প্রাগপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়

কুষ্টিয়া জেলার সীমান্তবর্তী এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

প্রাগপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় বাংলাদেশের কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার প্রাগপুরে অবস্থিত একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়[১][২][৩] বিদ্যালয়টি ১৯৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি সীমান্তবর্তী এলাকা প্রাগপুর ও আশপাশের এলাকার একমাত্র মাধ্যমিক বিদ্যালয়[৪]

প্রাগপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়
Pragpur Secondary School
ঠিকানা
মানচিত্র
দৌলতপুর-প্রাগপুর রোড


,
৭০৫২
স্থানাঙ্ক২৪°০০′২৮″ উত্তর ৮৮°৪৬′০৫″ পূর্ব / ২৪.০০৭৬৫৭৯° উত্তর ৮৮.৭৬৭৯২৩৬° পূর্ব / 24.0076579; 88.7679236
তথ্য
বিদ্যালয়ের ধরনএমপিওভুক্ত মাধ্যমিক বিদ্যালয়
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৬৯; ৫৫ বছর আগে (1969)[৪]
প্রতিষ্ঠাতামুহাম্মদ মাহাতাব উদ্দীন সরকার[৪]
বিদ্যালয় বোর্ডমাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, যশোর[৫]
বিদ্যালয় জেলাকুষ্টিয়া জেলা
বিদ্যালয় কোড৫৩৫১
ইআইআইএন১১৭৫১৭[৫]
প্রধান শিক্ষকমোঃ আশরাফুজ্জামান[২]
ভাষাবাংলা
ক্যাম্পাসসমূহ০১টি
আয়তন১.২২ একর (৪,৯০০ মি)[৪]
ক্যাম্পাসের ধরনগ্রামীণ
ক্রীড়াক্রিকেটফুটবল
ওয়েবসাইটphsdk.edu.bd

ইতিহাস

সম্পাদনা

প্রাগপুর একটি প্রাচীন ও ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা। অতীতে এটি ভারতের নদিয়া জেলার শিকারপুরের সন্নিকটের একটি গ্রাম ছিল। এই গ্রামের শিক্ষা-দীক্ষা ও প্রায় সব রকম কার্যক্রম শিকারপুরের উপর নির্ভরশীল ছিল। কিন্তু দেশ ভাগের পর প্রাগপুরের সাথে শিকারপুরের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। সেইসময় প্রাগপুরে প্রাথমিক শিক্ষার জন্য একটি মক্তব প্রাথমিক বিদ্যালয় ছিল। কিন্তু মাধ্যমিক শিক্ষার জন্য প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরে মেহেরপুর সদর উপজেলার বাগোয়ান কে.সি.ভি.এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে যেতে হত। কিন্তু যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল খুব শোচনীয়, বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে। শিক্ষার প্রতি শিক্ষিত অভিভাবকদের আগ্রহ এবং ক্রমান্বয়ে শিক্ষার হার বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে এলাকার সুযোগ্য সন্তান প্রফেসর মুহাম্মদ মাহাতাব উদ্দীন সরকার একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেন। তিনি তার ঐকান্তিক প্রচেষ্টার মাধ্যমে ১৯৬৯ সালে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, যশোর থেকে ১৯৭০ সালে বিদ্যালয়টি স্বীকৃতি লাভ করে।[৪]

অবস্থান

সম্পাদনা

বিদ্যালয়টি কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের প্রাগপুরে দৌলতপুর-প্রাগপুর আঞ্চলিক সড়কের পাশে অবস্থিত।

শিক্ষা কার্যক্রম

সম্পাদনা

বিদ্যালয়টি যশোর বোর্ডের অধীনে।[৫] এখানে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান করা হয়ে থাকে।

এছাড়াও বিদ্যালয়ে কম্পিউটার ল্যাব, লাইব্রেরি ও বিজ্ঞানাগার রয়েছে।

সহশিক্ষা কার্যক্রম

সম্পাদনা
  • ক্রীড়া-প্রতিযোগিতা: বিদ্যালয়টিতে প্রতি বছর বিভিন্ন ক্রীড়া-প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। আর এসব ক্রীড়া-প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থী অত্যন্ত আনন্দ ও উৎসাহের সাথে অংশগ্রহন করে বিভিন্ন পুরস্কার জয়লাভ করে। এছাড়াও বিভিন্ন পর্যায়ে পর্যায়ে শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহন করে ক্রীড়া ক্ষেত্রে অনেক সুনাম বয়ে এনেছে।[৬] ক্রীড়া প্রতিযোগিতার জন্য বিদ্যালয়ের নিজস্ব খেলার মাঠ রয়েছে।
  • সাংস্কৃতিক-অনুষ্ঠান: বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্বাধীনতা দিবস, পহেলা বৈশাখ, বিজয় দিবস প্রভৃতিসহ আরো বিভিন্ন বিশেষ বিশেষ দিনে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়ে থাকে। এই সমস্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকেন এলাকার সম্মানিত ব্যক্তিবর্গ, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ। বিভিন্ন ধরণের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা , অভিনয়, বিতর্ক-প্রতিযোগিতা, বক্তৃতা, কৌতুক, গল্প-কবিতা সহ আরো অনেকে ক্ষেত্রে অংশগ্রহন করে থাকে। আর এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের প্রতিভা বিকাশের দ্বার উন্মোচিত হয়। এছাড়াও এই ধরণের অনুষ্ঠানে পুরস্কারের ব্যবস্থা থাকে।[৭]

উল্লেখযোগ্য শিক্ষার্থী

সম্পাদনা

আরও দেখুন

সম্পাদনা

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া (২০২৪-০২-০৭)। "ইবি'র সাবেক ভিসি ড.আসকারী : প্রাগপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যায়ের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন দেশের দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে"আন্দোলনের বাজার। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৪-২৯ 
  2. প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া (২০২৩-০১-২৯)। "প্রাগপুর বিদ্যালয় অ্যালামনাইয়ের তৃতীয় বর্ষপূর্তি"বণিক বার্তা। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৪-২৯ 
  3. প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া (২০১৭-০১-২৮)। "কিশোর-কিশোরীদের নৈতিকতা, মূল্যবোধ ও সংস্কৃতি চর্চা বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন"দৈনিক ইনকিলাব। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৪-২৯ 
  4. "প্রতিষ্ঠানের ইতিহাস"প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট-প্রাগপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৪-২৯ 
  5. "Pragpur Secondary School"যশোর বোর্ড। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৪-২৯ 
  6. "ক্রীড়া-প্রতিযোগিতা"প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট-প্রাগপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৪-২৯ 
  7. "সাংস্কৃতিক-অনুষ্ঠান"প্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট-প্রাগপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়। সংগ্রহের তারিখ ২০২৪-০৪-২৯