শহীদ নগর উচ্চ বিদ্যালয়

গফরগাঁও উপজেলার একটি উচ্চ বিদ্যালয়

শহীদ নগর উচ্চ বিদ্যালয় ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলাধীন পাইথল ইউনিয়নে শহীদ নগর (গুবরী মৌজা) গ্রামে অবস্থিত। স্কুলটিতে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান করা হয়। সুবিশাল স্কুল মাঠের দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্তে দেউলপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় অবস্থিত। স্কুলের পশ্চিম প্রান্তে বয়ে গেছে ঢাকা ময়মনসিংহ রেললাইন।

শহীদ নগর উচ্চ বিদ্যালয়
Lsdnhs.png
শহীদ নগর উচ্চ বিদ্যালয়ের লোগো
ঠিকানা
শহীদ নগর গ্রাম


,
2245

তথ্য
নীতিবাক্যউন্নত শিক্ষা ও দক্ষতা উন্নয়ন।
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৭০ খ্রী।
প্রতিষ্ঠাতামোহাম্মদ আব্দুল হাই আল হাদী,হাজ্বী আবুল হাসেম, ইউনূছ আলীসহ এলাকার কয়েকজন শিক্ষানুরাগী ব্যক্তি
চেয়ারপারসনজনাব আক্তারুজ্জামান ঢালী
অধ্যক্ষজনাব মোঃ শাহাব উদ্দিন ঢালী
শিক্ষকমণ্ডলী১১
শ্রেণী৬ষ্ঠ-১০ম
লিঙ্গবালক ও বালিকা
বয়সসীমা১০-১৬
শিক্ষার্থী সংখ্যা৯০০
ভাষার মাধ্যমবাংলা
ক্যাম্পাসগফরগাঁও
শিক্ষায়তন৬৭ শতাংশ
ক্যাম্পাসের ধরনউপশহর
রঙসবুজ ও সাদা
অ্যাথলেটিক্সক্রিকেট, ফুটবল, ভলিবল, ব্যাডমিন্টন
ক্রীড়াফুটবল, ক্রিকেট, ভলিবল, ব্যাডমিন্টন, হ্যান্ডবল
Communities servedস্কাউট দল
অন্তর্ভুক্তিময়মনসিংহ বোর্ড
শিক্ষা বোর্ডময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ড

ইতিহাসসম্পাদনা

১৯৭০ সালে মোহাম্মদ আব্দুল হাই আল হাদী, ইউনূছ আলীসহ এলাকার কয়েকজন শিক্ষানুরাগী ব্যক্তি গ্রামে একটি জুনিয়র স্কুল স্থাপনের পরিকল্পনা করেন। গ্রামের শিক্ষার্থীদের শিক্ষাদানের লক্ষ্যে যুগের আলো বিদ্যানিকেতন নামে স্কুলটি যাত্রা শুরু করে। স্কুল নির্মানের জন্য জমি প্রয়োজন হলে তৎকালীন ঐ স্কুলের ভিত্তি ও মাঠ নির্মাণের জন্য জমিদান করেন জনাব হাজী আবুল হাসেম দপ্তরী; প্রথমে ১৫ শতাংশ ও পরে স্কুলের সীমানা বৃদ্ধি করার লক্ষে ৬৭ শতাংশ জমির সম্পূর্ণ অংশ তিনি নিজ অর্থে ক্রয় করে স্কুলের জন্য দান করেন। এছাড়াও স্কুলের টিউবওয়েল, কাঠের বেঞ্চ, স্কুল নির্মানের জন্য টিন ক্রয় করে দেন।

১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের পর স্কুলটি বেশ কিছুদিন বন্ধ থাকে। ১৯৮৯ সালে স্কুলটি একটি মাধ্যমিক স্কুলে উন্নিত করা হয়। শহীদ আব্দুল মান্নানের নামানুসারে ততদিনে গ্রামের নাম হয়ে গেছে শহীদ নগর। শহীদ নগর গ্রমের এই স্কুলটির নতুন নাম রাখা হয় শহীদ নগর উচ্চ বিদ্যালয়। ১৯৭২ সালের পহেলা জানুয়ারী স্কুলটি নিন্ম মাধ্যমিক স্কুল হিসেবে স্বীকৃতি পায় এবং মাধ্যমিক স্কুল হিসেবে যাত্রাশুরু করে পহেলা জানুয়ারী ১৯৮৯ সালে[১]। স্কুলটি এম.পি.ও ভুক্ত হয় ২০০৮ সালে।

বর্তমানে স্কুলটিতে প্রায় ৯০০ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। ১টি প্রশাসনিক ভবন ও ৩ টি একাডেমিক ভবনসহ মোট ৪ টি ভবন রয়েছে। উপজেলা সদর থেকে স্কুলটির দূরত্ব ১৫ কিঃমিঃ।

স্কুলটির এমপিও নম্বর- ১১১৫৬৮। সএই স্কুলের বর্তমান প্রধান শিক্ষক জনাব শাহাব উদ্দিন বিএস.সি।

প্রধান শিক্ষকমণ্ডলীঃসম্পাদনা

  1. জনাব মোহাম্মদ আব্দুল হাই আল হাদী (১৯৭০-১৯৭২)
  2. জনাব মোঃ আব্দুল আজিজ (১৯৮২-১৯৯৬)
  3. জনাব মোঃ জামাল উদ্দিন (১৯৯৬-২০১০)
  4. জনাব মোঃ শাহাব উদ্দিন ঢালী (২০১০-বর্তমান)

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "শহীদ নগর উচ্চ বিদ্যালয়"। ২৯ মার্চ ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 


বহিঃসংযোগসম্পাদনা