পাংশা সরকারি কলেজ

পাংশা সরকারি কলেজ (ইংরেজি: Pangsha Govt. College) বাংলাদেশের রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার একটি ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। পাংশা উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে প্রায় ৫ একর জমির উপর কলেজটি অবস্থিত। ১৯৬৯ সালে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করা হয় এবং ৮ অক্টোবর, ২০১৫ তারিখে কলেজটি জাতীয়করণ করা হয়।[১]

পাংশা সরকারি কলেজ
Pangsha Govt College.JPG
পাংশা সরকারি কলেজের প্রধান ফটক।
ধরনসরকারি কলেজ
স্থাপিত১৯৬৯
অধ্যক্ষমোহাঃ আতাউল হক খান চৌধুরী
শিক্ষার্থী২,০০০
অবস্থান, ,
২৩°৪৭′২৪″ উত্তর ৮৯°২৫′১৭″ পূর্ব / ২৩.৭৯০১৩৩° উত্তর ৮৯.৪২১৩০৯° পূর্ব / 23.790133; 89.421309স্থানাঙ্ক: ২৩°৪৭′২৪″ উত্তর ৮৯°২৫′১৭″ পূর্ব / ২৩.৭৯০১৩৩° উত্তর ৮৯.৪২১৩০৯° পূর্ব / 23.790133; 89.421309
শিক্ষাঙ্গনশহর
অধিভুক্তিজাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়
ক্রীড়াক্রিকেট, ফুটবল, টেবিল টেনিস

প্রতিষ্ঠার ইতিহাসসম্পাদনা

কলেজটি স্থানীয় শিক্ষার উন্নয়নের চিন্তা থেকে স্থানীয় শিক্ষানুরাগী ও সমাজহিতৈষী ব্যক্তিগনের মহতী উদ্যাগে ১৯৬৯ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়। যুগ যুগ ধরে শিক্ষা বিস্তারে কলেজটি অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। জননেত্রী শেখ হাসিনা ৮ অক্টোবর, ২০১৫ তারিখে কলেজটি জাতীয়করণ করেছেন।

একাডেমিক কোর্স চালুর ইতিহাসসম্পাদনা

ক্যাম্পাসসম্পাদনা

 
পাংশা সরকারি কলেজের ক্যাম্পাস।

কলেজ ১টি পুরাতন ভবন, ১টি তিনতলা ভবন, ২টি দ্বিতল ভবন । নতুন পাঁচতলা বিশিষ্ট জিল্লুল হাকিম ভবন নিয়ে গঠিত কলেজ। ছাত্রদের জন্য রয়েছে দুই তলা বিশিষ্ট হোস্টেল। ছাত্রীদের জন্য রয়েছে আলাদা দুই তলা বিশিষ্ট হোস্টেল। ক্যাম্পাসটির মধ্যেই রয়েছে শহীদ মিনার। পাশেই রয়েছে সুন্দর একটি পুকুর। সব মিলিয়ে ছাত্র ছাত্রীদের কোলাহলেয় ৫ একর বিশিষ্ট ক্যাম্পাসটিকে করে তুলেছে সজীব ও প্রাণবন্ত।

শিক্ষক-শিক্ষার্থীসম্পাদনা

এই প্রতিষ্ঠানে মোট শিক্ষার্থী সংখ্যা ২০০০ জন জন।[২]

একাডেমিক কোর্সসম্পাদনা

স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনসমূহসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "পাংশা কলেজ সরকারি হওয়ায় আনন্দ মিছিল"http://www.jjdin.com। সংগ্রহের তারিখ মঙ্গলবার, অক্টোবর ২০, ২০১৫  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য); |প্রকাশক= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  2. "পাংশা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ"http://pangsa.rajbari.gov.bd/। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০১৫  |প্রকাশক= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]