ফুনাধু বিমানবন্দর

ফুনাধু বিমানবন্দর (আইএটিএ: এফএনডি) মালদ্বীপের শাভিয়ানি প্রবাল দ্বীপপুঞ্জের ফুনাধু দ্বীপে অবস্থিত একটি অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দর। এটি শাভিয়ানি প্রবাল দ্বীপপুঞ্জের ফুনাধু মিলাধুম্মাদুলহু দ্বীপের পূর্ব প্রান্তে অবস্থিত এবং উত্তর মালদ্বীপের বৃহত্তম অধ্যুষিত দ্বীপগুলোর মধ্যে অন্যতম।[১] ফুনাধু বিমানবন্দরে প্রথম পরীক্ষামূলক ফ্লাইট ২৪শে জানুয়ারি, ২০২০ তারিখে অবতরণ করে। দেশটির জাতীয় বিমান সংস্থা মালদ্বীপিয়ান (এয়ারলাইন) ৩রা ফেব্রুয়ারি, ২০২০ তারিখে শাভিয়ানির ফুনাধু দ্বীপে সরাসরি ফ্লাইট শুরু করে। পরিবহন ও বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয়ের মতে, ফুনাধু বিমানবন্দরে অভিযান শুরু হলে প্রতি সপ্তাহে তিনটি উড়ান অবতরণ করা হয়।[১] ২০২০ সালের মার্চ মাস শেষ হলে নির্ধারিত ফ্লাইট দিনে তিনটি ফ্লাইটে উন্নীত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।[২]

ফুনাধু বিমানবন্দর
সংক্ষিপ্ত বিবরণ
বিমানবন্দরের ধরনসর্বজনীন
মালিকমালদ্বীপ সরকার
পরিচালকমালদ্বীপ সরকার
সেবা দেয়ফুনাধু, মালদ্বীপ
অবস্থানমালদ্বীপ
এএমএসএল উচ্চতা৬ ফুট / ২ মি
স্থানাঙ্ক০৬°০৯′৪০″ উত্তর ০৭৩°১৭′১৪″ পূর্ব / ৬.১৬১১১° উত্তর ৭৩.২৮৭২২° পূর্ব / 6.16111; 73.28722
মানচিত্র
এফএনডি মালদ্বীপ-এ অবস্থিত
এফএনডি
এফএনডি
রানওয়ে
দিক দৈর্ঘ্য পৃষ্ঠতল
ফুট মি
০২/২০ ১,১০০ পিচ

ইতিহাসসম্পাদনা

ফুনাধু বিমানবন্দর ফুনাধু এবং পার্শ্ববর্তী দ্বীপপুঞ্জে বসবাসকারী মানুষের দীর্ঘ প্রতীক্ষিত স্বপ্ন ছিল। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে স্থানীয় কাউন্সিল নির্বাচনের আগে ফুনাধুতে বিমানবন্দর প্রকল্পের জন্য ভূমি পুনরুদ্ধার শুরু হয়, কিন্তু পরে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়। ছয় মাস পরে মালদ্বীপের পরিবহন এবং চুক্তিকারী কোম্পানির (এমটিসিসি) ট্রেইলিং সাকশন হোপার ড্রেজার, "মাহা জারাফ" ১৫ই জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে ফুনাধুতে অবস্থান করে এবং দ্বীপের বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য ভূমি পুনরুদ্ধার শুরু করে।[৩] ফুনাধু বিমানবন্দরের জন্য ভূমি পুনরুদ্ধার প্রকল্প ২৭শে মার্চ ২০১৮ সালে সম্পন্ন হয়। অভ্যন্তরীণ বিমানবন্দর উন্নয়নের জন্য দ্বীপের উত্তর দিকের পশ্চিম থেকে ২১ হেক্টর জমি পুনরুদ্ধার করা হয়।[৪]

সুবিধাসম্পাদনা

ফুনাধু বিমানবন্দর সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৬ ফুট (২ মিটার) উচ্চতায় অবস্থিত। ফুনাধু বিমানবন্দরে একটি ১,২০০ মিটার দীর্ঘ এবং ৩০ মিটার চওড়া রানওয়ে আছে, সঙ্গে একটি ৯০ মিটার ট্যাক্সিওয়ে এবং একটি ১৫০ মিটার লম্বা ও ৫০ মিটার চওড়া অ্যাপ্রন, পৃষ্ঠঃ পিচ, ক্ষমতাঃ পিসিএন/১৫/এফ/বি/এক্স/টি রয়েছে।[৫]

বিমানবন্দরের টার্মিনাল ভবনে নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে, কিন্তু অগ্নি ভবন এবং অগ্নি পুকুরে এখনো কাজ চলছে।

দ্বীপের জীববৈচিত্রসম্পাদনা

২০১৮ সালে এমটিসিসি ফুনাধু বিমানবন্দরের রানওয়ে, অ্যাপ্রন এবং ট্যাক্সিওয়ে নির্মাণের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়। ফুনাধু একটি পরিবেশগত সংবেদনশীল এলাকা, এর যমজ দ্বীপ ফারুকোলহুর সাথে একটি প্রবালপ্রাচীর ভাগাভাগি করে, যার মধ্যে রয়েছে ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল। ফুনাধু দ্বীপে বিমানবন্দর স্থাপনের ফলে এর পরিবেশের উপর অনেক প্রভাব পড়ে; যার ফলে বনাঞ্চলের বাস্তুতন্ত্রের জন্য তা হুমকিস্বরূপ হতে পারে।[৬]

এয়ারলাইন্স এবং গন্তব্যসম্পাদনা

ফুনাধু বিমানবন্দরে এয়ারলাইন্স নির্ধারিত যাত্রী সেবা প্রদান করছেঃ

বিমান সংস্থাগন্তব্যস্থল
মালদ্বীপমালে

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Flights to Funadhoo (FND) | Maldivian"Flights to Funadhoo (FND) (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৬ 
  2. "Airline and Location Code Search"www.iata.org (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৬ 
  3. "Land reclamation underway for Funadhoo airport project"The Edition (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৬ 
  4. Maldives, Corporate। "Land reclamation completed for Funadhoo Airport"corporatemaldives.com (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০২-০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৬ 
  5. "Travel Search"transport-search.org। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৬ 
  6. Bridger, Rose। "Funadhoo Airport"antiaero.org (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-১১-০৬