চারুকলা

(ললিতকলা থেকে পুনর্নির্দেশিত)

ইউরোপীয় একাডেমিক ঐতিহ্যে, চারুকলা প্রাথমিকভাবে নন্দনতত্ত্ব বা সৌন্দর্যের জন্য বিকশিত হয়, আলংকারিক শিল্প বা ফলিত শিল্প থেকে আলাদা হয়ে, যার মধ্যে কিছু ব্যবহারিক কাজ, যেমন মৃৎশিল্প বা বেশিরভাগ ধাতুর কাজও অন্তর্ভুক্ত। ইতালীয় রেনেসাঁয় বিকশিত নন্দনতত্ত্ব অনুসারে, সর্বোচ্চ শিল্প ছিল সেটি যা শিল্পীর কল্পনার পূর্ণ প্রকাশ এবং প্রদর্শনে সক্ষম, যা কোন ব্যবহারিক বিবেচনার, যেমন একটি কেটলি তৈরি এবং অলংকরণ, দ্বারা সীমাবদ্ধ না। আবার এটিও গুরুত্বপূর্ণ ছিল যে শিল্পকর্ম তৈরিতে যাতে বিশেষ দক্ষতা সম্পন্ন বিভিন্ন ব্যক্তির মধ্যে কাজ ভাগ করে দেওয়া না হয়, যেমন একটি আসবাবপত্র তৈরিতে করা হয়ে থাকে।[১]

পিটার ব্রুগেলের বেবেলের কেল্লা; ১৫৬৩; তৈলচিত্র: ১.১৪ × ১.৫৫ মি; কুন্থইসটোরিস্থেটস জাদুঘর

চারুকলা বা ললিতকলা (ইংরেজি: Fine Arts) বলতে শিল্পকলার বেশ কিছু ধারার একটি দলকে বোঝায়, যার মধ্যে অঙ্কন, ভাস্কর্য, স্থাপত্য, সঙ্গীত, কাব্য, মঞ্চনাটক, নৃত্য, আবৃত্তিঅভিনয় অন্তর্ভুক্ত।[২] বর্তমানে, ললিতকলায় সাধারণভাবে চলচ্চিত্র, ফটোগ্রাফি, ধারণাগত শিল্প, ও প্রিন্টমেকিং যুক্ত হয়।

চারুকলার একটি সংজ্ঞা হল "একটি ভিজ্যুয়াল আর্ট যা প্রাথমিকভাবে নান্দনিকতা এবং বুদ্ধিবৃত্তিক উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয় এবং এর সৌন্দর্য এবং অর্থবহতার ভিত্তিতে বিচার করা হয়, বিশেষ করে, চিত্রকলা, ভাস্কর্য, অঙ্কন, জলরঙ, গ্রাফিক্স এবং স্থাপত্য এগুলো।"[৩] এদিক থেকে চিন্তা করলে চারুশিল্প এবং আলংকরিক বা ফলিত শিল্পকলার মধ্যে কিছু মৌলিক পার্থক্য রয়েছে। যতদূর শিল্পের ভোক্তাদের কথা ভাবা হয়, নান্দনিক গুণাবলীর উপলব্ধির জন্য একটি পরিমার্জিত বিচার যা সাধারণত ভাল রুচিবোধ হিসেবে উল্লেখ্য, তা জনপ্রিয় শিল্প এবং বিনোদন থেকে চারুশিল্পকে আলাদা করে।[৪]

কাজিমীর মালেভিচ, কৃষ্ণ বর্গ, ১৯১৫, লিলেনে তৈলচিত্র, ৭৯.৫ x ৭৯.৫ সেমি., ট্রেটিয়াকভ গ্যালারি, মস্কো.[৫]

"চারু" শব্দটি দ্বারা শিল্পকর্মের গুণমানকে বোঝায় না, বরং ঐতিহ্যগত পশ্চিম ইউরোপীয় অনুশাসন অনুসারে শৃঙ্খলা ও বিশুদ্ধতাকে নির্দেশ করে।[৬] তবে স্থাপত্য ব্যতীত, যেখানে একটি ব্যবহারিক উপযোগীতা গৃহীত হয়েছে। এই সংজ্ঞায় মূলত "উপযোগীতার" প্রয়োগ বা আলংকারিক শিল্পগুলি বাদ দেয়া হয়েছে এবং কারুশিল্প হিসাবে বিবেচিত পণ্যগুলিকেও বাদ দেয়া হয়। তবে সমসাময়িক অনুশীলনে, এই পার্থক্য এবং সীমাবদ্ধতাগুলি কার্যকরীভাবে অর্থহীন, কারণ এখন শিল্পীর ধারণা বা অভিপ্রায়কে প্রাধান্য দেওয়া হয়, তা যে মাধ্যমেই প্রকাশ করা হোক না কেন।[৭]

রেনেসাঁর পর থেকে চারুশিল্প শব্দটি সাধারণত শুধুমাত্র পশ্চিমা শিল্পের ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়, যদিও অনুরূপ ধারা অন্যান্য সংস্কৃতির শিল্পে, বিশেষ করে পূর্ব এশিয়ার শিল্পের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হতে পারে। "চারুশিল্প" কে কখনো কখনো "প্রধান শিল্প" ও বলা হয়, যেখানে "অপ্রধান শিল্প" দ্বারা আলংকারিক শিল্পকে বোঝানো হয়ে থাকে। তবে এই ধারণা মূলত মধ্যযুগীয় এবং প্রাচীন শিল্পের জন্য প্রযোজ্য।

উৎপত্তি, ইতিহাস এবং বিকাশসম্পাদনা

কিছু লেখকের মতে, চারুশিল্পে স্বতন্ত্র শ্রেণিভাগের ধারণাটি পশ্চিমা আধুনিক যুগের একটি উদ্ভাবন। ল্যারি শাইনার তার দ্যা ইনভেনশন অফ আর্ট: এ কালচারাল হিস্ট্রি (২০০৩) বইয়ে আঠারো শতকের এর উদ্ভাবন সনাক্ত করেছেন: "অষ্টাদশ শতাব্দীর আগে পশ্চিমে একটি ঐতিহ্যগত "শিল্প ব্যবস্থা" ছিল। (অন্যান্য ঐতিহ্যগত সংস্কৃতিতে এখনও একই রকম পদ্ধতি সনাক্ত করা যায়।) সেই শিল্প ব্যবস্থায়, একজন শিল্পী বা কারিগর ছিলেন একজন দক্ষ নির্মাতা বা অনুশীলনকারী, শিল্পকর্ম ছিল তার দক্ষ কর্মের পণ্য এবং সে শিল্পের উপলব্ধি তার জীবনের বাকি অংশ জুড়ে অবিচ্ছেদ্যভাবে যুক্ত ছিল। "শিল্প" দ্বারা গ্রীক শব্দ "টেকনি" বা ইংরেজিতে "দক্ষতা" এর মতো প্রায় একই জিনিসকে বোঝায়, যা "যুদ্ধ শিল্প", "প্রেম শিল্প" এবং "চিকিৎসা শিল্প[৮]" এর মতো বাক্যাংশেও টিকে আছে। পল অস্কার ক্রিস্টেলার, পিয়ের বোর্দিউ এবং টেরি ঈগলটন দ্বারাও অনুরূপ ধারণা প্রকাশ করা হয়েছে (দ্যা আইডিওলজি অফ দ্য অ্যাসথেটিক )। যদিও উদ্ভাবনের বিষয়টি আরো আগেই বলা হয়, ইতালীয় রেনেসাঁয়; অ্যান্টনি ব্লান্ট উল্লেখ করেছেন আর্টি ডি ডিজেগনো শব্দটির কথা, যার দ্বারা ১৬ শতকের মাঝামাঝি সময়ে ইতালিতে একটি অনুরূপ ধারণার উদ্ভবের কথা বলা হয়। [৯]

কিন্তু যুক্তি দেওয়া যেতে পারে যে ধ্রুপদী সভ্যতা, যে সময়ের শিল্প বিষয়ক খুব কম তাত্ত্বিক লেখা টিকে আছে, সেসময়ও একই রকম পার্থক্য ছিল। সাহিত্য উৎসগুলোতে সংরক্ষিত শিল্পীদের নামগুলোতে গ্রীক চিত্রশিল্পী, ভাস্কর এবং রত্ন খোদাইকারীদের উল্লেখ পাওয়া যায়। তাদের মধ্যে অনেকেই বেস বিখ্যাত ছিলেন এবং তাদের মৃত্যুর পরও শতাব্দির পর শতাব্দি ধরে তাঁরে অনুলিপি ও স্মরণ করা হয়। প্লিনি দ্য এল্ডারে স্বতন্ত্র শৈল্পিক প্রতিভা, যা "চারু" এবং অন্যান্য শিল্পের মধ্যে পার্থক্যের জন্য রেনেসাঁর তাত্ত্বিক ভিত্তিগুলোর একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিল তার উল্লেখ পাওয়া যায়। অন্যান্য ধরণের বস্তু, বিশেষ করে প্রাচীন গ্রীক মৃৎপাত্র, প্রায়শই তাদের প্রস্তুতকারক বা কর্মশালার মালিক দ্বারা স্বাক্ষরিত হয়ে থাকত খুব সম্ভবত তাদের পণ্যের বিজ্ঞাপনের জন্য।

 
অ্যাপেলেস পেইন্টিং ক্যাম্পাসপে, উইলেম ভ্যান হেচ্টের; ১৬৩০; মৌরিশুইস

জর্জ কুবলার এবং অন্যরা ১৮৮০ সালের দিকে "চারুকলার" পতনের সময় বলে উল্লেখ করেছেন। ১৯০০ সাল নাগাদ যখন এটি "হালফ্যাশনের বাইরে" চলে গিয়েছিল, তখন লোকশিল্পকেও তাৎপর্যপূর্ণ হিসেবে গণ্য করা হতে থাকে। [১০] অবশেষে, শিল্প তত্ত্বে আগ্রহী চেনাশোনাগুলিতে, ""সূক্ষ্ম শিল্প" প্রায় ১৯২০ সাল নাগাদ শিল্প নকশার ব্যাখ্যাকারীদের দ্বারা ব্যবহার থেকে বিতাড়িত হয়েছিল ... যারা শিল্পকর্ম এবং দরকারী বস্তুর জন্য দ্বিগুণ মানের বিচারের বিরোধিতা করেছিল"। [১১] এটি তাত্ত্বিকদের মধ্যে ছিল; শিল্প বাণিজ্য এবং জনপ্রিয় মতামত ধরার জন্য এটি অনেক বেশি সময় নিয়েছে। যাইহোক, 19 শতকের শেষের দিকে এবং 20 শতকের প্রথম দিকে একই সময়ে, শিল্পের বাজারে দামের গতিবিধি বিপরীত দিকে ছিল, যেখানে চারুকলার কাজগুলি আলংকারিক শিল্পগুলির থেকে অনেক এগিয়ে ছিল।

সাংস্কৃতিক দৃষ্টিকোণসম্পাদনা

 
ওয়াং যিঝির রাজহংস দর্শন; কিয়ান জুয়াং; ১২৩৫-১৩০৬; হ্যান্ডস্ক্রোল(কাগজে কালি, রঙ এবং স্বর্ণ); ৯ x ৩৬ ইঞ্চি; মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অফ আর্ট

শিল্পকলা এবং আলংকারিক শিল্প বা কারুশিল্পের ধারণাগত বিচ্ছেদ যা প্রায়শই ইউরোপ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আধিপত্য বিস্তার করত, অন্যান্য সকল সংস্কৃতিগুলোর ক্ষেত্রেও ঠিক এমনটি বলা যায় না।

ভিজ্যুয়াল আর্টসম্পাদনা

দ্বিমাত্রিক কাজসম্পাদনা

চিত্রাঙ্কনসম্পাদনা

চারুশিল্প হিসেবে চিত্রাঙ্কন দ্বারা একটি সমতল পৃষ্ঠে বিভিন্ন ধরণের রঙ্গের প্রয়োগ বোঝায় (তবে কোনো ভাস্কর্য বা মৃৎপাত্রের একটি অংশের আঁকা এর অন্তর্ভুক্ত নয়)। প্রাগৈতিহাসিক চিত্রাঙ্কন যেগুলো টিকে আছে এখনো তা মূলত প্রাকৃতিক শিলা পৃষ্ঠে আঁকা হয়েছিল এবং দেয়াল চিত্র, বিশেষ করে ফ্রেস্কো কৌশলে ভেজা প্লাস্টারের ওপরের চিত্রকর্মগুলো সাম্প্রতিককাল পর্যন্ত একটি প্রধান রূপ হিসেবে ছিল। কাঠের প্যানেল বা ক্যানভাসে পোর্টেবল চিত্রকর্মগুলো বেশ কয়েক শতাব্দী ধরে পশ্চিমা বিশ্বে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত ছিল, যার বেশিরভাগ পাওয়া যায় টেম্পেরা বা তেলরঙ রূপে।

মোজাইকসম্পাদনা

মোজাইক হল টেসেরা নামক ছোট ছোট পাথর বা কাচের টুকরো দিয়ে তৈরি করা ছবি। ছবিগুলো আলংকরিক বা দাপ্তরিক উভয়ই হতে পারে। প্রাচীন গ্রীকরোমানরা বাস্তবসম্মত মোজাইক তৈরি করত।

প্রিন্টমেকিংসম্পাদনা

ক্যালিগ্রাফিসম্পাদনা

ফটোগ্রাফিসম্পাদনা

ত্রিমাত্রিক কাজসম্পাদনা

স্থাপত্যসম্পাদনা

মৃত্শিল্পসম্পাদনা

ভাস্কর্যসম্পাদনা

কনসেপচুয়াল আর্টসম্পাদনা

প্রদর্শন শিল্পসম্পাদনা

সঙ্গীতসম্পাদনা

 
পিওতর ইলিচ চাইকভ্‌স্কি (১৮৪০-১৮৯৬), বিখ্যাত সুরকার

সঙ্গীত একটি শিল্প এবং সাংস্কৃতিক কার্য যা সুসংবদ্ধ শব্দ ও নৈশব্দের সমন্বয়ে মানব চিত্তে বিনোদন সৃষ্টি করতে সক্ষম। এর সাধারণ উপাদানগুলি হল পিচ (যা সুর এবং সুরকে নিয়ন্ত্রণ করে), তাল (এবং এর সাথে সম্পর্কিত ধারণা- টেম্পো, মিটার এবং আর্টিকুলেশন), ডাইনামিক্স (তীব্রতা এবং কোমলতা), এবং কাঠের টেক্সচারের ধ্বনির গুণাবলী (যা কখনও কখনও একটি বাদ্যযন্ত্রের "রঙ" হিসেবে বলা হয়ে থাকে)। সঙ্গীতের বিভিন্ন শৈলী বা ধরন এই উপাদানগুলি বিভিন্নভাবে ব্যবহার করে থাকে।

গান গাওয়া থেকে র‍্যাপিং পর্যন্ত বিস্তর যন্ত্র এবং কন্ঠ কৌশলের মাধ্যমে সঙ্গীত পরিবেশিত হয়; এছাড়াও শুধুমাত্র যন্ত্রসঙ্গীত, যন্ত্রসঙ্গীত ব্যতীত খালি গলায় গান এবং দুইয়ের মিসেলেও সঙ্গীত পরিবেশিত হয়।

নৃত্যসম্পাদনা

থিয়েটারসম্পাদনা

চলচ্চিত্রসম্পাদনা

 
সত্যজিৎ রায়, বাঙালি চলচ্চিত্র পরিচালক

কাব্যসম্পাদনা

কবিতা (শব্দটি গ্রীক শব্দ ποίησις (poiesis, "to make") এর একটি রূপ থেকে উদ্ভূত) সাহিত্যের একটি রূপ যা ভাষার নান্দনিক এবং ছন্দময় গুণাবলী ব্যবহার করে - যেমন শব্দ প্রতীকবাদ, ধ্বনিতত্ত্ব এবং মিটার - এর পাশাপাশি অর্থ জাগানোর জন্য , অথবা এর জায়গায়, প্রসায়িক দৃশ্যমান অর্থ।[১২]

অন্যান্যসম্পাদনা

 
একটি অরিজুরু
  • অরিগামি – বিগত শতাব্দীতে শিল্পী এবং বিজ্ঞানীদের মাঝে সাথে কোনো কিছুর ভাঁজ ও তার আচরণ বোঝার ক্ষেত্রে নতুন আগ্রহের দেখা মিলেছে। অরিগামি অন্যান্য শিল্পের থেকে আলাদা: চিত্রকর্মে যেমন পদার্থ যোগ করার প্রয়োজন হয়, বা ভাস্কর্যে বিয়োগ করতে হয়, অরিগামিতে মূলত পদার্থের (বেশিরভাগ ক্ষেত্রে কাগজের) বাহ্যিক আকৃতির রূপান্তর হয়। অরিগামি শিল্পীরা এই শিল্পের সীমাকে ক্রমবর্ধমানভাবে আরো উন্নয়ণের পথে ঠেলে যাচ্ছে যা শেষ পর্যন্ত বিভিন্ন আধুনিক প্রযুক্তি এবং মহাকাশযানে ব্যবহার হচ্ছে। এর কম্পিউটেশনাল দিক এবং অধিক পীড়নসহ্য ক্ষমতা (সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম দ্বারা পরিচালিত) অরিগামিকে একবিংশ শতাব্দির এক দৃষ্টান্তমূলক শিল্পে পরিণত করছে।[১৩][১৪][১৫]

একাডেমিক শিক্ষাসম্পাদনা

আফ্রিকাসম্পাদনা

এশিয়াসম্পাদনা

  • Kyoto City University of Arts, Japan ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৮ মে ২০১৯ তারিখে Offers graduate degrees in Painting, Printmaking, Concept and Media Planning, Sculpture, and Design (Visual, Environmental, and Product), Crafts (Ceramics, Dying and Weaving, and Urushi Lacquering); also the Science of Art and Conservation.
  • Tokyo University of the Arts The art school offers graduate degrees in Painting (Japanese and Oil), Sculpture, Crafts, Design, Architecture, Intermedia Art, Aesthetics and Art History. The music and film schools are separate.
  • Korean National University Music, Drama, Dance, Film, Traditional Arts (Korean Music, Dance and Performing Arts), Design, Architecture, Art Theory, Visual Arts Dept. of Fine Arts (painting, sculpture, photography, 3D laser holography, Video, interactivity, pottery and glass).
  • The Guangzhou Academy of Fine Arts is a Chinese national university based in Guangzhou which provides Fine Arts and Design Doctoral, Master and bachelor's degrees.
  • Academy of Fine Arts, Kolkata is a Fine Art college in the Indian city of Kolkata, West Bengal.
  • Lebanese Academy of Fine Arts is a prestigious fine arts college originally founded in 1937 by a group of young classical musicians in Beirut, in 1988 it was merged with University of Balamand. ALBA is considered a Pioneering Institute in the region with exceptional educational expertise and world-renowned lecturers and instructors.[১৬]

ইউরোপসম্পাদনা

দক্ষিণ আমেরিকাসম্পাদনা

  • Brazil: The Institute for the Arts in Brazilia has departments for theater, visual arts, industrial design, and music.[১৭]

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসম্পাদনা

In the United States an academic course of study in fine art may include the Bachelor of Arts in Fine Art, or a Bachelor of Fine Arts, and/or a Master of Fine Arts degree – traditionally the terminal degree in the field. Doctor of Fine Arts degrees —earned, as opposed to honorary degrees— have begun to emerge at some US academic institutions, however. Major schools of art in the US:

আরো দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Blunt, 48–55
  2. The Project Gutenberg EBook of Encyclopaedia Britannica10 (11 সংস্করণ)। ১৯১১। 
  3. "Fine art"। Dictionary.reference.com। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  4. "Aesthetic Judgment"The Stanford Encyclopedia of Philosophy। ২২ জুলাই ২০১০। 
  5. Drutt, Matthew; Malevich, Kazimir Severinovich; Gurianova, J. (২০০৩)। Malevich, Black Square, 1915, Guggenheim New York, exhibition, 2003-2004আইএসবিএন 9780892072651। সংগ্রহের তারিখ ১৮ মার্চ ২০১৪ 
  6. CLOWNEY, DAVID (২০১১)। "Definitions of Art and Fine Art's Historical Origins"The Journal of Aesthetics and Art Criticism69 (3): 309–320। আইএসএসএন 0021-8529জেস্টোর 23883666ডিওআই:10.1111/j.1540-6245.2011.01474.x 
  7. Maraffi, Topher। "Using New Media for Practice-based Fine Arts Research in the Classroom" (PDF)। University of South Carolina Beaufort। 
  8. Clowney, David। "A Third System of the Arts? An Exploration of Some Ideas from Larry Shiner's The Invention of Art: A Cultural History"। সংগ্রহের তারিখ ৭ মে ২০১৩ 
  9. Blunt, 55
  10. Guerzoni, G. (২০১১)। Apollo and Vulcan: The Art Markets in Italy, 1400–1700। Michigan State University Press। পৃষ্ঠা 27। আইএসবিএন 978-1-60917-361-6। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুলাই ২০২০ 
  11. Kubler, George (1962). The Shape of Time : Remarks on the History of Things. New Haven and London: Yale University Press.Kubler, pp. 14–15, google books
  12. "Poetry"Merriam-Webster। Merriam-Webster, Inc.। ২০১৩। 
  13. Gould, Vanessa। "Between the Folds, a documentary film" 
  14. McArthur, Meher (২০১২)। Folding Paper: The Infinite Possibilities of Origami। Tuttle Publishing। আইএসবিএন 978-0804843386 
  15. McArthur, Meher (২০২০)। New Expressions in Origami Art। Tuttle Publishing। আইএসবিএন 978-0804853453 
  16. "Alexis Boutros, le fondateur de l'Alba – Historique – À propos de l'Alba – Académie Libanaise des Beaux-Arts (Alba) – Université de Balamand"www.alba.edu.lb। ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ মার্চ ২০১৮ 
  17. "Institute for the Arts, Brazilia"। ২২ জুলাই ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  18. "Yale University School of Art"। Art.yale.edu। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  19. "Division of Fine Arts RISD"। Risd.edu। ১৩ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  20. "School of the Art Institute of Chicago"। Saic.edu। ২৫ মে ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  21. "UCLA Department of Art"। Art.ucla.edu। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  22. "California Institute of the Arts Programs"। Calarts.edu। ২০ ডিসেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  23. "Carnegie Mellon College of Fine Arts"। .cfa.cmu.edu। ১৩ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  24. "Welcome to Cranbrook Academy of Art"। Cranbrookart.edu। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  25. "Maryland Institute College of Art"। Mica.edu। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  26. "B.F.A. Program"The Ailey School। ১২ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০২২ 
  27. "Columbia University School of the Arts"। Arts.columbia.edu। ১২ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৪ 
  28. "Still 'best reputation' for Juilliard at 100"The Washington Times। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  29. Frank Rich (২০০৩)। Juilliard । Harry N. Abrams। পৃষ্ঠা 10আইএসবিএন 0-8109-3536-8Juilliard grew up with both the country and its burgeoning cultural capital of New York to become an internationally recognized synonym for the pinnacle of artistic achievement. 
  30. "The Top 25 Drama Schools in the World"The Hollywood Reporter। ৩০ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩ 
  31. "ArtCenter College of Design Overall Rankings – US News Best Colleges"U.S. News & World Report। ৩ অক্টোবর ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০২০ 

আরও পড়ুনসম্পাদনা