আব্রাহাম ক্রিসকোয়েস

আব্রাহাম ক্রিসকোয়েস (কাতালান উচ্চারণ: [əβɾəˈam ˈkɾeskəs], ১৩২৫-১৩৮৭) যার আসল নাম ছিল ক্রিসকোয়েস (আব্রাহাম)-এর পুত্র, পালমা, মাজোর্কায় (তখন আরাগণের মুকুটের অংশ ছিল) জন্মগ্রহণকারী চতুর্দশ শতাব্দির একজন ইহুদি মানচিত্রকার। তার পুত্র জেহুদা ক্রিসকোয়েস ও তিনি একত্রে সর্বপ্রথম ১৩৭৫ সালে কাতালান মানচিত্র তৈরি করেন।[১]

আব্রাহাম ক্রিসকোয়েস
আব্রাহাম ক্রিসকোয়েস ও তাঁর পুত্র জেহুদা ক্রিসকোয়েস নির্মিত কাতালান মানচিত্রের একটি অংশ
আব্রাহাম ক্রিসকোয়েস ও তাঁর পুত্র জেহুদা ক্রিসকোয়েস নির্মিত কাতালান মানচিত্রের একটি অংশ
জন্ম
əβɾəˈam ˈkɾeskəs

১৩২৫
মৃত্যু১৩২৭
অন্যান্য নামএলিকা, রাব্বি আব্রাহামের পুত্র
পেশামানচিত্রকার
পরিচিতির কারণকাতালান মানচিত্র

ব্যক্তিজীবনসম্পাদনা

মাজোর্কান ইহুদি ক্রিসকোয়েস একজন বিজ্ঞ মানচিত্রনির্মাতা এবং ঘড়ি, কম্পাস এবং অন্যান্য নটিক্যাল যন্ত্র প্রভৃতির নির্মাতা ছিলেন। তিনি মাজোর্কার মানচিত্রবৎ বিদ্যালয়-এর একজন নেতৃত্বদানকারী সদস্য ছিলেন।

তার আসল নাম ছিল এলিকা (পদবী ক্রিসকোয়েস), রাব্বি আব্রাহামের পুত্র, রাব্বি বেনাভিস্তের পুত্র, রাব্বি এলিকার পুত্র। এলিকা তার নাম হলেও তিনি আব্রাহামের ক্রিসকোয়েস (ক্রিসকোয়েন তার ব্যক্তিগত নাম, এলিকা ধার্মিক নাম, আব্রাহাম তার পিতাগত নাম), তবে তিনি তার রচিত পরবর্তী সাহিত্যে পরবর্তী নাম ব্যবহার করেন। তার পুত্র, জেহুদা ক্রিসকোয়েসও একজন বিখ্যাত মানচিত্রবিদ ছিলেন।

কাতালান মানচিত্রসম্পাদনা

১৩৭৫ সালে ক্রিসকোয়েস এবং তার ছেলে জেহুদা আরাগণের রাজপুত্রের (পরবর্তীতে আরাগণের প্রথম জন) কাছ থেকে একটি কাজ পান। কাজটি হল নটিক্যাল ছকের একটি সমষ্টি তৈরি করতে হবে যা সাধারণ ভৌগোলিক বা সমসায়কি পোর্টোলান ছক থেকে ভিন্ন হবে এবং জিব্রাল্টার থেকে সোজা পূর্ব ও পশ্চিম, এবং বাকি যা আছে, সবই ধারণ করবে।[২] এই কাজের জন্য ক্রিসকোয়েস ও তার পুত্রকে ১৫০ আরাগণিজ সোনার ফ্লোরিন এবং ৬০ মালোর্কান পাউন্ড পায়।[২] বিভিন্ন কাগজপত্র থেকে জানা যায়, প্রায় চতুর্দশ শতকের দিকে রাজপুত্র এবং তার পিতা আরাগণের চতুর্থ পিটার কাজের হিসাব পেতে শুরু করেন। রাজপুত্র জন ছকটি তার চাচাতো ভাই চার্লসকে (পরবর্তীতে ফ্রান্সের চতুর্থ চার্লস) একটি উপহার হিসেবে দেখাতে চেয়েছিলেন।[২] ১৩৭৫ সালে ক্রিসকোয়েস এবং জেহুদা তাদের ইহুদীয় আবাসস্থলে (পালমায়) ছয়টি ছক বানায় এবং এগুলোই কাতালান মানচিত্র গঠন করে।[১]

ক্রিসকোয়েস কৃত পূর্তকাজসম্পাদনা

১৩৭৫ সালে কাতালান মানচিত্র ছিল ক্রিসক্রোয়েস আব্রাহাম কর্তৃক কৃত একমাত্র মানচিত্র। তবে গবেষণাবিদেরা আবিষ্কার করেছেন যে আরো পাঁচ ধরনের মানচিত্রও হয়ত ক্রিসকোয়েস, জেহুদা বা ক্রিসকোয়েসের কোন কর্মচারী করে থাকতে পারেন।[৩] কাতালান শিল্পের মত, এই পাঁচটি মানচিত্র (চারটি পোর্টোলান ছক) এবং একটি মাপ্পা মুন্ডি রয়েছে যা সাক্ষরহীন এবং তারিখহীন এবং তাদের নির্মাণের আনুমানিক সময় ১৩৭৫ থেকে ১৪০০ সালের মধ্যে।

ক্যাম্পবেলের মতানুযায়ী, চারটি পোর্টোলন ছকই ক্রিসকোয়েস আতালিয়ার কর্তৃক তৈরি। ন্যাপলিস এবং প্যারিস চার্ট অন্য দুটি্র চাইতে বেশি সুসজ্জিত। প্যারিস চার্ট (খ্রিষ্টাব্দ ১৪০০) কাতালান মানচিত্রের (খ্রিষ্টাব্দ ১৩৭৫) সাথে নির্মাণের দিক দিয়ে বেশ সাদৃশ্যপূর্ণ।[৬] তবে ক্রিসকোয়েসের কর্মশালার স্বীকৃতিপ্রদান শুধুমাত্র পরীক্ষামূলকই হয়। ক্যাম্পবেল বলেন, "এই ছকের দলটি এর সাথে স্পষ্টতই সম্পর্কযুক্ত। কিন্তু এই চার ছক একজনই নির্মাণ করেছে তা প্রমাণ করার জন্য শুধুমাত্র রঙ বিশ্লেষণের যথেষ্ট নয়।"[৬]

গ্যালারীসম্পাদনা

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. abraham cresques 
  2. "The Catalan Atlas" 
  3. Pujades (2007: p.63), Campbell (2011)
  4. (MS Esp 30)
  5. (It.IV,1912)
  6. Campbell (2011)
  • Campbell, T. (২০১১) Anonymous works and the question of their attribution to individual chartmakers or to their supposed workshops, online
  • Pujades i Bataller, Ramon J. (২০০৭) Les cartes portolanes: la representació medieval d'una mar solcada. Barcelona.

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

  • কাতালান মানচিত্রের ছবি ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২১ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ তারিখে Bibliothèque Nationale de France, accessed ১৪-০৩-২০১৪
  • www.cresquesproject.net—ইংরেজিতে অনূদিত মধ্যযুগ পরবর্তী ইহুদীয় মাজোর্কার মানচিত্রনির্মাতা রিয়েরা ই সানস ও গ্যাব্রিয়েল লিওমপার্ট-এর কাজ। এতে ক্রিসকোয়েস আব্রাহাম ও তার পুত্র জেহুদা ক্রিসকোয়েসের সম্পূর্ণ আত্মজীবনী।