আবু আহমদ ফজলুল করিম

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

ডাঃ আবু আহমদ ফজলুল করিম (১৯২৮–২৯ এপ্রিল ১৯৮৭) বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জ জেলার রাজনীতিবিদ ও চিকিৎসক যিনি তৎকালীন ময়মনসিংহ-২০ আসনের সংসদ সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।[১][২]

ডাক্তার

আবু আহমদ ফজলুল করিম
আবু আহমদ ফজলুল করিম.png
স্বাস্থ্য ও জন্মনিয়ন্ত্রণ প্রতিমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
২৪ নভেম্বর ১৯৭৯ – ২৪ নভেম্বর ১৯৮১
বেতার, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
২৪ নভেম্বর ১৯৮১ – ২৪ মার্চ ১৯৮২
ময়মনসিংহ-২০ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯ – ১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৮১
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্মমোহাম্মদ আবু আহমদ ফজলুল করিম
১৯২৮
কিশোরগঞ্জ, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত
(বর্তমান বাংলাদেশ)
মৃত্যু২৯ এপ্রিল ১৯৮৭
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা মেডিকেল কলেজ

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

আবু আহমদ ফজলুল করিম ১৯২৮ সালে কিশোরগঞ্জের চৌদ্দশত ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা ইব্রাহীম ভূঞা ও মাতা রওশন আরা বিনু।

তিনি প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণ শেষে কোদালিয়া এস আই হাই স্কুল থেকে ১৯৪৫ সালে মেট্রিক, ১৯৪৭ সালে ঢাকা ইন্টারমিডিয়েট কলেজ থেকে আইএসসি এবং ১৯৫৩ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন।

রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

আবু আহমদ ফজলুল করিম চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ছাত্রজীবনেই রাজনীতির সাথে জড়িত হয়ে নিখিল বঙ্গ মুসলিম ছাত্রলীগ ও ছাত্র ফেডারেশনের সদস্য ছিলেন। ৬ দফা আন্দোলন, ভাষা আন্দোলন, ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণসহ তৎকালীন সকল রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে তিনি সক্রিয় ভূমিকা রাখেন। ভাষা আন্দোলনে অংশগ্রহণের অভিযোগে তিনি কারাবরণ করেছেন।

১৯৭৫ সালে তিনি ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টিতে (ভাসানী) যোগদান করে ১৯৭৬ সালে কিশোরগঞ্জ জেলার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৮ সালে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল গঠিত হলে তিনি কিশোরগঞ্জ জেলা শাখা জাতীয়তাবাদী দলের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক নির্বাচিত হন।

তিনি ১৯৭৯ সালের দ্বিতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রার্থী হিসেবে তৎকালীন ময়মনসিংহ-২০ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[১] জিয়াউর রহমানের মন্ত্রিসভায় তিনি স্বাস্থ্য ও জন্মনিয়ন্ত্রণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[২][৩][৪] ১৯৮০ সালে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয় ও ১৯৮২ সালে আবার তাকে স্বাস্থ্য ও জন্মনিয়ন্ত্রণ মন্ত্রণালয় দেয়া হয়। আবদুস সাত্তারের মন্ত্রিসভায় তিনি ২৪ নভেম্বর ১৯৮১ সাল থেকে ১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৮২ সাল পর্যন্ত বেতার, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[২]

মৃত্যুসম্পাদনা

আবু আহমদ ফজলুল করিম ২৯ এপ্রিল ১৯৮৭ সালে মৃত্যুবরণ করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "২য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. মাহফুজ উল্লাহপ্রেসিডেন্ট জিয়া: রাজনৈতিক জীবনী 
  3. "প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের দ্বিতীয় মন্ত্রিসভা"। দৈনিক বাংলা। ১৬ এপ্রিল ১৯৭৯। 
  4. খালেদা হাবিব। বাংলাদেশঃ নির্বাচন, জাতীয় সংসদ ও মন্ত্রিসভা ১৯৭০-৯১