রিভ সিস্টেমস

বাংলাদেশি সফটওয়্যার সুবিধা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান

রিভ সিস্টেমস একটি বেসরকারি বাংলাদেশী আইপি কমিউনিকেশন সফটওয়্যার সলিউশন প্রতিষ্ঠান।[১] এটি ২০০৩ সালে ঢাকায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং ২০০৮ সালে এর সদর দপ্তর সিঙ্গাপুরে স্থানান্তর করা হয়।[২] রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, হংকং, কেনিয়া, লেবানন ও যুক্তরাজ্যে শাখাসহ প্রতিষ্ঠানটির সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট সেন্টার বাংলাদেশ ও ভারতে।

রিভ সিস্টেমস
প্রাইভেট (বেসরকারি)
শিল্পটেলিযোগাযোগ
প্রতিষ্ঠাকাল২০০৩; ঢাকা, বাংলাদেশ
প্রতিষ্ঠাতাএম রেজাউল হাসান
সদরদপ্তরসিঙ্গাপুরে প্রধান কার্যালয়; বাংলাদেশ ও ভারতে সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট সেন্টার এবং শাখা অফিস রাশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, হংকং, কেনিয়া, লেবানন ও যুক্তরাজ্যে।
বাণিজ্য অঞ্চল
বৈশ্বিক
প্রধান ব্যক্তি
এম রেজাউল হাসান (গ্রুপ সিইও)
আজমত ইকবাল (সিইও)
মমি মনজিল (সিটিও)
রায়হান হোসেন (হেড-গ্লোবাল সেলস)
পণ্যসমূহমোবাইল ভিওআইপি, সফটসুইচ ও বিলিং, এবং ব্যান্ডউইথ অপটিমাইজেশন সফটওয়্যার
ওয়েবসাইটrevesoft.com

বিশ্বের ৭৮টি দেশে কার্যক্রম পরিচালনা করা রিভ সিস্টেমসের মোট কর্মীসংখ্যা ৮৬০ জনেরও বেশি। প্রতিষ্ঠানটি বর্তমানে ২৬০০’রও বেশি ভিওআইপি ও টেলিকমিউনিকেশন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করছে।

ইতিহাসসম্পাদনা

 
সিংগাপুরে রিভ সিস্টেমস-এর প্রধান কার্যালয়।

রিভ সিস্টেমস-এর যাত্রা শুরু হয় ২০০৩ সালে ঢাকায়।[৩] খিলগাঁও এলাকার একটি ছোট গ্যারেজে ৬ জন কর্মী নিয়ে এটি যাত্রা শুরু করে।[৪] পরবর্তীতে এর অফিস খিলগাঁও থেকে মধ্য বাড্ডা স্থানান্তর করা হয়, পাশাপাশি বনশ্রীতে স্থাপন করা হয় সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট সেন্টার। আইপি কমিউনিকেশন ইন্ডাস্ট্রির জন্য সফটওয়্যার তৈরির লক্ষ্য নিয়ে কাজ শুরু করে পরবর্তীতে রিভ সিস্টেমস বৈশ্বিকভাবে ভিওআইপি ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম বৃহৎ সমাধানদাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিষ্ঠা পায়। ২০০৫-এ কোম্পানিটি সর্বপ্রথম ‘আইটেল বিলিং’ নামে সম্পুর্ণ অটোম্যাটেড বিলিং সলিউশন সফটওয়্যার অবমুক্ত করে।

২০০৮-এর ৩রা এপ্রিল প্রতিষ্ঠানটির সদর দপ্তর সিঙ্গাপুরে স্থানান্তর করা হয়, আর এসময় অবমুক্ত করা হয় মোবাইল ভিওআইপি সার্ভিস, যা মধ্যপ্রাচ্যের ভিওআইপি ইন্ডাস্ট্রিতে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন নিয়ে আসে। এর আগ পর্যন্ত সেখানকার অধিবাসীদের লং ডিস্টেন্স কল করার জন্য ঝামেলা পোহাতে হতো ও তা ছিল অনেক ব্যয় সাপেক্ষ।

রিভ সিস্টেমস ২০০৯-এর ১৪ই ডিসেম্বর ভারতে আরেকটি নতুন শাখা অফিস প্রতিষ্ঠা করে এবং এর দায়িত্ব পান সঞ্জিত চ্যাটার্জি। ২০১০ সালে রিভ সিস্টেমস ‘আইটেল সুইচ প্লাস’ নামে একটি ক্যারিয়ার গ্রেড সফটসুইচ অবমুক্ত করে, যার সঙ্গে বিলিং সলিউশন ও ইন্টার্যাসক্টিভ ভয়েস রেসপন্স সমন্বিত রাখা হয়। এছাড়াও টেলিকমিউনিকেশন ও সফটওয়্যার সমাধানদাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে রিভ সিস্টেমসের চূড়ান্ত ব্যবহারকারী অ্যাপ্লিকেশন, মিডলওয়্যারও ও সম্পূর্ণ পণ্য তালিকা রয়েছে।

সহযোগী প্রতিষ্ঠানসমূহসম্পাদনা

রিভ সিস্টেমসের আরও চারটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান রয়েছে, এগুলো হলোঃ

  1. ইনানী - একটি আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার, ২০০৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে সিঙ্গাপুরে প্রতিষ্ঠিত।
  2. সংবার্ড টেলিকম লিমিটেড - একটি আইজিডব্লিউ কোম্পানি, ২০১২ সালের জুনে বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত।
  3. লা রিভ ফ্যাশন হাউজ - ২০০৯ সালের আগস্টে বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত।
  4. রিভ প্রোপার্টিজ - ২০১১ সালের এপ্রিলে বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠিত।

পুরস্কারসম্পাদনা

২০১২
  • রেড হেরিং’স টপ হান্ড্রেড গ্লোবাল অ্যাওয়ার্ড।[৪][৫]
  • রেড হেরিং’স টপ হান্ড্রেড এশিয়া অ্যাওয়ার্ড।[৬]
  • আইটেল মোবাইল হাইব্রিড ডায়ালারের জন্য টিএমসির পক্ষ থেকে ইন্টারনেট টেলিফোনি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড।[৭]
  • গ্লোবাল টেকনোলোজি লিডার হিসেবে এনজিএন অ্যাওয়ার্ড।[৭]
২০১১
  • অনবদ্য আইটেল সুইচ প্লাস উদ্ভাবনের স্বীকৃতি হিসেবে ইউনিফাইড কমিউনিকেশনস এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড অর্জন।[৭]
  • টিএমসির কাছ থেকে আইটেল মোবাইল টপ আপের ইন্টারনেট টেলিফোনি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড।
২০১০
  • আইটেল বাইট সেভার কমিউনিকেশনস সলিউশন ঘোষিত ‘প্রোডাক্ট অফ দ্যা ইয়ার’ অ্যাওয়ার্ড অর্জন।
  • আইটেল মোবাইল ডায়ালার এক্সপ্রেসের আইপি টেলিফোনি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড অর্জন।
  • আইটেল মোবাইল কল ব্যাক ডায়ালারের ইনোভেশন টিএমসি ল্যাবস ২০১০ অ্যাওয়ার্ড অর্জন।

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "BD to earn billion dollars from outsourcing" (ইংরেজি ভাষায়)। http://news.priyo.com/। ১৬ জুন ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৫  |প্রকাশক= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  2. "REVE Systems Laying down the path for the Next Stage of Telephony" (ইংরেজি ভাষায়)। cioreview। Friday, February 21, 2014। সংগ্রহের তারিখ 3 June 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  3. "REVE Systems launches 'REVE Session Controller'; Carrier Grade IP Switching Platform" (ইংরেজি ভাষায়)। The Daily Star। Monday, October 7, 2013। সংগ্রহের তারিখ 3 June 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  4. "'গ্যারেজ কোম্পানি' থেকে বহুজাতিক"। প্রথম আলো। ৩ জুন ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৫ 
  5. "REVE Systems receives Red Herring top 100 award" (ইংরেজি ভাষায়)। The Daily Star। Friday, December 14, 2012। সংগ্রহের তারিখ 3 June 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  6. "REVE Systems wins Red Herring's award" (ইংরেজি ভাষায়)। The Daily Star। Wednesday, September 26, 2012। সংগ্রহের তারিখ 3 June 2015  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  7. "REVE`s innovation for landline business" (ইংরেজি ভাষায়)। telecomnews.com.bd। ২৮ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৫ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা