এএফসি মহিলা এশিয়ান কাপ

এএফসি মহিলা এশিয়ান কাপ (ইংরেজি: AFC Women's Asian Cup) (পূর্বে: এএফসি মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপ) হলো এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) অন্তর্ভুক্ত মহিলা ফুটবলের জাতীয় দলগুলির অংশগ্রহণে চার বছর পর পর অনুষ্ঠিত একটি প্রতিযোগিতা। এটি এএফসি অঞ্চলে মহিলা জাতীয় দলের প্রধান ফুটবল প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতাটি এশিয়ান মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ এবং এশিয়ান মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপ হিসাবেও পরিচিত। এখন পর্যন্ত ২০ টি টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে, বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হলো চীন। টুর্নামেন্টটি ফিফা মহিলা বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বের জন্য এশীয় অঞ্চলের বাছাই পর্ব হিসেবেও কাজ করে।

এএফসি মহিলা এশিয়ান কাপ
প্রতিষ্ঠিত১৯৭৫; ৪৯ বছর আগে (1975)
অঞ্চলএএফসি (এশিয়া)
দলের সংখ্যা১২ (মূলপর্ব)
৩৫ (বাছাইপর্ব)
উন্নীতফিফা মহিলা বিশ্বকাপ
বর্তমান চ্যাম্পিয়ন গণচীন
(৯ম শিরোপা)
সবচেয়ে সফল দল গণচীন
(৯টি শিরোপা)
২০২২ এএফসি মহিলা এশিয়ান কাপ

সংক্ষিপ্ত বিবরণ

সম্পাদনা

মহিলা ফুটবলের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত এএফসির একটি অংশ এশিয়ান লেডিজ ফুটবল কনফেডারেশন (এএলএফসি) এই প্রতিযোগিতাটি চালু করে। প্রথম প্রতিযোগিতাটি ১৯৭৫ সালে অনুষ্ঠিত হয় এবং প্রতি দুই বছর পর পর এটি অনুষ্ঠিত হয়, তবে ১৯৮০ এর দশকে প্রতি তিন বছর পর পর প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এএলএফসি প্রাথমিকভাবে একটি পৃথক সংস্থা ছিল তবে ১৯৮৬ সালে এটি এএফসিতে অন্তর্ভুক্ত হয়।

এই প্রতিযোগিতায় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলির আধিপত্য দেখা যায়, চীন মহিলা জাতীয় ফুটবল দল টানা ৭ বার সহ মোট ৮ বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

টুর্নামেন্টেটি ২০১৪ সাল থেকে প্রতি ৪ বছর পর পর অনুষ্ঠিত হচ্ছে,[১] কারণ এএফসি ঘোষণা করে যে এশিয়ান কাপটি ২০১৫ ফিফা মহিলা বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব হিসাবে কাজ করবে।[২]

১৯৭৫ থেকে ১৯৮১ পর্যন্ত ম্যাচগুলির সময়কাল ৬০ মিনিট ছিল।[৩]

বছর স্বাগতিক ফাইনাল তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ
বিজয়ী ফলাফল রানার আপ তৃতীয় স্থান ফলাফল চতুর্থ স্থান
১৯৭৫

বিস্তারিত

  হংকং  
নিউজিল্যান্ড
৩–১  
থাইল্যান্ড
 
অস্ট্রেলিয়া
৫–০  
মালয়েশিয়া
১৯৭৭

বিস্তারিত

  প্রজাতন্ত্রী চীন  
প্রজাতন্ত্রী চীন[ক]
৩–১  
থাইল্যান্ড
 
সিঙ্গাপুর
২–০  
ইন্দোনেশিয়া
১৯৭৯

বিস্তারিত

  ভারত  
প্রজাতন্ত্রী চীন
২–০  
ভারত
 পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া বাতিল[খ]  
হংকং
১৯৮১

বিস্তারিত

  হংকং  
প্রজাতন্ত্রী চীন
৫–০  
থাইল্যান্ড
 
ভারত
২–০  
হংকং
১৯৮৩

বিস্তারিত

  থাইল্যান্ড  
থাইল্যান্ড
৩–০  
ভারত
 
মালয়েশিয়া
০–০ (৫–৪) পেন.[৪]  
সিঙ্গাপুর
১৯৮৬

বিস্তারিত

  হংকং  
গণচীন
২–০  
জাপান
 
থাইল্যান্ড
৩–০  
ইন্দোনেশিয়া
১৯৮৯

বিস্তারিত

  হংকং  
গণচীন
১–০  
চীনা তাইপেই
 
জাপান
৩–১  
হংকং
১৯৯১

বিস্তারিত

  জাপান  
গণচীন
৫–০  
জাপান
 
চীনা তাইপেই
০–০ (৫–৪) পেন  
উত্তর কোরিয়া
১৯৯৩

বিস্তারিত

  মালয়েশিয়া  
গণচীন
৩–০  
উত্তর কোরিয়া
 
জাপান
৩–০  
চীনা তাইপেই
১৯৯৫

বিস্তারিত

  মালয়েশিয়া  
গণচীন
২–০  
জাপান
 
চীনা তাইপেই
০–০ (৩–০) পেন.  
দক্ষিণ কোরিয়া
১৯৯৭

বিস্তারিত

  চীন  
গণচীন
২–০  
উত্তর কোরিয়া
 
জাপান
২–০  
চীনা তাইপেই
১৯৯৯

বিস্তারিত

  ফিলিপাইন  
গণচীন
২–০  
চীনা তাইপেই
 
উত্তর কোরিয়া
৩–২  
জাপান
২০০১

বিস্তারিত

  চীনা তাইপেই  
উত্তর কোরিয়া
২–০  
জাপান
 
গণচীন
৮–০  
দক্ষিণ কোরিয়া
২০০৩

বিস্তারিত

  থাইল্যান্ড  
উত্তর কোরিয়া
২–১ (অ.স.প.)  
গণচীন
 
দক্ষিণ কোরিয়া
১–০  
জাপান
২০০৬

বিস্তারিত

  অস্ট্রেলিয়া  
গণচীন
২–২ (অ.স.প.)
(৪–২) (পে.)
 
অস্ট্রেলিয়া
 
উত্তর কোরিয়া
৩–২  
জাপান
২০০৮

বিস্তারিত

  ভিয়েতনাম  
উত্তর কোরিয়া
২–১  
গণচীন
 
জাপান
৩–০  
অস্ট্রেলিয়া
২০১০

Details

  চীন  
অস্ট্রেলিয়া
১–১ (অ.স.প.)
(৫–৪)(পে.)
 
উত্তর কোরিয়া
 
জাপান
২–০  
গণচীন
২০১৪

বিস্তারিত

  ভিয়েতনাম  
জাপান
১–০  
অস্ট্রেলিয়া
 
গণচীন
২–  
দক্ষিণ কোরিয়া
২০১৮

বিস্তারিত

  জর্ডান  
জাপান
১–০  
অস্ট্রেলিয়া
 
গণচীন
৩–১  
থাইল্যান্ড
বছর স্বাগতিক ফাইনাল সেমি-ফাইনালে পরাজিত
বিজয়ী ফলাফল রানার আপ
২০২২

বিস্তারিত

  ভারত  
গণচীন
৩–২  
দক্ষিণ কোরিয়া
  জাপান এবং   ফিলিপাইন

নোট: অ.স.প: অতিরিক্ত সময়ের পরে

  1. ১৯৭৯ সাল থেকে চাইনিজ তাইপেই হিসেবে প্রতিযোগিতা করছে
  2. ম্যাচটি বাতিল করা হয়েছিল কারণ হংকং দলের সদস্যরা ইতিমধ্যে কিক অফের আগে কোঝিকোড় ছেড়ে যাওয়ার জন্য ফ্লাইট বুক করেছিলেন, অন্যথায় তাদের হংকংয়ের আরও প্রথম দিকের ফ্লাইটের জন্য আরও চার দিন পিছনে থাকতে হয়েছিল, যা দলের সময়সূচীকে বিপর্যস্ত করতে পারত. দুই দলকেই তৃতীয় স্থান ঘোষণা করা হয়েছে।

জাতীয় দলের সফলতা

সম্পাদনা
মর্যাদাক্রম দেশ বিজয়ী রানার আপ তৃতীয় স্থান চতুর্থ স্থান মোট
  গণচীন ১৪
  উত্তর কোরিয়া
  চীনা তাইপেই
  জাপান ১৪
  অস্ট্রেলিয়া
  থাইল্যান্ড
  নিউজিল্যান্ড
  ভারত
  দক্ষিণ কোরিয়া
১০   মালয়েশিয়া
  সিঙ্গাপুর
১২   হংকং
১৩   ইন্দোনেশিয়া
মোট ১৯ ১৯ ১৯ ১৯ ৭৬

অংশগ্রহণকারী দেশসমূহ

সম্পাদনা
দল  ১৯৭৫(৬)  ১৯৭৭(৬)  ১৯৭৯(৬)  ১৯৮১(৮)  ১৯৮৩(৬)  ১৯৮৬(৭)  ১৯৮৯(৮)  ১৯৯১(৯)  ১৯৯৩(৮)  ১৯৯৫(১১)  ১৯৯৭(১১)  ১৯৯৯(১৫)  ২০০১(১৪)  ২০০৩(১৪)  ২০০৬(৯)  ২০০৮(৮)  ২০১০(৮)  ২০১৪(৮)  ২০১৮(৮)  ২০২২(১২) বছর
  অস্ট্রেলিয়া তৃতীয় তৃতীয় এএফসি সদস্য নন দ্বিতীয় চতুর্থ প্রথম দ্বিতীয় দ্বিতীয় কোফা
  গণচীন প্রথম প্রথম প্রথম প্রথম প্রথম প্রথম প্রথম তৃতীয় দ্বিতীয় প্রথম দ্বিতীয় চতুর্থ তৃতীয় তৃতীয় প্রথম ১৪
  চীনা তাইপেই প্রথম প্রথম প্রথম দ্বিতীয় তৃতীয় চতুর্থ তৃতীয় চতুর্থ দ্বিতীয় গ্রুপ পর্ব GS GS GS কোফা ১৩
  গুয়াম GS GS GS GS
  হংকং GS GS চতুর্থ চতুর্থ GS GS চতুর্থ GS GS GS GS GS GS GS ১৪
  ভারত দ্বিতীয় তৃতীয় দ্বিতীয় GS GS GS GS GS ×
  ইন্দোনেশিয়া চতুর্থ GS চতুর্থ GS GS
  ইরান GS
  জাপান GS GS দ্বিতীয় তৃতীয় দ্বিতীয় তৃতীয় দ্বিতীয় তৃতীয় চতুর্থ দ্বিতীয় চতুর্থ চতুর্থ তৃতীয় তৃতীয় প্রথম প্রথম সেফা ১৬
  জর্ডান GS GS
  কাজাখস্তান সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ GS GS GS এখন আর এএফসি সদস্য নেই
  উত্তর কোরিয়া GS চতুর্থ দ্বিতীয় দ্বিতীয় তৃতীয় প্রথম প্রথম তৃতীয় প্রথম দ্বিতীয় ১০
  দক্ষিণ কোরিয়া GS GS চতুর্থ GS GS চতুর্থ তৃতীয় GS GS GS চতুর্থ পঞ্চম দ্বিতীয় ১২
  মালয়েশিয়া চতুর্থ GS তৃতীয় GS GS GS GS GS GS
  মিয়ানমার GS GS GS GS GS
    নেপাল GS GS GS
  নিউজিল্যান্ড প্রথম এএফসি সদস্য নন
  ফিলিপাইন GS GS GS GS GS GS GS GS ষষ্ঠ সেফা
  সিঙ্গাপুর GS তৃতীয় GS চতুর্থ GS GS GS
  থাইল্যান্ড দ্বিতীয় দ্বিতীয় দ্বিতীয় প্রথম তৃতীয় GS GS GS GS GS GS GS GS GS পঞ্চম চতুর্থ কোফা ১৬
  উজবেকিস্তান সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ GS GS GS GS GS
  ভিয়েতনাম GS GS GS GS GS GS ষষ্ঠ GS কোফা
  • × = ভারত কোভিড-১৯ মহামারীর জন্য দলগঠনে অক্ষম হওয়ায় ২০২২ মরসুমের মাঝেই নাম প্রত্যাহার করে নেয়
  • GS = গ্রুপ পর্বে বিদায়

সাধারণ পরিসংখ্যান

সম্পাদনা

২০১৮ পর্যন্ত

মর্যাদাক্রম দল অংশগ্রহণ খেলা জয় ড্র হার গোল পক্ষে গোল বিপক্ষে পার্থক্য পয়েন্ট
  গণচীন ১৪ ৭০ ৫৭ ৩৪৮ ৩৩ +৩১৫ ১৭৫
  জাপান ১৬ ৭৬ ৫২ ২০ ৩৪৭ ৫৭ +২৯০ ১৬০
  উত্তর কোরিয়া ১০ ৫৩ ৩৬ ১১ ২৪২ ৩৮ +২০৪ ১১৪
  চীনা তাইপেই ১৩ ৫৯ ৩৬ ১৮ ১৬৫ ৭৭ +৮৮ ১১৩
  থাইল্যান্ড ১৬ ৬৩ ৩৩ ২৮ ১১০ ১৫৬ −৪৬ ১০১
  দক্ষিণ কোরিয়া ১২ ৪৮ ২৪ ১৮ ১৪৬ ৭৩ +৭৩ ৭৮
  অস্ট্রেলিয়া ৩৬ ১৮ ১২ ৬৪ ৪১ +২৩ ৬০
  ভারত ৩৫ ১৬ ১৬ ৬৩ ৬১ +২ ৫১
  হংকং ১৪ ৫৭ ১১ ৪২ ২৬ ১৯১ −১৬৫ ৩৭
১০   ভিয়েতনাম ২৭ ১৮ ৩২ ৮০ −৪৮ ২৭
১১   সিঙ্গাপুর ২৭ ১৯ ২১ ১১৫ −৯৪ ২২
১২   উজবেকিস্তান ১৬ ১৫ ৬৪ −৪৯ ২১
১৩   মালয়েশিয়া ৩৪ ২৬ ২০ ১৬১ −১৪১ ১৮
১৪   ইন্দোনেশিয়া ১৪ ১৭ ৪৯ −৩২ ১৩
১৫   নিউজিল্যান্ড ১১ +৮ ১২
১৬   ফিলিপাইন ৩১ ২৭ ১৪ ১৮০ −১৬৬ ১০
১৭   কাজাখস্তান ১৬ ৩৯ −২৩
১৮   মিয়ানমার ১৪ ১১ ১৪ ৪৭ −৩৩
১৯   গুয়াম ১৫ ১৪ ১১২ −১০৭
২০   জর্ডান ২৯ −২৪
২১     নেপাল ১০ ১০ ৬৭ −৬৬

আরও দেখুন

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. "Competition Regulations AFC Women's Asian Cup 2014 Qualifiers"। Asian Football Confederation। সংগ্রহের তারিখ ২৫ জুলাই ২০১২The AFC stages the AFC Women's Asian Cup 2014 (Qualifiers) (hereafter the "Competition") for the senior women's national teams once every four (4) years. (In Section 1) [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "VFF AimTo Host 2014 AFC Women's Asian Cup"Asean Football Federation। ৫ অক্টোবর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০১২ 
  3. "Asian Women's Championship"। ২০১১-১০-২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. "Newspapers – The Straits Times, 18 April 1983, Page 43"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১২ 

বহিঃসংযোগ

সম্পাদনা