পিটার নেভিল

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার

পিটার মাইকেল নেভিল (জন্ম: ১৩ অক্টোবর, ১৯৮৫) ভিক্টোরিয়ার হথর্নে জন্মগ্রহণকারী অস্ট্রেলীয় পেশাদার ক্রিকেটারঅস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। বর্তমানে পিটার নেভিল ঘরোয়া ক্রিকেটে নিউ সাউথ ওয়েলসমেলবোর্ন রেনেগ্যাডেসের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করছেন। এরপূর্বে তিনি সিডনি সিক্সার্সের পক্ষাবলম্বন করেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-কিপার হিসেবে রয়েছেন।

পিটার নেভিল
Peter Nevill 2011.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামপিটার মাইকেল নেভিল
জন্ম (1985-10-13) ১৩ অক্টোবর ১৯৮৫ (বয়স ৩৪)
হথর্ন, ভিক্টোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া
ডাকনাম"নেভ"
উচ্চতা১৮২ সে.মি.[১]
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০৯-বর্তমাননিউ সাউথ ওয়েলস
২০১১-২০১২সিডনি সিক্সার্স
২০১২-২০১৫মেলবোর্ন রেনেগেডেস (দল নং ২০)
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা এফসি এলএ টি২০
ম্যাচ সংখ্যা ৫৫ ৪৭ ২৮
রানের সংখ্যা ৩,০১২ ৮১৫ ২১৬
ব্যাটিং গড় ৪৪.২৯ ২৩.২৮ ১৪.৪০
১০০/৫০ ৬/১৬ ০/৫ ০/০
সর্বোচ্চ রান ২৩৫* ৭৪ ২৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১৬৫/১০ ৬৫/৪ ১৩/৬
উৎস: CricketArchive, ১৫ জুলাই ২০১৫

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

অস্ট্রেলিয়া অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলে খেলেছেন পিটার নেভিল। ফেব্রুয়ারি, ২০০৯ সালে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে নিউ সাউথ ওয়েলসের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ভিক্টোরিয়ার বিপক্ষে অভিষেক ঘটে তার। ঐ খেলায় তিনি ১৮ ও ০ এবং একটি ক্যাচ পান। মার্চ, ২০১২ সালে ব্রাড হাড্ডিনের পরিবর্তে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দলের সাথে যোগ দেন। কিন্তু ঐ সফরে তিনি একটি খেলায়ও অংশগ্রহণের সুযোগ পাননি।[২]

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

৩১ মার্চ, ২০১৫ তারিখে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া কর্তৃপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের জন্য অস্ট্রেলিয়া দলের সদস্যদের নামের তালিকা ঘোষণা করা হয়। ক্যাপবিহীন অবস্থায় স্পিনার ফাহাদ আহমেদ ও ব্যাটসম্যান এ্যাডাম ভোজেসের সাথে তাকেও দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[৩]

২০১৫ সালের অ্যাশেজ সিরিজে অংশ নেয়ার জন্য ইংল্যান্ডে যান। ব্যক্তিগত কারণে ব্রাড হাড্ডিনের অনুপস্থিতির কারণে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে।[৪] লর্ডসে অনুষ্ঠিত ঐ খেলায় তার দল ৪০৫ রানের বিশাল ব্যবধানে জয় পায় ও সিরিজে ১-১ সমতা আনয়ণ করে। অভিষেক খেলায় তিনি ৭ ক্যাচ নিয়ে টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে যৌথভাবে দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করেন। এছাড়াও তার এ কৃতিত্ব অ্যাশেজ অভিষেক নতুন রেকর্ডের সৃষ্টি করে।[৫][৬] এছাড়াও তিনি প্রথম ইনিংসে ৪৫ করেন।[৭]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Peter Nevill"cricket.com.auCricket Australia। সংগ্রহের তারিখ ২ জুলাই ২০১৫ 
  2. Daniel Brettig (2012). "Nevill and Haddin trade places again" – ESPNcricinfo. Published 16 March 2012. Retrieved 25 October 2013.
  3. "Ashes 2015: Australia announce squad to tour England"। BBC Sport। ৩১ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০১৫ 
  4. "Watson dropped, Haddin withdraws"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১৫ 
  5. "Nevill's lesson in temperament"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-২২ 
  6. Fielding records from Statsguru
  7. "Haddin to press for Ashes recall"। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-২২