ওয়াশিংটন, ডি.সি.

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী
(Washington, DC থেকে পুনর্নির্দেশিত)

ওয়াশিংটন, ডি.সি. (ইংরেজি: Washington D.C.) উত্তর আমেরিকার দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী শহর। ওয়াশিংটন শহরটি কোনও মার্কিন অঙ্গরাজ্যের অংশ নয়। এটি ডিসট্রিক্ট অফ কলাম্বিয়া (District of Columbia, সংক্ষেপে D.C. ডি.সি.) নামক একটি বিশেষ কেন্দ্রশাসিত জেলাতে অবস্থিত। শহর ও জেলা একই ভূখণ্ডের উপর অবস্থিত। শহরটি পটমাক নদীর তীরে, ম্যারিল্যান্ডভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের মধ্যবর্তী একটি স্থানে অবস্থিত। ম্যারিল্যান্ড অঙ্গরাজ্য শহরটিকে প্রায় সব দিকে থেকে ঘিরে রেখেছে। কেবল শহরের দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে নদীর অপর তীরে ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্য অবস্থিত। এর আয়তন ১৭৯ বর্গকিলোমিটার (কলকাতা শহরের চেয়ে কিছু ছোট)।

ডিসট্রিক্ট অফ কলাম্বিয়া
উপরে বায়ে : জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়; উপরে ডানে: যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী; মধ্যে: ওয়াশিংটন স্মৃতিস্তম্ভ; নিম্নে বায়ে: আফ্রিকান আমেরিকান বেসামরিক যুদ্ধ যাদুঘর; নিম্নে ডানে: জাতীয় সমাধিস্তম্ভ
উপরে বায়ে : জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়; উপরে ডানে: যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী; মধ্যে: ওয়াশিংটন স্মৃতিস্তম্ভ; নিম্নে বায়ে: আফ্রিকান আমেরিকান বেসামরিক যুদ্ধ যাদুঘর; নিম্নে ডানে: জাতীয় সমাধিস্তম্ভ
ডিসট্রিক্ট অফ কলাম্বিয়ার পতাকা
পতাকা
ডিসট্রিক্ট অফ কলাম্বিয়ার অফিসিয়াল সীলমোহর
সীলমোহর
নীতিবাক্য: Justitia Omnibus  (সবার জন্য ন্যয় বিচার)
Location of Washington, D.C. in the United States and in relation to the states of Maryland and Virginia.
Location of Washington, D.C. in the United States and in relation to the states of Maryland and Virginia.
স্থানাঙ্ক: ৩৮°৫৩′৪২.৪″ উত্তর ৭৭°০২′১২.০″ পশ্চিম / ৩৮.৮৯৫১১১° উত্তর ৭৭.০৩৬৬৬৭° পশ্চিম / 38.895111; -77.036667স্থানাঙ্ক: ৩৮°৫৩′৪২.৪″ উত্তর ৭৭°০২′১২.০″ পশ্চিম / ৩৮.৮৯৫১১১° উত্তর ৭৭.০৩৬৬৬৭° পশ্চিম / 38.895111; -77.036667
রাষ্ট্রমার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
ফেডারেল ডিসট্রিক্টডিসট্রিক্ট অফ কলাম্বিয়া
সরকার
 • মেয়রঅ্যাড্রিয়ান ফেনটি (D)
 • ডি.সি. কাউন্সিলচেয়ারম্যান: ভিনসেন্ট গ্রে (D)
আয়তন
 • শহর৬৮.৩ বর্গমাইল (১৭৭.০ বর্গকিমি)
 • স্থলভাগ৬১.৪ বর্গমাইল (১৫৯.০ বর্গকিমি)
 • জলভাগ৬.৯ বর্গমাইল (১৮.০ বর্গকিমি)
উচ্চতা০ ফুট (০ মিটার)
জনসংখ্যা (২০০৯)[১][২]
 • শহর৫,৯৯,৬৫৭
 • জনঘনত্ব৯,৭৭৬.৪/বর্গমাইল (৩,৭৭১.৪/বর্গকিমি)
 • মহানগর৫.৩
সময় অঞ্চলEST (ইউটিসি-5)
 • গ্রীষ্মকালীন (দিসস)EDT (ইউটিসি-4)
ওয়েবসাইটwww.dc.gov

১৭৯০ সালে উত্তরের ও দক্ষিণের রাজ্যগুলির মধ্যে রাজনৈতিক আপোষমূলক সমাধান হিসেবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম রাষ্ট্রপতি জর্জ ওয়াশিংটন এই স্থানটি নির্বাচন করেন। তাঁর নামেই শহরটির নামকরণ করা হয়। জর্জ ওয়াশিংটনের নির্বাচিত স্থানে শহরটিকে একটি জাতীয় রাজধানী হিসেবে শূন্য থেকে সুপরিকল্পিতভাবে নির্মাণ করা হয়; এরকম প্রকল্প বিশ্বে বিরল। প্রকৌশলী পিয়ের-শার্ল লঁফঁ শহরের নকশা করেন। ১৮০০ সালে এখানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় সরকার কাজ করা শুরু করে। ১৮১২-র যুদ্ধের সময় ব্রিটিশরা ১৮১৪ সালে হোয়াইট হাউসসহ শহরটির অনেক ভবন পুড়িয়ে ধ্বংস করে দেয়। সেগুলিকে পুনরায় নির্মাণ করা হয়। ১৮৭৮ সালে জর্জটাউন শহরটিকে ওয়াশিংটন শহরের অঙ্গীভূত করে নিলে শহরটি ও ডিস্ট্রিক্ট অফ কলাম্বিয়া জেলাটি একই সীমানার অধিকারী হয়ে যায়। ১৮৬৫ সালে মার্কিন গৃহযুদ্ধের অবসানের পরে বহু মুক্ত ক্রীতদাস ওয়াশিংটন শহরে থাকতে আসে, ফলে শহরের জনসংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে যায়। ২০ শতকে শহরের বৃদ্ধি অব্যাহত থাকে। ২০০১ সালের ১১ই সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসীরা পেন্টাগনে একটি যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত করে। এরপরে সরকারী ভবনগুলির নিরাপত্তাতে অনেক কড়াকড়ি শুরু হয়।

ওয়াশিংটনে কেন্দ্রীয় মার্কিন সরকারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রাতিষ্ঠানিক ভবনগুলি অবস্থিত। এগুলিকে দ্য মল নামের একটি প্রশস্ত ঘাসাচ্ছাদিত এলাকার চারপাশ ঘিরে বিন্যস্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে মার্কিন আইন প্রণয়নকারী সংসদ সদস্যদের কার্যালয় ক্যাপিটল হিল ভবন, মার্কিন রাষ্ট্রপ্রধানের বাসভবন হোয়াইট হাউস উল্লেখ্য।

ওয়াশিংটন শহরে ৩০০রও বেশী স্মৃতিরক্ষণমূলক মূর্তি ও স্থাপনা আছে। এদের মধ্যে ওয়াশিংটন স্মৃতিস্তম্ভ, লিংকন স্মরণিকা, জেফারসন স্মরণিকা, ভিয়েতনাম যুদ্ধে শহীদ যোদ্ধাদের স্মরণিকা উল্লেখযোগ্য।

ওয়াশিংটন ডিসির শিক্ষাগত ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে স্মিথসোনিয়ান ইন্সটিটিউশন বিখ্যাত। এটি শহরের অনেকগুলি জাতীয় পর্যায়ের জাদুঘর পরিচালনা ও দেখাশোনা করে। লাইব্রেরি অফ কংগ্রেস বিশ্বের বৃহত্তম গ্রন্থাগার। এছাড়া এখানে বিদেশী দূতাবাসগুলি অবস্থিত।

নগরীর অর্থনীতি সরকারী কর্মকাণ্ড, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক রাজনীতি, বৈজ্ঞানিক গবেষণা ও পর্যটন খাতকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয়। মার্কিন সরকার শহরের বৃহত্তম নিয়োগকর্তা। আইন, ব্যবসা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলিও গুরুত্বপূর্ণ।

বাংলার সাথে সংযোগসম্পাদনা

টমাস ল নামক একজন ব্রিটিশ ছিলেন ওয়াশিংটন, ডি.সি. শহরের প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ের প্রধান বিনিয়োগকারী। টমাস ল ছিলেন ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির একজন কর্মকর্তা। তিনি বাংলায় ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত বাস্তবায়নের অন্যতম কারিগর। তিনি ভারতে চাকরি করে প্রায় ₤৫০,০০০ থেকে ₤১০০,০০০ মূল্যের সম্পত্তির মালিক হন।

অভিযোগ রয়েছে বাংলার জমিদারদের কাছ থেকে ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ উপায়ে তিনি এই বিপুল সম্পদ উপার্জন করেন। ইংল্যান্ডে ফিরে গেলে অবৈধ সম্পদ হিসাবে আটক হওয়ার ভয়ে তিনি আমেরিকা পারি দেন এবং ওয়াশিংটন, ডি.সি. শহরে স্থায়ী হন। তিনি তার এই বিপুল সম্পদ আমেরিকার নতুন রাজধানী শহরের উন্নতিতে বিনিয়োগ করেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Annual Estimates of the Resident Population for the United States, Regions, States, and Puerto Rico: April 1, 2000 to July 1, 2009"। United States Census Bureau। ২০০৯-১২-২২। ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১২-২৪ 
  2. "Annual Estimates of the Population of Metropolitan and Micropolitan Statistical Areas: April 1, 2000 to July 1, 2008"United States Census Bureau। ২০০৯-০৩-১৯। জুলাই ৩১, ২০০৯ তারিখে মূল (XLS) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৬-০৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা