হাড় কিপটে বৃন্দাবন দাস রচিত ও সালাউদ্দিন লাভলু পরিচালিত একটি খুবই জনপ্রিয় টেলিভিশন ধারাবাহিক । মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন আমিরুল হক চৌধুরী, চঞ্চল চৌধুরী, মোশাররফ করিম, আ খ ম হাসান, শামীম জামান, শাহানাজ খুশিসহ আরো অনেকে । হাড়কিপটে ধারাবাহিকের নতুন কিস্তি হলো হারাধনের একটি বাগান[১][২]

হারকিপ্টে
ধরনকমেডি, ড্রামা
লেখকবৃন্দাবন দাস
গল্প লেখকবৃন্দাবন দাস
পরিচালকসালাউদ্দিন লাভলু
উপস্থাপকসিডি চয়েজ ড্রামা
অভিনয়ে
উদ্বোধনী সঙ্গীতগুরু আমার সংসার চলে না
মূল দেশবাংলাদেশ
মূল ভাষাআঞ্চলিক বাংলা
মৌসুমের সংখ্যা
পর্বের সংখ্যা১০৫
নির্মাণ
প্রযোজকশরৎ টেলিফিল্ম
নির্মাণের স্থানবাংলাদেশ
পরিবেশকএটিএন বাংলা

অভিনয়সম্পাদনা

উল্লেখযোগ্য অভিনয় শিল্পীরা হলোঃ

কাহিনিসম্পাদনা

পাবনা জেলার চাটমোহর উপজেলার এক প্রত্যন্ত গ্রামের দুই বন্ধু নজর আলী ও হারাধন দত্ত। দুইজনই অসম্ভব কৃপণ যাকে বলে হাড়কিপ্টে আরকি। এই দুজনের কৃপণতার জন্যে তাদের পরিবারে যে সংঘাত তাই নাটকের আলোচ্য বিষয়। নজর আলীর তিন সন্তান ফজর, বহর ও নহর। তার সহধর্মিণী কমলা বানু। তিনি সংসারের খরচের ব্যাপারে খুবেই সংবেদনশীল। তাকে গ্রামের লোক কিপটে ডাকে, তবুও এসব গায়ে মাখে না তিনি। তার ধারনা, সবাই তাকে হিংসে করেই এসব বলে। নজর আলীর মতো তার মেঝছেলেও কৃপণ,এই পরিবারের ভুক্তভোগী তার স্ত্রী (কমলাবানু), বড় ছেলে(ফজর) এবং ছোট ছেলে (নহর)। অন্যদিকে বিপত্নীক হারাধনের ঘরে দুই ছেলেমেয়ে। মেয়ে শিবানী রাণী দত্তও বাবার মতো কৃপণ। তাই এই পরিবারের ভুক্তভোগী ছেলে ভূপেন দত্ত।

Brindabon das

মুক্তিসম্পাদনা

প্রতিক্রিয়াসম্পাদনা

হাড়কিপটে ধারাবাহিকটি খুবেই প্রশংসা কুড়িয়েছে । সর্বস্তরের মানুষ প্রত্যেকটি চরিত্রকে ভালোবেসেছে।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "আবারও 'হাড়কিপটে', এবার ভূত চঞ্চল-খুশি"Bangla Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-০৪ 
  2. Azadi, Dainik (২০২২-০৪-০৯)। "আবারও 'হাড়কিপটে' এবার ভূত চঞ্চল-খুশি"দৈনিক আজাদী (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-০৬-০৪ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]