বেলজিয়ামের উত্তর সাগরে স্থাপিত বাতাসে চালিত পাখা, যেখানে ৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয়।

বায়ুকল (ইংরেজি: Wind Turbine) মূলত এমন একটি ঘূর্ণমান যন্ত্র, যা বাতাস থেকে শক্তির রূপান্তর ঘটায়। বাতাসের গতি কাজে লাগিয়ে যান্ত্রিক শক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে বায়ুকল দিয়ে সরাসরি পানি তোলা যায়, কাঠ কাটা যায়, পাথর কাটা যায়। বায়ুকল এভাবে সরাসরি কোনো কাজে ব্যবহার করা হলে তাকে বায়ুকারখানা (Windmill) বলা হয়ে থাকে। আর যেসব বায়ুকল দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়ে থাকে, সেগুলোকে বলা হয় বায়ুজেনারেটর, বায়ুকল জেনারেটর (WTG), বায়ুশক্তি রূপান্তরকারী (WEC), এরোজেনারেটর (aerogenerator) ইত্যাদি।

ধরণসম্পাদনা

বায়ুকল আনুভূমিক কিংবা উল্লম্ব, যেকোনো রকমের হতে পারে। তবে আনুভূমিক ঘূর্ণনক্ষম বায়ুকলই বেশি ব্যবহৃত হতে দেখা যায়।[১]

 
চলমান অবস্থায় তিনটি সাধারণ ধারার আনুভূমিক (HAWT) এবং উল্লম্ব (VAWT) বায়ুকল।

আনুভূমিক বায়ুকলসম্পাদনা

আনুভূমিক বায়ুকলে (Horizontal Axis Wind Turbine: HAWT) বিদ্যুৎ উৎপাদী জেনারেটর এবং রোটর শ্যাফ্‌ট, টাওয়ারের চূড়ায় বসানো থাকে বাতাসের দিকে মুখ করে। এজাতীয় বায়ুকলই বায়ুকলের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং পুরোন।

উল্লম্ব বায়ুকলসম্পাদনা

উল্লম্ব বায়ুকলে (Vertical Axis Wind Turbine: VAWT) বিদ্যুৎ উৎপাদী জেনারেটর থাকে আকাশের দিকে মুখ করে এবং রোটর শ্যাফ্‌ট থাকে টাওয়ারের মতোই লম্বালম্বি। এজাতীয় বায়ুকলের মূল সুবিধা হলো এগুলোকে বাতাসের দিকে মুখ করে থাকতে হয় না।

রেকর্ডধারীদের গ্যালারিসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "উইন্ড এনার্জি বেসিক্‌স"। আমেরিকান উইন্ড এনার্জি এসোসিয়েশন। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ সেপ্টেম্বর ২০০৯ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা