প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা

ভারতের সরকারি সংস্থা

প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংগঠন (ইংরেজি: Defence Research and Development Organisation , হিন্দি: रक्षा अनुसंधान एवं विकास संघठन) বা ডিআরডিও এশিয়ার বৃহত্তম প্রতিরক্ষা কন্ট্র্যাক্টরগুলির অন্যতম এবং একটি অন্যতম প্রধান বিমানপ্রস্তুতকারক সংস্থা। ভারতের নয়াদিল্লিতে এই সংস্থার সদর কার্যালয় অবস্থিত। ১৯৫৮ সালে প্রযুক্তি উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান (টেকনিক্যাল ডেভেলপমেন্ট এস্ট্যাবলিশমেন্ট) ও প্রযুক্তি উন্নয়ন ও উৎপাদন অধিকরণের (ডাইরেক্টরয়েট অফ টেকলিক্যাল ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড প্রোডাকশন সঙ্গে প্রতিরক্ষা বিজ্ঞান সংগঠনের (ডিফেন্স সায়েন্স অর্গ্যানাইজেশন) সংযুক্তির মাধ্যমে এই সংস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়।

প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংগঠন
रक्षा अनुसंधान एवं विकास संगठन
সংস্থার রূপরেখা
গঠিত১৯৫৮
সদর দপ্তরডিআরডিও ভবন, নতুন দিল্লি
কর্মী৩০,০০০ (5,000 scientists)
বার্ষিক বাজেট১০,৩০০ কোটি (US$১.৪ বিলিয়ন)(2011-12)[১]
দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী
সংস্থা নির্বাহী
মূল সংস্থাপ্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় (ভারত)
ওয়েবসাইটwww.drdo.org
ডিআরডিও ভবন
ইনসাস অ্যাসাল্ট রাইফেল
অগ্নি-২ মিশাইল

৫১টি ল্যাবরেটরির মাধ্যমে ডিআরডিও-র নেটওয়ার্ক প্রসারিত। এই ল্যাবরেটরিগুলির দ্বারা সংস্থা বিভিন্ন ক্ষেত্র যেমন এয়ারোনটিক, অস্ত্রশস্ত্র, ইলেকট্রনিক ও কম্পিউটার সায়েন্স, মানবসম্পদ উন্নয়ন, জীবন বিজ্ঞান, সামগ্রী, মিশাইল, যুদ্ধযান উন্নয়ন ও নৌগবেষণা ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে প্রতিরক্ষা প্রযুক্তিকে উন্নততর করে তোলার কাজে রত। এই সংস্থায় ৫০০০ জনেরও বেশি বৈজ্ঞানিক ও প্রায় ২৫,০০০ বিজ্ঞান, প্রযুক্তিগত ও সহায়তাকারী কর্মচারী নিযুক্ত।

পণ্য এবং সেবাসম্পাদনা

মিসাইল সিস্টেমসম্পাদনা

সারফেস টু এয়ার মিসাইলসম্পাদনা

  • আকাশ = একটি মাঝারি পাল্লার মোবাইল সারফেস টু এয়ার মিসাইল প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

ভিডিওসম্পাদনা

  1. "India's Defence Budget 2011-12"। indiastrategic.in। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৫ 
  2. "Dr. G. Satheesh Reddy appointed DRDO chief"The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৫