প্রধান মেনু খুলুন

বৈদ্য (সংস্কৃত: वैद्य) একটি সংস্কৃত শব্দ যার অর্থ চিকিৎসক, কবিরাজ বা ডাক্তার[১] ভারতীয় উপমহাদেশের বঙ্গ বা বাংলা অঞ্চলে বসবাসকারী ভূমিপুত্র এবং চতুর্বেদ এ পারদর্শী হিন্দু জনগোষ্ঠী বৈদ্য নামে পরিচিত এবং যা ভারতীয় পদ্ধতির আয়ুর্বেদ অনুশীলনকারি অর্থবহ। বাঙালি বৈদ্যরা বাংলা ভাষায় কথা বলে, যে ভাষাটি ইন্দো-অ্যারিয়ান ভাষার পরিবারভুক্ত। বাঙালি বৈদ্যরা মূলত হিন্দু দর্শনের অন্তর্গত শাক্তবৈষ্ণব মতবাদের অনুসারী[২][৩]। বাঙালি হিন্দুরা প্রধানত ৪ (চার) ভাগে বিভক্ত। ব্রাহ্মণ, বৈদ্য, কায়স্থ এবং শূদ্র / নমঃশূদ্র

বৈদ্য সম্প্রদায়ের মানুষ নিম্নলিখিত পদবী অথবা উপাধিগুলির ধারক হয়। যেমন- বৈদ্য সম্প্রদায়ের মানুষ নিম্নলিখিত পদবী অথবা উপাধিগুলির ধারক হয়। যেমন- ওয়াদ্দেদার / কবিরাজ / করগুপ্ত / গুপ্ত / গুপ্তু / গুপ্তভায়া / গুপ্তশর্মা / গোস্বামী / চৌধুরী / দত্তগুপ্ত / দস্তিদার / দাশ / দাশগুপ্ত / দাশশর্মা / ধরগুপ্ত / নিয়োগী / পট্টনায়ক / ফৌজদার / বক্সি / বরাট / সেন বরাট / বিশ্বাস / মজুমদার / মল্লিক / মুন্সী / দাশমুন্সী / রক্ষিত / রায় / রায়চৌধুরী / সরকার / সেন / সেন চৌধুরী / সেনগুপ্ত / সেনশর্মা / খাস্তগীর প্রমুখ। ব্রাহ্মণদের ন্যায় এরাও পৈতা ধারণ করে এবং নিজস্ব পুজা ইত্যাদি করে।

উৎপত্তি ও জাতিতত্বসম্পাদনা

প্রচলিত একটি মতে দেবাসুরের সমুদ্র মন্থনকালে ধন্বন্তরীর জন্ম হয় এবং বৈদ্যরা তার উত্তরপুরুষ। অন্য মতে ধন্বন্তরীর জন্ম হয় জনৈক মুনির বৈদিক মন্ত্র জপের মাধ্যমে খড়ের গাদা থেকে, তাই তিনি বৈদ্য নামে পরিচিত হন। যেহেতু তার পিতা ছিল না এবং তিনি এক পালিকা মায়ের আদর-যত্নে বড় হন, সেহেতু তাকে বলা হয় অম্বষ্ঠ। বৈদ্য সম্প্রদায়ের মধ্যে এমন একটি মতও প্রচলিত আছে যে, অম্বষ্ঠ নামে সিন্ধুনদের তীরে একটি স্থান ছিল; সেখান থেকে বৈদ্যদের একটি দল দক্ষিণ ভারতে এবং অন্য একটি দল বাংলায় আসে।[৪]

ইতিহাসসম্পাদনা

ব্রিটিশ শাসনামলে তারা বর্ণহিন্দু হিসেবে স্বীকৃত হয় এবং শিক্ষায় বিশেষ উন্নতি লাভ করে। সে সময় তাদের শিক্ষিতের হার ব্রাহ্মণদের চেয়েও বেশি ছিল এবং তারা অত্যধিক হারে কৌলিক বৃত্তি পরিত্যার করে অন্যান্য উচ্চবৃত্তি গ্রহণ করে [৫]

প্রাচীন কালসম্পাদনা

ব্রহ্মবৈবর্তপুরাণের বর্ণনানুসারে ব্রাহ্মণ পিতা ও বৈশ্যমাতার সন্তানরা অম্বষ্ঠ, আর দেবচিকিৎসক অশ্বিনীকুমারের ব্রাহ্মণী স্ত্রীর সন্তানরা বৈদ্য। বৈদ্য ও অম্বষ্ঠ উভয়ই সৎশূদ্র। বৃহদ্ধর্মপুরাণে বৈদ্যবর্ণের উল্লেখ না থাকলেও অম্বষ্ঠদের উত্তম সংকর-শূদ্র উপবর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের বৃত্তি চিকিৎসা ও আয়ুর্বেদ চর্চা বিধায় তারা বৈদ্য নামে পরিচিত।[৬]

মধ্যযুগসম্পাদনা

আধুনিক যুগের প্রথমভাগসম্পাদনা

বৈদ্য রাজত্ব এবং রাজাসম্পাদনা

সেন রাজবংশ কিঞ্চিদধিক একশ বছর (১০৯৭-১২২৫ খ্রিষ্টাব্দ) বাংলা শাসন করে। প্রাচীন বাংলার ইতিহাসে একাদশ শতাব্দীর অন্তিমলগ্নে পাল রাজবংশের অবসান ঘটিয়ে সেনদের উত্থান একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূ্র্ণ অধ্যায়। বাংলার পাল রাজবংশের রাজা দ্বিতীয় মহীপালের রাজত্বকালে বারেন্দ্র 'সামন্তচক্রের' বিদ্রোহের সুযোগ নিয়ে সেন রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা বিজয় সেন পশ্চিমবঙ্গে ক্রমশ স্বীয় আধিপত্য বিস্তার করেন এবং অবশেষে বাংলার পাল রাজবংশের রাজা মদনপালের রাজত্বকালে স্বাধীন সত্ত্বার বিকাশ ঘটান। বাংলায় সেন শাসনের বিশেষ তাৎপর্য এই যে, সেনগণই সর্বপ্রথম সমগ্র বাংলার ওপর তাদের নিরঙ্কুশ শাসন প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছেন। ভারতবর্ষের ইতিহাসে বাংলার সেন বংশীয় রাজাদের মধ্যে বিজয় সেন, বল্লাল সেন, ও লক্ষ্মণ সেন বিশিষ্ট স্থান অধিকার করছেন।

লক্ষ্মণ সেন ছিলেন বৈষ্ণব মতবাদের কঠোর অনুসারী। তিনি 'পরমবৈষ্ণব' বা 'পরমনরসিংহ' উপাধি ধারণ করেন। তার ধর্মমত পরিবর্তন সম্পর্কে সঠিক কিছু জানা যায় না। লক্ষ্মণ সেন তার অসামান্য গুণাবলী ও দানশীলতার জন্য খ্যাত ছিলেন। তবকাত-ই-নাসিরীর লেখক মিনহাজ-উস-সিরাজ তার দানশীলতায় মুগ্ধ হয়ে তাকে বাংলার 'মহান রায়' হিসেবে অভিহিত করেন এবং দিল্লীর সুলতান কুতুবউদ্দিন আইবকের তুল্য বিবেচনা করেন। তার শাসনকালের শেষ দিকে অবশ্য লক্ষ্মণ সেন রাজকার্য পরিচালনায় অশক্ত হয়ে পড়েন। এই সময় সাম্রাজ্যের অভ্যন্তরে বিশৃঙ্খলা ও সংহতির অভাব পরিলক্ষিত হয়। সমসাময়িক লেখসূত্রে সেন রাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চলে বেশ কতগুলি বিদ্রোহী প্রধানের মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার আভাস পাওয়া যায়।

প্রাচীন বাংলার ইতিহাসে সেন রাজবংশের রাজত্বকাল দীর্ঘস্থায়ী না হলেও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পাল সাম্রাজ্যের পতনের পর বাংলায় যে রাজনৈতিক অনৈক্য দেখা দিয়েছিল, সেন রাজারা তা রোধ করেন। সেন রাজারা ছিলেন গোঁড়া হিন্দু। তাই এই সময় বাংলায় হিন্দুধর্ম রাজ-পৃষ্ঠপোষকতা লাভ করে এবং সমাজে ব্রাহ্মণদের মর্যাদা বৃদ্ধি পায়। মুসলমান রাজত্বকালেও যে বাংলায় হিন্দু সংস্কৃতি টিকে ছিল, তার অন্যতম কারণ এই সংস্কৃতিতে সেন রাজাদের অবদান। সেন রাজাদের শাসন শেষ হলে বাংলায় তুর্কি শাসন শুরু হয়।

দেশবিভাগোত্তর কালঃসম্পাদনা

বিশিষ্ঠ বাঙ্গালী বৈদ্যসম্পাদনা

সাহিত্যঃসম্পাদনা

গোত্রঃসম্পাদনা

বৈদ্যরা নিম্নপ্রকার গোত্রভুক্ত হয়ে থাকে।

  • আত্রেয়া
  • আদ্যঋষি
  • কাশ্যপ
  • কৃষ্ণাত্রেয়
  • কৌশিকি
  • ধন্বন্তরি
  • পরাশর
  • বৈশ্বানর
  • ভরদ্বাজ
  • মৌদ্গল্য
  • যামদগ্নি
  • শক্তিঋষি
  • শক্ত্রি
  • শান্ডিল্য
  • সত্ত্বরী
  • সপ্তঋষি
  • সালংক্রায়ন
  • অলাদি
  • অগ্নি
  • মৃগঋষি
  • বিন্ধ্যশক্তি

তথ্যসূত্রঃসম্পাদনা

  1. "বৈদ্য শব্দের অর্থ"
  2. "হিন্দুধর্ম কি?", পৃ নং ২৭
  3. "The Home and the World", রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, পৃ নং ৩২০
  4. "উৎপত্তি"
  5. "ইতিহাস"
  6. "প্রাচীন কাল"
  1. Francis Zimmermann, The Jungle and the Aroma of Meats: An Ecological Theme in Hindu Medicine, page 213.
  2. [১]
  3. Jogendra Nath Bhattacharya, Hindu Castes and Sects, page 172.
  4. Ibid, page 159.
  5. Charaka Samhita, Chikitsasthanam, Rasayan Adhyay, Chaturtha pada, verses 52-53.
  6. Durgachandra Sanyal, Bangalar Samajik Itihas, page 14.
  7. Mahabharata, verse 5.6.2, Udyogaparva.
  8. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna O Gourab, Bani Press, Kolkata, page 146.
  9. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, page 13.
  10. Ibid, page 13.
  11. V J Thakar, Historical development of basic concepts of Ayurveda from Veda up to Samhita, Ayu 31(4), 2010, page 400.
  12. SKR Rao, Encyclopedia of Indian Medicine: Historical Perspectives, Dr. V. Parameshvara Charitable Trust, Vol 1, page 7.
  13. Santanu Chakraverti, Science in History, History of Science, Philosophy and Culture in Indian Civilization, PHISPC- Centre for Studies in Civilizations, page 61.
  14. B.K. Chaturvedi, Vishnu Purana, Diamond Books, page 58.
  15. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna o Gourab, Bani Press, Kolkata, page 145.
  16. Devipada Bhatacharya, Chiranjivi Banoushodhi (Shivkali Bhattacharya), Vol 6, Ananda Publishers, Foreword.
  17. Eliot Freidson, Judith Lorbe (Edited), Medical Professionals and the Organization of Knowledge, page 45.
  18. Manusmriti, verses 1.88- 1.90.
  19. Manusmriti, verse 3.152.
  20. Jogendranath Bhattacharya, Hindu Castes and Sects, page 51.
  21. Debiprasad Chattopadhyay, Science and Society in Ancient India, B.R. Gruner B.V.- Amsterdam, 1977.
  22. P Bala, Medicine and Medical Policies in India: Social and Historical Perspectives, Lexington Books, page 17.
  23. Surendranath Dasgupta, A History of Indian Philosophy, Vol II, Cambridge University Press, page 284.
  24. Subal Chandra Mitra (Edited), Saral Bangla Abhidhan, New Bengal Press Private Limited, page 998.
  25. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, page 97.
  26. Subal Chandra Mitra (Edited), Saral Bangla Abhidhan, New Bengal Press Private Limited, page 999.
  27. Basanta Kumar Sengupta, Baidyajatir itihas, Vol 1, 1913, page 291.
  28. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, page 23.
  29. Jogendranath Gupta, Bikrampurer itihas, 1909, page 5.
  30. Gurupada Haldar, Baidyak Brittanta, 1954, page 134.
  31. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna o Gourab, Bani Press, Kolkata, page 21.
  32. [২]
  33. Nitish K Sengupta, Land of Two Rivers: A History of Bengal from the Mahabharata to Mujib, Penguin Books India, 2011, page 51.
  34. A Butterword and V V Chetty, Copper-plate and Stone Inscriptions of South India, Vol 1, Caxton Publishers, 1905, page 192.
  35. R Tirumalai, The Pandyan Townships, Part-II, Department of Archeology, Govt. of Tamilnadu, 2003, page 47-48.
  36. S Gurumurthy, Medical Science and dispensaries in ancient South India as gleaned from Epigraphy, Indian Journal of Historical Science, Vol 5., No. 1, 1970, page 78.
  37. Basanta Kumar Sengupta, Baidyajatir Itihas, Vol 1, 1913, page 239.
  38. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, page 100.
  39. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna o Gourab, Bani Press, Kolkata, page 145.
  40. Census of India, Vol V. Part 1, 1931, pages 456-457.
  41. Vishnupurana, Chapter 3, verse 6 (mentions that Sakala, Madra, Parasika, Ambashtha groups reside near each other).
  42. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna o Gourab, Bani Press, Kolkata, page 149.
  43. Kalanand Mani and Frederick Noronha, Picture-Postcard-Poverty, Goa 1556, 2008, page 53.
  44. T.P. Russell Stracey, The History of the Muhiyals: The Millitant Brahman Race of India, General Muhiyal Sabha, 1938, page 126.
  45. Panchanan Raya, A Historical Review of Hindu India: 300 BC to 1200 AD, pages 11 and 176.
  46. P.N. Bali, The History of Mohyals, 1995, page 91.
  47. UC Vidyaratna, Jati-tatva Baridhi, page 355.
  48. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna o Gourab, Bani Press, Kolkata, page 149.
  49. Umeshchandra Gupta, Ballalamohamudgara, page 314.
  50. Jatindra Mohan Roy, Dhakar Itihas, page 130.
  51. H. Risley, The People of India, Asian Educational Services, 1999, page 164.
  52. UC Vidyaratna, Jati-tatva Baridhi, page 355.
  53. Ibid, page 365.
  54. Ibid, page 367.
  55. Ibid, pages 371, 374.
  56. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna o Gourab, Bani Press, Kolkata, page 63
  57. Subal Chandra Mitra (Edited), Saral Bangla Abhidhan, New Bengal Press Private Limited, page 130.
  58. Valmiki Ramayana, Ayodhyakanda, Chapter 100, verse 13.
  59. Kisari Mohan Ganguli (Translated), Mahabharata, Bhishmaparva, page 309.
  60. Manusmriti, verses 10.8 and 10.47.
  61. G.S. Ghurye, Caste and Race in India, Popular Prakshan, page 85
  62. Manusmriti 10.41.
  63. UC Vidyaratna, Jati-tatva Baridhi, page 336
  64. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, page 129.
  65. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna o Gourab, Bani Press, Kolkata, page 8.
  66. Brahmavaivartya Purana, verses 123-133.
  67. Jogendranath Bhattacharya, Hindu Castes and Sects, page 14.
  68. UC Vidyaratna, Jati-tatva Baridhi, pages 71–77.
  69. Ibid, page 86.
  70. Ibid, page 105.
  71. Ibid, page 111.
  72. Ludo Rocher, "The Purāṇas", A History of Indian Literature. Vol.II, Epics and Sanskrit religious literature, Fasc.3. Wiesbaden: Otto Harrassowitz Verlag., 1986, pages. 164–166.
  73. R. C. Hazra, The Upapuranas, S. Radhakrishnan (ed.) The Cultural Heritage of India (Edited by S. Radhakrishnan), Vol.II, Kolkata:The Ramakrishna Mission Institute of Culture, 1962, p. 285.
  74. R.C. Majumdar (Edited), The Delhi Sultanate, Mumbai: Bharatiya Vidya Bhavan, 2006, p. 622.
  75. Mukundaram Chakrabary, Kabikankana Chandi, Indian Press limited, 1921, page 88.
  76. Gautam Chatterjee, Sacred Hindu symbols, Abhinav Publications, page 71.
  77. Ambarnath Sengupta, Rarher Birol Matripuja, Anima Prakashani,
  78. Durgachandra Sanyal, Bangalar Samajik Itihas, page 30.
  79. Ibid, page 29
  80. C. A. Bayley, Recovering Liberties: Indian Thought in the Age of Liberalism and Empire., Cambridge University Press, 2012, pages 144–145.
  81. Jogendranath Bhattacharya, Hindu Castes and Sects, pages 21 and 160.
  82. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, page 86.
  83. UC Vidyaratna, Jati-tatva Baridhi, page 348.
  84. Ibid, page 331.
  85. Ibid, page 337.
  86. Jogendranath Bhattacharya, Hindu Castes and Sects, page 160.
  87. LP Vidyarthi, The Sacred Complex in Hindu Gaya, Concept Publishing Company, Delhi, 1978, page 74
  88. UC Vidyaratna, Jati-tatva Baridhi, page 171.
  89. Ibid, page 360.
  90. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, page 132.
  91. Bijaychandra Majumdar, The History of the Bengali language, Asian Educational Services, 2000, page 52.
  92. DC Sircar, Studies in the religious life of Ancient and Medieval India, Motilal Banarsidass, pages 214-216
  93. Ibid, 216.
  94. The Review of Dr. Wise on Race in Medicine, Anthropological Review, Vol. 7, No. 26, 1869, pages. 240-242.
  95. Ram Sharan Sharma, Sudras in ancient India, Motilal Banarsidass, 1990, page 294.
  96. Kisari Mohan Ganguli (Translated), Mahabharata, Anushasana parva, page 32.
  97. UC Vidyaratna, Jati-tatva Baridhi, pages 223-224.
  98. Durgachandra Sanyal, Bangalar Samajik Itihas, page 14.
  99. Subal Chandra Mitra (Edited), Saral Bangla Abhidhan, New Bengal Press Private Limited, page 1004.
  100. Byomkesh Mustafi, Rogshajyar Pralap, Kolkata, 1923, pages 7–9.
  101. Shivkali Bhattacharya, Chiranjibi Banoushodhi, Vol 4, Ananda Publishers, page 63.
  102. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, pages 68–69.
  103. Tribhanga Mohan Sensharma, Kuladarpanam, Part-II, page 29.
  104. Ibid, Part-I, page 630.
  105. Durgachandra Sanyal, Bangalar Samajik Itihas, pages 29–30.
  106. UC Vidyaratna, Jati-Tatva-Baridhi, pages 164-165.
  107. Ibid, page 349.
  108. Parbatishankar Roychowdhuri, Adishur O Ballalsen, page 57.
  109. Umeshchandra Gupta, Ballalmohamudgara, 1905, pages 18–30.
  110. UC Vidyaratna, Jati-Tatva-Baridhi, page 145.
  111. Ibid, pages 146-147.
  112. Pramod Gopal Sensharma, Baidya-Bangshabali O kichu Ajana Lupto Itihas, Hindusthan press, 2006, page 8.
  113. Ibid, page 6.
  114. Ibid, page 19.
  115. Basantakumar Sengupta, Baidyajatir Itihas, Part 1, Preface
  116. UC Vidyaratna, Jati-Tatva-Baridhi, pages 86–92
  117. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, Introduction.
  118. A list of eminent Vaidya scholars with academic can be found in UC Vidyaratna’s Jati-Tatva-Baridhi, pages 172-177.
  119. Jnanendramohan Sensharma, Baidyajatir Barna o Gourab, Bani Press, Kolkata, page 142.
  120. Ibid, page 336.
  121. Tribhanga Mohan Sensharma, Kuladarpanam, Part-1, page 174-192.
  122. Calculated from census data (1921) given in Tribhanga Mohan Sensharma’s Kuladarpanam, pages 241-245.
  123. Ibid, pages 241-245
  124. Ibid, pages 241 and 244.
  125. Shyamacharan Kaviratna, Bangiya Baidyajati, Chattagram Saraswati Press, page 2.
  126. Umeshchandra Gupta, Ballalmohamudgara, 1905, pages 486-492.
  127. Jogendranath Gupta, Bikrampurer Itihas, 1909, pages 5 and 27.