মে মাদাম (তামিল: மே மாதம், অনুবাদ 'মে মাস') ১৯৯৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি তামিল চলচ্চিত্র যেটি পরিচালনা করেছিলেন ভেনাস বলু এবং সঙ্গীত পরিচালনায় ছিলেন এ আর রহমান। চলচ্চিত্রটির মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন বিনীত এবং সোনালী কুলকার্নী। চলচ্চিত্রটির আর্ট ডাইরেকশনে ছিলেন থোট্টা থারানি।

মে মাদাম
মে মাদাম চলচ্চিত্রের পোস্টার.jpeg
পরিচালকবলু
প্রযোজকজি. ভেঙ্কাটেশ্বরন
রচয়িতাবলু
ক্রেজি মোহন (সংলাপ)
শ্রেষ্ঠাংশেবিনীত
সোনালী কুলকার্নী
মনোরমা
সুরকারএ আর রহমান
চিত্রগ্রাহকপি সি শ্রীরাম
সম্পাদকবি লেনিন
ভি টি বিজয়ন
প্রযোজনা
কোম্পানি
জি ভি ফিল্মস
পরিবেশকজি ভি ফিল্মস
মুক্তি৯ সেপ্টেম্বর ১৯৯৪
দেশভারত
ভাষাতামিল

কাহিনীখণ্ডসম্পাদনা

সন্ধ্যা (সোনালী কুলকার্নী) একজন শিল্পপতির একমাত্র কন্যা, সন্ধ্যার পিতা সন্ধ্যার জীবন সব ক্ষেত্রেই নিয়ন্ত্রিত রাখে। সন্ধ্যা যখন বুঝতে পারে যে তার পিতা তার বিয়ে এক যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী পুরুষের সঙ্গে ঠিক করে রেখেছেন তখন সে পালিয়ে মাদ্রাজ (বর্তমানে চেন্নাই) তে পালিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নেয়। সন্ধ্যার মাদ্রাজে ঈশ্বর (বিনীত) নামের একজন ফটোগ্রাফারের সাথে পরিচয় হয়, তার সাথে বন্ধুত্ব হয় এবং পরে তারা একে অপরের প্রেমে পড়ে। সিনেমার শেষের দিকে দেখায় যে তারা দুজন বিয়ে করছে।

চরিত্রসম্পাদনা

সঙ্গীতসম্পাদনা

মে মাদাম
এ আর রহমান কর্তৃক সঙ্গীত
মুক্তির তারিখ১৯৯৪
শব্দধারণের সময়পঞ্চতন রেকর্ডস ইন
ঘরানাচলচ্চিত্রসঙ্গীত
দৈর্ঘ্য৩১:২৭
সঙ্গীত প্রকাশনীপিরামিড সায়মিরা
আদিত্য মিউজিক
প্রযোজকজি ভেঙ্কাটেশ্বরন
এ আর রহমান কালক্রম
ডুয়েট
(১৯৯৪)
মে মাদাম
(১৯৯৪)
কাদালান
(১৯৯৪)

সঙ্গীত পরিচালনায় ছিলেন এ আর রহমান আর গীতিকার ছিলেন বৈরামুথু[১][২]

মে মাদাম সঙ্গীত
নং.শিরোনামগায়ক/গায়িকাদৈর্ঘ্য
১."মারগাড়ি পুভে"শোভা শঙ্কর০৬ঃ১৮
২."এন মেল ভিড়ুন্দা"পি জয়চন্দ্রন, কে. এস. চিত্রা০৫ঃ০৫
৩."ম্যাডরাসে সুট্টি পাক্কা পোরে"শাহুল হামিদ, স্বর্ণলতা, জি ভি প্রকাশ এবং মনোরমা০৪ঃ৫১
৪."মিন্নালে"এস পি বলসুব্রমনিয়ম০৫ঃ৩৭
৫."আদি পারু মাঙ্গাদা"সুনীতা রাও, টি কে কালা এবং জি ভি প্রকাশ০৫ঃ০১
৬."পালাক্কাট্টু মাচানুক্কু"জি ভি প্রকাশ, নোয়েল জেমস এবং এ আর রহমান০৪ঃ৩৭

মুক্তি এবং গ্রহণসম্পাদনা

১৯৯৪ সালের ৯ই সেপ্টেম্বর মুক্তি পায় এই চলচ্চিত্রটি।[৩] দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস পত্রিকার মালিনী মান্নাথ এই চলচ্চিত্রটি সম্পর্কে লিখেছিলেন, "অভিনেতা-অভিনেত্রী অতটা ভালো না হলেও, চলচ্চিত্রটি ভালোই লেগেছে।"[৪] ইন্দোলিংক সাময়িকীতে লেখা হয় যে, "চলচ্চিত্রটি মূলত তার সঙ্গীতের জন্য ভালো লাগে, কাহিনী অতটা ভালো না, আবার একেবারে খারাপও না।"[৫]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. http://www.starmusiq.com/tamil_movie_songs_free_download.asp?MovieId=204
  2. http://play.raaga.com/tamil/album/May-Madham-songs-T0000094
  3. "May Madham"The Indian Express। ৯ সেপ্টেম্বর ১৯৯৪। পৃষ্ঠা 4। 
  4. Mannath, Malini (৯ সেপ্টেম্বর ১৯৯৪)। "Laugh-riot"The Indian Express। পৃষ্ঠা 6। 
  5. T. K., Balaji (৪ জুন ১৯৯৭)। "INDOlink Film Review: May Maadham"Indolink Tamil। ২৮ সেপ্টে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা