বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

বাংলাদেশের সরকারি টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ

বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় অবস্থিত একটি টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ। কলেজটির একাডেমিক কার্যক্রম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা পরিচালিত হয় এবং প্রশাসনিকভাবে কলেজটি সরাসরি বাংলাদেশের বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। কলেজটি ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ
বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ.jpeg
ধরনসরকারি প্রকৌশল কলেজ
স্থাপিত২০০৭
প্রাতিষ্ঠানিক অধিভুক্তি
বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়
অধ্যক্ষইঞ্জি. মো. বখতিয়ার হোসেন
শিক্ষার্থী৪২০
ঠিকানা, , ,
শিক্ষাঙ্গনশহুরে ১১.১ একর (৪.৫ হেক্টর)
সংক্ষিপ্ত নামবিটেক
ওয়েবসাইটbtec.portal.gov.bd
বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ।

অবকাঠামোসম্পাদনা

‘চরকা’ শিরোনামে ২০১৪ সালে একটি ভাস্কর্য কলেজের প্রধান ফটকের প্রবেশদ্বারে স্থাপন করা হয়। ভাস্কর্য-শিল্পী সৈয়দ সাইফুল কবীরের নিপুণ দক্ষতায় এখানে উঠে এসেছে বাংলার হাজার বছরের ঐতিহ্য তাঁতশিল্পে ব্যবহূত ‘চরকা’। বঙ্গবন্ধু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের ১১ একর জমির উপরে পুরো কমপ্লেক্সটির পরিকল্পক স্থপতি শিরাজী তারিকুল ইসলাম যিনি স্থাপত্য অধিদপ্তর, গৃহায়ন ও গনপূর্ত মন্ত্রনালয়ে কর্মরত আছেন ২০০৫ সাল থেকে!প্রকল্পটির স্থাপত্য নকশা প্রনয়নে তিনি অক্লান্ত পরিশ্রম করেন যেকারণে ২০১০ সালে নকশার কাজ শুরু করে মাত্র ৪ বছরের মধ্যেই প্রকল্পটির নির্মান সম্পন্ন হয় ২০১৪ সালের মধ্যেই।

শিক্ষাপদ্ধতিসম্পাদনা

ভর্তি বিবরণ:

প্রার্থীদের জন্মসূত্রে বাংলাদেশি নাগরিক হতে হবে। এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় ৫০% নম্বর বা জিপিএ ৩.০ (৪র্থ বিষয়সহ) প্রাপ্ত হবে। প্রার্থীদের কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ডিপ্লোমা ইন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং/ ডিপ্লোমা ইন জুট ইঞ্জিনিয়ারিং/ ডিপ্লোমা ইন গার্মেন্টস ডিজাইন ও প্যাটার্ন, 55% নম্বর বা সিজিপিএ ২.৭৫ থাকতে হবে। মোট ১২০টি আসন। ৫টি আসন মুক্তিযোদ্ধা জন্য সংরক্ষিত করা হয়, ১টি আসন উপজাতীয় সম্প্রদায়ের জন্য সংরক্ষিত করা হয়, ১টি আসন ক্ষুদ্র সম্প্রদায়ের জন্য সংরক্ষিত হয়।

সুবিধাসমূহসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা