রাজা গণেশ (পঞ্চদশ শতাব্দী) (শাসনকাল ১৪১৫) ছিলেন বাংলার একজন হিন্দু শাসক। তিনি বাংলার ইলিয়াস শাহি রাজবংশকে ক্ষমতাচ্যুত করে ক্ষমতায় আসেন।[২] তার প্রতিষ্ঠিত রাজবংশ ১৪১৫-১৪৩৫ সময়কালে বাংলা শাসন করে।[৩] তার পুত্র সুলতান জালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহর মুদ্রায় তার নাম কানস রাউ বা কানস শাহ বলে উল্লেখ রয়েছে।[৪] ইন্দো-পারসিয়ান ইতিহাসবিদরা তার রাজা কংস বা কানসি বলে উল্লেখ করেছেন।[৫] আধুনিক কিছু পণ্ডিত তাকে দনুজমর্দন দেব বলে উল্লেখ করলেও এই পরিচয়টি সর্বত্র স্বীকৃত নয়।[৬]

রাজা গণেশ
Raja Ganesha.jpg
১৯-শতকের একটি বাংলা কর্ম "রাজা গণেশ" এর প্রচ্ছদে রাজা গণেশের স্কেচ।
বাংলার রাজা
রাজত্ব১৪১৪–১৪১৫
পূর্বসূরিআলাউদ্দিন ফিরোজ শাহ
উত্তরসূরিজালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহ
বাংলার রাজা (দ্বিতীয় দফা)
রাজত্ব১৪১৬–১৪১৮
পূর্বসূরিজালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহ
উত্তরসূরিজালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহ
দাম্পত্য সঙ্গীফুলজানি[১]
বংশধরজালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহ
রাজবংশগণেশ রাজবংশ

জন্ম ও শৈশবসম্পাদনা

রিয়াজ-উস-সালাতিন অনুসারে রাজা গণেশ বাংলাদেশের ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার ভাতুরিয়ায়[৭] জমিদার ছিলেন এবং ফ্রান্সিস বুচানন হ্যামিল্টনের মতে তিনি উত্তরবঙ্গের দিনাজপুরের হাকিম (গভর্নর) ছিলেন।[৮] সাম্প্রতিককালে তাকে দীর্ঘ ৪০০ বছরের এক জমিদার পরিবারের সদস্য হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।[৯] সেখানে এখনো রাজা গণেশের গড় বিরাজমান।[১০]

শাসনকালসম্পাদনা

সুলতান প্রথম আলাউদ্দিন ফিরোজ শাহকে ক্ষমতাচ্যুত করে রাজা গণেশ মসনদে বসেন। তিনি মুসলিমদের উপর অত্যাচার শুরু করেন। মুসলিমরা শেখ নূর কুতুব আলমের শরণাপন্ন হলে তিনি জৌনপুরের সুলতান ইবরাহিম শর্কীকে বাংলা আক্রমণ করে গণেশকে ক্ষমতাচ্যুত করার আহ্বান জানান। ইবরাহিম শর্কী বাংলা আক্রমণ করার পর নূর কুতুব আলম তাকে ইসলাম গ্রহণ করতে বলেন। রাজা গণেশের পুত্র যদু ইসলাম গ্রহণ করে জালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহ নামধারণ করে সুলতান দখল করে এবং নিজের নামে মুদ্রা চালু করে। জৌনপুরের সেনারা ফিরে যাওয়ার পর গণেশ তার পুত্রকে সরিয়ে নিজে পুনরায় রাজ্য লাভ করেন। কিন্তু শীঘ্রই জালালউদ্দিন তাকে হত্যা করে রাজ্য দখল করে।[১১]

রাজা গণেশ
রাজা গণেশের রাজবংশ
পূর্বসূরী
প্রথম আলাউদ্দিন ফিরোজ শাহ
বাংলার শাসক
১৪১৪–১৪১৫
উত্তরসূরী
জালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহ
পূর্বসূরী
জালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহ
বাংলার শাসক
১৪১৬–১৪১৮
উত্তরসূরী
জালালউদ্দিন মুহাম্মদ শাহ

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Jagadish Narayan Sarkar, Hindu-Muslim relations in Bengal: medieval period (1985), p.52
  2. History of the Muslims of Bengal (২য় সংস্করণ)। Dhaka। আইএসবিএন 984-06-9024-8ওসিএলসি 942533306 
  3. Majumdar, R.C. (ed.) (2006). The Delhi Sultanate, Mumbai: Bharatiya Vidya Bhavan, p.827
  4. Eaton, Richard Maxwell. (১৯৯৩)। The Rise of Islam and the Bengal Frontier, 1204-1760। Berkeley: California University Press। পৃষ্ঠা 60,60ff। আইএসবিএন 0-520-08077-7 
  5. Majumdar, R.C. (ed.) (2006). The Delhi Sultanate, Mumbai: Bharatiya Vidya Bhavan, pp.205-8
  6. Mahajan, V.D. (1991). History of Medieval India (Muslim Rule in India), Part I, New Delhi: S. Chand, আইএসবিএন ৮১-২১৯-০৩৬৪-৫, p.275
  7. সুবোধ সেনগুপ্ত ও অঞ্জলি বসু সম্পাদিত, সংসদ বাঙালি চরিতাভিধান, প্রথম খণ্ড, সাহিত্য সংসদ, কলকাতা, সংশোধিত ও সংযোজিত পঞ্চম সংস্করণ, দ্বিতীয় মুদ্রণ, নভেম্বর ২০১৩, পৃষ্ঠা১৮১, আইএসবিএন ৯৭৮-৮১-৭৯৫৫-১৩৫-৬
  8. Buchanan (Hamilton), Francis. (১৮৩৩)। A Geographical, Statistical and Historical Description of the District or Zila of Dinajpur in the Province or Soubah of Bengal। Calcutta: Baptist Mission Press। পৃষ্ঠা 23–4। 
  9. Eaton, Richard Maxwell. (১৯৯৩)। The Rise of Islam and the Bengal Frontier, 1204-1760। Berkeley: California University Press। পৃষ্ঠা 51। আইএসবিএন 0-520-08077-7 
  10. "ভাতুরিয়া চব্বিশ পরগনা রাজা গণেশের স্মৃতি বিলুপ্তি পথে"The Daily Sangram। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৯ 
  11. "রাজা গণেশ - বাংলাপিডিয়া"bn.banglapedia.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-২৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা