘটনা, আলোচনা অনুষ্ঠান, প্রামাণ্যচিত্র, খেলাধুলার খবর, ব্যবসা-বাণিজ্যের অনুষ্ঠান, বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান, নাটক, টেলিফিল্ম, সংগীতানুষ্ঠান, ধর্মীয় অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান সম্প্রচার করে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "ইন্টারন্যাশনাল টেলিভিশন চ্যানেল লি. (এনটিভি)"NTV Online (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১০-০৫। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১৫ 
  2. Pearson, Bryan; Pearson, Bryan (২০০৩-০২-১০)। "NTV bows in Bangladesh"Variety (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১৫ 
  3. "NTV receives ISO certificate"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১১-০৯-০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১৫ 
  4. "এনটিভি অনলাইনের যাত্রা শুরু"NTV Online (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৫-০২-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১৫ 
  5. "সেরা অনলাইন পোর্টালের সম্মাননা পেল এনটিভি অনলাইন"NTV Online (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-১০-০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৫-১৫ 
  6. "The Daily Star Web Edition Vol. 5 Num 992"archive.thedailystar.net। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৬ 
  7. "BBCBengali.com"www.bbc.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৬ 
  8. "A Devastating Fire at BSEC Building, Dhaka"ভিওএ। ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০০৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  9. "ঢাকায় 'আমার দেশ' অফিসে আগুন, দুটি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ"BBC News বাংলা। ২০১৪-১০-৩১। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৬ 
  10. Desk, Prothom Alo English। "Govt announces compensation for Banshkhali victims"Prothomalo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৬ 
  11. "Fire at BSEC building doused"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৪-১০-৩১। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৬ 
  12. "Fire again at city's BSEC Bhaban"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৪-১১-০১। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৪-২৬ 
  13. https://www.ntvbd.com/bangladesh/386/%E0%A6%8F%E0%A6%A8%E0%A6%9F%E0%A6%BF%E0%A6%AD%E0%A6%BF-%E0%A6%85%E0%A6%A8%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%87%E0%A6%A8%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%AF%E0%A6%BE%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BE-%E0%A6%B6%E0%A7%81%E0%A6%B0%E0%A7%81

বহিঃসংযোগসম্পাদনা