স্টিভ ম্যাকুইন

মার্কিন অভিনেতা

টেরেন্স স্টিভেন ম্যাকুইন (ইংরেজি: Steve McQueen; ২৪শে মার্চ, ১৯৩০ - ৭ই নভেম্বর, ১৯৮০) ছিলেন একজন মার্কিন অভিনেতা। তাকে "দ্য কিং অব কুল" ডাকা হত। তার "অ্যান্টি-হিরো" ব্যক্তিত্ব ১৯৬০-এর দশকের বিপরীত সংস্কৃতির সৃষ্টি করে এবং তাকে ১৯৬০ ও ১৯৭০-এর দশকের শীর্ষ বক্স-অফিস তারকার খ্যাতি এনে দেয়। অভিনয় জীবনে তিনি একটি একাডেমি পুরস্কার ও চারটি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। ১৯৭৪ সালে তিনি বিশ্বের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক গ্রহীতা চলচ্চিত্র তারকা হয়ে ওঠেন।

স্টিভ ম্যাকুইন
Steve McQueen
Steve McQueen.png
ড্রাইভিং লাইসেন্সে ম্যাকুইন
জন্ম
টেরেন্স স্টিভেন ম্যাককুইন

(১৯৩০-০৩-২৪)২৪ মার্চ ১৯৩০
মৃত্যু৭ নভেম্বর ১৯৮০(1980-11-07) (বয়স ৫০)
চিহুয়াহুয়া, মেক্সিকো
মৃত্যুর কারণক্যান্সার
পেশাঅভিনেতা
কার্যকাল১৯৫২–১৯৮০
দাম্পত্য সঙ্গীনেইল অ্যাডামস
(বি. ১৯৫৬; বিচ্ছেদ. ১৯৭২)

অ্যালি ম্যাকগ্র
(বি. ১৯৭৩; বিচ্ছেদ. ১৯৭৮)

বারবারা মিন্টি
(বি. ১৯৮০)
সন্তান২ (চ্যাড ম্যাকুইন সহ)[১]
আত্মীয়স্টিভেন আর. ম্যাকুইন (নাতী)
সামরিক কর্মজীবন
আনুগত্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
সার্ভিস/শাখাটেমপ্লেট:Marines
কার্যকাল১৯৪৭–৫০
পদমর্যাদাUSMC-E4.svg করপোরাল[২]

১৯৫৫ সালে আ হ্যাটফুল অব রেইন নাটক দিয়ে তার ব্রডওয়েতে অভিষেক হয়। ১৯৫৬ সালে রবার্ট ওয়াইজ পরিচালিত সামবডি আপ দেয়ার লাইকস মি-এ ছোট চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়। ১৯৬০-এর দশকে তিনি তার অভিনয় জীবনে সফলতা লাভ করেন। ১৯৬৩ সালে তিনি দ্য গ্রেট ইস্কেপ ছবির জন্য তিনি মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব থেকে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। পরের বছর লাভ উইথ দ্য প্রপার স্ট্রেঞ্জার ছবিতে অভিনয়ের জন্য প্রথমবারের মত শ্রেষ্ঠ নাট্যধর্মী অভিনেতা বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। দ্য স্যান্ড পেবলস্‌ (১৯৬৬) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি তার প্রথম শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কার ও দ্বিতীয় গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। তার বাকি দুটি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন আসে দ্য রেইভার্স (১৯৬৯) এবং প্যাপিলন (১৯৭৩) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য। ম্যাককুইন অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হল দ্য সিনিসিনাটি কিড, দ্য থমাস ক্রাউন অ্যাফেয়ার, বুলিট, দ্য গেটাওয়ে, দ্য ম্যাগনিফিসেন্ট সেভেনদ্য টাওয়ারিং ইনফার্নো

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

টেরেন্স স্টিভেন ম্যাকুইন ১৯৩০ সালের ২৪শে মার্চ ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের ইন্ডিয়ানাপোলিসের উপশহর বিচ গ্রোভের সেন্ট ফ্রান্সিস হাসপাতালে জন্মগ্রহণ করেন।[৩] ম্যাকুইন স্কটিশ বংশোদ্ভূত ও রোমান ক্যাথলক ধর্মাবলম্বী হিসেবে বেড়ে ওঠেন।[৪] তার পিতা উইলিয়াম ম্যাকুইন (১৯০৭-১৯৫৮) ছিলেন একটি বার্নস্টর্মিং ফ্লাইং সার্কাসের স্টান্ট পাইলট এবং তার মাতা জুলিয়া অ্যান (জুলিয়ান, জন্ম: ক্রফোর্ড, ১৯১০-১৯৬৫)।[৫] তার পিতা তার মাতার সাথে সাক্ষাতের ছয়মাস পর তাকে ছেড়ে চলে যান।[৬] কয়েকজন জীবনীকার উল্লেখ করেন যে জুলিয়া অ্যান মদ্যপ ছিলেন।[৭][৮][৯] ছোট স্টিভকে লালন পালন করতে অসমর্থ হওয়ায় অ্যান ১৯৩৩ সালে মিজুরির স্ল্যাটারে তার পিতামাতার (ভিক্টর ও লিলিয়ান) কাছে স্টিভকে রেখে চলে যান। মহামন্দা দেখা দিলে তার মাতামহ ও মাতামহীর সাথে ম্যাকুইন স্ল্যাটারে লিলিয়ানের ভাই ক্লদের ফার্মে চলে যান।[৬]

অভিনয় জীবনসম্পাদনা

ম্যাকুইন পেগ ও' মাই হার্ট, দ্য মেম্বার অব দ্য ওয়েডিং, ও টু ফিঙ্গারস অব প্রাইড নাটকে ছোট চরিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৫৫ সালে আ হ্যাটফুল অব রেইন নাটক দিয়ে তার ব্রডওয়েতে অভিষেক হয়, এতে শ্রেষ্ঠাংশে অভিনয় করেন বেন গাজ্জারা।

১৯৫৬ সালে রবার্ট ওয়াইজ পরিচালিত রবার্ট ওয়াইজ পরিচালিত সামবডি আপ দেয়ার লাইকস মি-এ ছোট চরিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়, ছবিটিতে শ্রেষ্ঠাংশে অভিনয় করেন পল নিউম্যান। ১৯৫০-এর দশকের শেষভাগে তিনি নেভার লাভ আ স্ট্রেঞ্জার (১৯৫৮), দ্য ব্লব (১৯৫৮, তার প্রথম কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়) এবং দ্য গ্রেট সেন্ট লুইস ব্যাংক রবারি (১৯৫৯) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

পুরস্কারসম্পাদনা

পুরস্কার বছর পুরস্কারের বিভাগ মনোনীত চলচ্চিত্র ফলাফল সূত্র
একাডেমি পুরস্কার ১৯৬৬ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা দ্য স্যান্ড পেবল্‌স মনোনীত [১০]
গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার ১৯৬৩ শ্রেষ্ঠ নাট্যধর্মী অভিনেতা লাভ উইথ দ্য প্রপার স্ট্রেঞ্জার মনোনীত [১১]
১৯৬৬ শ্রেষ্ঠ নাট্যধর্মী অভিনেতা দ্য স্যান্ড পেবল্‌স মনোনীত [১২]
১৯৬৯ শ্রেষ্ঠ সঙ্গীতধর্মী বা হাস্যরসাত্মক অভিনেতা দ্য রেইভার্স মনোনীত [১৩]
১৯৭৩ শ্রেষ্ঠ নাট্যধর্মী অভিনেতা প্যাপিলন মনোনীত [১৪]
মস্কো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ১৯৬৩ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা দ্য গ্রেট ইস্কেপ বিজয়ী [১৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Terry Leslie McQueen dies at 38"ভ্যারাইটি (ইংরেজি ভাষায়)। ২৩ মার্চ ১৯৯৮। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  2. "McQueen, Steven, Cpl" (ইংরেজি ভাষায়)। www.marines.togetherweserved.com। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  3. "Steve McQueen - Indiana State Board of Health Certificate of Birth"সিনে আর্টিস্টস। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৯ 
  4. ম্যাকে, ক্যাথি (২০ অক্টোবর ১৯৮০)। "Steve McQueen, Stricken with Cancer, Seeks a Cure at a Controversial Mexican Clinic"পিপল (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৯ 
  5. স্পাইজেল ১৯৮৭, পৃ. ৯।
  6. টেরিল ১৯৯৩
  7. স্পাইজেল ১৯৮৭, পৃ. ৭২।
  8. নোলান ১৯৮৪, পৃ. ৭-৮।
  9. ম্যাকুইন টোফেল, নেলি (১৯৮৬)। My Husband, My Friend। পেঙ্গুইন গ্রুপ। পৃষ্ঠা ৪। আইএসবিএন 978-0-451-14735-6 
  10. "The 39th Academy Awards - 1967" (ইংরেজি ভাষায়)। অস্কার। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  11. "Winners & Nominees 1964"গোল্ডেন গ্লোব (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  12. "Winners & Nominees 1967"গোল্ডেন গ্লোব (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  13. "Winners & Nominees 1970"গোল্ডেন গ্লোব (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  14. "Winners & Nominees 1974"গোল্ডেন গ্লোব (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 
  15. "3rd Moscow International Film Festival (1963)"এমআইএফএফ (ইংরেজি ভাষায়)। জানুয়ারি ১৬, ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 

গ্রন্থপঞ্জিসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা