শফিকুর রহমান (রাজনীতিবিদ)

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর

ডা. শফিকুর রহমান একজন বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ, চিকিৎসক ও বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর বর্তমান আমির।[১][২] ২০১৬ সালের অক্টোবর মাস থেকে তিনি জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।[৩] ২০১৯ সালের ১২ নভেম্বর তিনি জামায়াতের নতুন আমির নির্বাচিত হন।[৪][৫]

ডা. শফিকুর রহমান
বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমির
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
১৭ অক্টোবর, ২০১৬
পূর্বসূরীমকবুল আহমদ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1958-10-31) ৩১ অক্টোবর ১৯৫৮ (বয়স ৬১)
কুলাউড়া, মৌলভীবাজার
জাতীয়তাবাংলাদেশ বাংলাদেশী
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী
দাম্পত্য সঙ্গীডাঃ আমেনা বেগম (বি. ১৯৮৫)
সন্তান২ মেয়ে ১ ছেলে
জীবিকাচিকিৎসা, ব্যবসা
ধর্মইসলাম
ওয়েবসাইটdr-shafiqurrahman.com

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

শফিকুর রহমান ১৯৫৮ সালের ৩১ অক্টোবর মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মো. আবরু মিয়া ও মাতার নাম খাতিবুন নেছা। ৪ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি তৃতীয়।[৬] শফিকুর রহমান ১৯৭৪ সালে স্থানীয় বরামচল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাশের পর ১৯৭৬ সালে সিলেটের এমসি কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন। ১৯৮৩ সালে সিলেট মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিবিএস ডিগ্রি অর্জন করেন।

রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

শফিকুর রহমান ছাত্রাবস্থায় জাসদ ছাত্রলীগের মাধ্যমে তার রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন এবং ১৯৭৩ সালে ছাত্রলীগে যোগদান করেন।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] ১৯৭৭ সালে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরে যোগদান করেন। সিলেট মেডিকেলে অধ্যয়নরত অবস্থায় তিনি উক্ত প্রথমে উক্ত মেডিকেলের শিবিরের সভাপতি ও পরবর্তিতে সিলেট শাখার সভাপতি হন। ১৯৮৪ সালে মূল দল জামায়াতে ইসলামীতে যোগদানের করে তিনি সিলেটের আমীর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১০ সালে কেন্দ্রীয় সহকারী সেক্রেটারী জেনারেল হিসেবে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে দায়িত্ব গ্রহণের পর ২০১১ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর প্রথমে ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারী জেনারেল পরবর্তীতে ২০১৬ সালে সেক্রেটারী জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব নেন।[৭]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

শফিকুর রহমান ৫ই জানুয়ারি ১৯৮৫ সালে ডাঃ আমেনা বেগমের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। আমেনা বেগম অষ্টম জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এই দম্পতির ২ মেয়ে এবং ১ ছেলে রয়েছে।[৭]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা