অখিলচন্দ্র নন্দী

সাম্যবাদী কর্মী

অখিলচন্দ্র নন্দী ( ৭ মার্চ ১৯০৭ - ১৬ ডিসেম্বর ১৯৮৭) একজন ব্রিটিশবিরোধী বিপ্লবী ও সাম্যবাদী কর্মী।

অখিলচন্দ্র নন্দী
জন্ম৭ মার্চ ১৯০৭
কালিকচ্ছ, সরাইল, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া, ব্রিটিশ ভারত, (বর্তমান বাংলাদেশ বাংলাদেশ)
মৃত্যু১৬ ডিসেম্বর ১৯৮৭
নাগরিকত্ব ব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সাল পর্যন্ত)
 পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
 ভারত
রাজনৈতিক দলস্বাধীনতার পুর্বে যুগান্তর দল, স্বাধীনোত্তর কালে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি,
আন্দোলনব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলন

বংশ পরিচয়সম্পাদনা

বাংলাদেশেব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার কালিকচ্ছ গ্রামে তার জন্ম। এই এলাকার নন্দী বংশ সুপরিচিত। ব্রিটিশবিরোধী সশস্ত্র আন্দোলনে কালিকচ্ছ গ্রামের নন্দী বংশের অনেকেই অংশগ্রহণ করেছিলেন। প্রখ্যাত বাঙালী সাহিত্যিক জ্যোতিরিন্দ্র নন্দীও একই বংশের ব্যক্তি।[১] অখিলচন্দ্র নন্দীর স্ত্রী শেফালী নন্দী একজন লেখিকা।

বিপ্লবী আন্দোলনসম্পাদনা

কৈশোরকাল থেকেই স্বাধীনতা আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে যুক্ত ছিলেন অখিলচন্দ্র। কুমিল্লা শহরের মহিলারা একটা সময় স্বাধীনতা সংগ্রামে ব্যাপকহারে অংশগ্রহণ করেছিলেন তারই সক্রিয় সহযোগীতায়। দুই মহিলা বিপ্লবী শান্তি ঘোষসুনীতি চৌধুরী কুমিল্লার ম্যাজিস্ট্রেট স্টিভেন্সকে হত্যা করেন, একাজে সাহায্যকারী ছিলেন তিনি।[২] স্টিভেন্স হত্যা মামলায় তিনি ধরা পড়েন ও আট বছর কারারুদ্ধ থাকেন। জেলে থাকাকালীন বি.এ পাশ করেন অখিলচন্দ্র।[৩]

পরবর্তী জীবনসম্পাদনা

জেল থেকে মুক্তিলাভ করে সন্ত্রাসবাদী বিপ্লবী আন্দোলনের পথ পরিহার করেন ও মার্ক্সবাদে আকৃষ্ট হন তিনি। ১৯৩৯ সালে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির সদস্যপদ লাভ করেছিলেন। স্বাধীনতার পর পিসি চ্যাটার্জী এন্ড কোম্পানিতে কাজ করতেন। এছাড়াও বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজের সাথে জড়িত ছিলেন। একটি জীবনীমূলক বই লিখেছেন যার নাম 'বিপ্লবীর স্মৃতিচারণ'।

মৃত্যুসম্পাদনা

১৬ ডিসেম্বর, ১৯৮৫ সালে তিনি মারা যান।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. মো নুরে আলম (১ ডিসেম্বর ২০১৬)। "মৈত্রী সম্প্রীতি ও কালীকচ্ছ সম্মিলনী"। সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ১১.০১.২০১৭  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. Geraldine Forbes (১৯৯৯)। Women in Modern India। Cambridge University Press। পৃষ্ঠা 272। আইএসবিএন 9780521653770 
  3. দ্বিতীয় খন্ড, অঞ্জলি বসু সম্পাদিত (২০০৪)। সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান। কলকাতা: সাহিত্য সংসদ। পৃষ্ঠা ১।